মেহেরপুরে ২ ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে ২৩ হাজার টাকা জরিমানা

 

মেহেরপুর অফিস: মেহেরপুর জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের অভিযানে নিয়ম বহির্ভূতভাবে বিএসটিআইয়ের লাইসেন্স ছাড়াই প্যাকেটে বিএসটিআইয়ের লোগো ব্যবহার, কর্মচারীদের স্বাস্থ্যবিধি না মানা ও স্বাস্থ্য পরীক্ষার সনদ, কারখানার মধ্যে টয়লেট, হাত পরিস্কারের সাবান, হ্যান্ডওয়াস, যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি না মানায় ২ প্রতিষ্ঠানের মালিকের ২৩ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করা হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার দুপুরের দিকে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর, মেহেরপুর জেলা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক সজল আহমেদের নেতৃত্বে মেহেরপুর দীঘিরপাড়া ও বিসিক এলাকায় ভ্রাম্যমাণ অভিযান পরিচালিত হয়। অভিযানকালে বিসিক এলাকার মেসার্স সোনালী চানাচুর কারখানায় দেখা যায় নিয়ম বহির্ভূতভাবে বিএসটিআইয়ের লাইসেন্স ছাড়াই প্যাকেটে বিএসটিআইয়ের লোগো ব্যবহার করছেন। কর্মচারীদের নাই স্বাস্থ্যবিধি ও স্বাস্থ্য পরীক্ষার সনদ, কারখানার মধ্যে টয়লেট, নাই হাত পরিস্কারের সাবান-হ্যান্ডওয়াস, যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি না মেনেই প্যাকেট করছে চানাচুরের। উক্ত অপরাধে প্রতিষ্ঠানটির মালিক মো. ইয়ারুল ইসলামকে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন-২০০৯ এর ৪৩ ও ৪৪ ধারায় ২০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয় এবং দ্রুত সংশোধনের জন্য কিছু নির্দেশনা দেয়া হয়। অপর দিকে দীঘিরপাড়া এলাকায় মেসার্স হেলাল স্টোরকে মেয়াদ ও মূল্যবিহীন পণ্য এবং অবৈধ বিদেশি পণ্য বিক্রয়ের অপরাধে ৩৭ ধারায় ৩ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। এ সময় আরও বেশকিছু প্রতিষ্ঠান তদারকি করা হয়। সবাইকে ন্যায্যমূল্যে পণ্য বিক্রয়, পণ্যের ক্রয় বিক্রয় ভাউচার সংরক্ষণ ও প্রদানের নির্দেশনা দেয়া হয়। অভিযানে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সদর উপজেলা স্যানিটারি ইন্সপেক্টর মো. তারিকুল ইসলাম ও মেহেরপুর পুলিশ লাইনের পুলিশের একটি টিম।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More