গ্রাম্য সালিসে জরিমানার নামে চাঁদা আদায়কারীদের ঠাঁই নেই

মিথ্যা মামলার প্রতিবাদে আলমডাঙ্গার সোহাগ মোড়ে মানববন্ধন ও সড়ক অবরোধ

আসমানখালী প্রতিনিধি: ধর্ষণের অভিযোগ তুলে প্রবাসী স্ত্রীর দায়ের করা মিথ্যা মামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন করেছে সমাজের জন্য আন্তর্জাতিক মানবাধিকার আইন প্রয়োগকারী সংস্থা। গতকাল মঙ্গলবার বিকেল ৪টার দিকে আলমডাঙ্গার সোহাগ মোড়ে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। এসময় প্রায় দেড় ঘণ্টা সড়ক অবরোধ করে রাখেন তারা। মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন সংস্থার জেলা শাখার সভাপতি জেলা পরিষদের সংরক্ষিত সদস্য কাজল রেখা।
তিনি বলেন, কুচক্রী মহলের কিছু লোকজন বিচারের নামে মোটা অঙ্কের টাকা হাতিয়ে নিয়ে সত্যকে আড়াল করে মিথ্যা নাটক সাজিয়ে সমাজে প্রচার করে। সালিসে জরিমানার চাঁদাবাজি করছে। তারই ধারাবাহিকতায় প্রকৃত ঘটনা আড়াল করে আলমডাঙ্গার ভোগাইল বগাদি গ্রামের প্রবাসী স্ত্রী তাসলিমা খাতুন ধর্ষণের অভিযোগ তুলে তার পরকীয়া প্রেমিকসহ সাতজনের বিরুদ্ধে একটি মিথ্যা মামলা দায়ের করেছেন। আমাদের সমাজে এসকল চাঁদাবাজদের কোনো ঠাঁই নেই। যেকোনো মূল্যে তাদের প্রতিহত করতে হবে।
কাজল রেখা বলেন, প্রবাসী জিনার হোসেনের স্ত্রী তাসলিমা খাতুনের সাথে প্রতিবেশী মৃত আব্দুর জলিল হোসেনের ছেলে মুসা হোসেনের দীর্ঘদিনের পরকীয়া সম্পর্ক রয়েছে। প্রেমজ সম্পর্কের সূত্র ধরে সম্প্রতি তারা বাড়ির পাশে বাগানে মিলিত হন। অনৈতিক অবস্থায় তাসলিমা ও মুসা হোসেনকে দেখে ফেলেন প্রতিবেশী কাসেম আলীর স্ত্রী সাহেদা বেগম। পরে ঘটনাটি জানাজানি হলে গ্রামে বসানো হয় সালিস বৈঠক। গ্রাম্য মাতব্বর মোকাদ্দেস হোসেন, হাসিবুল, আরিফুল, মুসা, বিষু হোসেন, মুজাম আলী, হাবিবুর রহমান, জাহিদ, মুলুকসহ স্থানীয়রা সালিস বৈঠকের মাধ্যমে কাসেম আলীকে জরিমানা করেন। পরে আরও টাকা দাবি করা হয়।
এ ঘটনায় আলমডাঙ্গা থানায় লিখিত অভিযোগ করে কাসেম আলীর পরিবারের লোকজন। পরে কৌশলে প্রবাসী স্ত্রী বাদী হয়ে সমাজের জন্য আন্তর্র্জাতিক মানবাধিকার আইন প্রয়োগকারী সংস্থার দুজন কর্মীসহ মোট ৭ জনের নামে চুয়াডাঙ্গা আদালতে মামলা দায়ের করে। যা সম্পূর্ণ মিথ্যা ও ভিত্তিহীন।
এদিকে, এসময় প্রায় দেড় ঘণ্টা সড়ক অবরোধ করে রাখা হয়। পরে আসমানখালী পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ আব্দুর রহিম ঘটনাস্থলে গিয়ে এ ঘটনার সুষ্ঠু বিচারের আশ্বাস প্রদান করলে অবরোধ তুলে নেয়া হয়।
মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন সংস্থার পরিচালক ইমরান নাজির, যুগ্ম সচিব নাইম ইসলাম, বিল্লার হোসেন, কালু ম-ল, নাসির উদ্দীন, ছনি হোসেন, সামসুল আলম, বাছের আলী ম-ল, আকরাম হোসেন, সুজন হোসেন, জহুরুল ইসলাম, হাসান আলী, জামাল উদ্দীন, পলাশ হোসেন, তাফিম, রকি, শাহিন, রানা, হামিদুল, সাকিব হোসেন, রিমা খাতুন, হাজেরা খাতুন প্রমুখ। মানববন্ধন পরিচালনা করেন সংস্থার সাধারণ সম্পাদক ইমান আলী।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More