স্থানীয় সরকার তথা জেলা পরিষদকে স্বয়ংসম্পূর্ণ হতে হবে

চুয়াডাঙ্গা জেলা পরিষদের মাসিকসভাসহ প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন উপলক্ষে আলোচনাসভায় বক্তারা

স্টাফ রিপোর্টার: চুয়াডাঙ্গা জেলা পরিষদের সেপ্টেম্বর মাসের মাসিকসভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল সোমবার দুপুরে জেলা পরিষদ মিলনায়তনে এ সভার আয়োজন করা হয়। সভায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৪তম জন্মদিন উপলক্ষে কেককাটা ও আলোচনাসভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। এর আগে জেলা পরিষদ চত্বরে নিজস্ব মসজিদ নির্মাণ কাজের উদ্বোধন করা হয়।

চুয়াডাঙ্গা জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শেখ সামসুল আবেদীনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মাসিক সভায় অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব-উপ-পরিচালক ডিডিএলজি) এবং ভারপ্রাপ্ত প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. জাহিদুল ইসলাম, জেলা পরিষদের ভারপ্রাপ্ত সহকারী প্রকৌশলী মো. রোকনুজ্জামান, প্রশাসনিক কর্মকর্তা রমজান আলী, হিসাবরক্ষক আসলাম উদ্দিন, প্রধান সহকারী ইসরাইল হোসেনসহ কর্মকর্তা-কর্মচারীরা উপস্থিত ছিলেন। এসময় জেলা পরিষদের সদস্য শহিদুল ইসলাম শাহান, মাফলুকাতুর রহমান সাজু, জহুরুল ইসলাম, মাহবুবুর রহমান মোল্লা, আবু মুছা, তপন কুমার বিশ্বাস, খলিলুর রহমান, রকিবুল হাসান, সিরাজুল ইসলাম, শফিউল কবির, মোসাবুল ইসলাম লিটন, শফিকুল আলম নান্নু,  নুরুন্নাহার কাকলি, হাছিনা খাতুন, কাজল রেখা, তানিয়া বেগম ও মিতা খাতুন উপস্থিত ছিলেন।

মাসিকসভায় জেলা পরিষদের ৮নং ওয়ার্ডের সদস্য আসাবুল হক ঠা-ু মৃত্যুবরণ করায় শোক প্রস্তাব গ্রহণ ও দাঁড়িয়ে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়। আগামী ৩০ অক্টোবর মেধাবী ছাত্র-ছাত্রীদের মাঝে এককালীন শিক্ষা বৃত্তি প্রদানের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়। এডিপি ও রাজস্ব তহবিলের আওতায় গৃহীত উন্নয়ন প্রকল্পের অগ্রগতি বিষয়ে আলোচনা ও সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়। আয় বৃদ্ধির জন্য জেলা পরিষদের মালিকাধীন বিভিন্ন রাস্তার পাশের জমি ইজারা প্রদান, অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ এবং দোকানঘর নির্মাণ করার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে। সভার আগে জেলা পরিষদ চত্বরে নিজস্ব মসজিদ নির্মাণ কারে উদ্বোধন করেন জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও ভারপ্রাপ্ত প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা। এসময় জেলা পরিষদের সদস্যবৃন্দ ও কর্মকর্তা-কর্মচারীরা উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানে দোয়া পরিচালনা করেন জেলা পরিষদ মসজিদের ইমাম বায়েজিদ হুসাইন।

সভায় জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান শেখ সামসুল আবেদীন বলেন, বর্তমান সরকার বলেছে স্থানীয় সরকার তথা জেলা পরিষদকে স্বয়ংসম্পূর্ণ হতে হবে। আমাদের যে সম্পদ আছে তা যদি সঠিকভাবে কাজে লাগায় তাহলে জেলা পরিষদের বেতন-ভাতা দিতে পারবো। জেলা পরিষদের যে জায়গা আছে সেখানে মার্কেট নির্মাণ করবো। স্থানীয় মেম্বারদের সাথে নিয়ে মার্কেট নির্মাণ করার পরিকল্পনা করা হবে। এজন্য কেন্দ্রীয় কমিটি গঠন করা হবে। চুয়াডাঙ্গা ক্লাব অপসারণ করা হবে। সেখানে দোকানঘর তৈরী করে মাসিক ভাড়া দেয়া হবে। মহামারী করেনায় স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলে আমরা এ পর্যন্ত এসেছি। সকলকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৪তম জন্মদিন উপলক্ষে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানাচ্ছি।

জেলা পরিষদের ভারপ্রাপ্ত প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. জাহিদুল ইসলাম বলেন, জেলা পরিষদের অর্থায়নে নদীর জায়গায় প্রকল্প নেয়া যাবে না। নদীর প্রবাহ বিঘিœত হয় সে কাজ করা যাবে না। প্রকল্প নির্বাচনের সময় প্রকল্পের নাম সঠিকভাবে দিতে হবে। যেসকল প্রকল্পে চুক্তিবদ্ধ হয়েছে সেসকল প্রকল্পের কাজগুলো দ্রুত সম্পন্ন করতে হবে।

 

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More