মেহেরপুর সমাজসেবা অফিসের মাঠকর্মী ফারুক আহমেদের লাশ দাফন সম্পন্ন : স্ত্রীর মামলা দায়ের 

মেহেরপুর অফিস: মেহেরপুর শহর সমাজসেবা অফিসের মাঠকর্মী ২ পুত্র সন্তানের জনক ফারুক আহমেদের লাশ দাফন সম্পন্ন হয়েছে। গতকাল শুক্রবার মেহেরপুর শেখপাড়া ঈদগাহ প্রাঙ্গণে নামাজে জানাজা শেষে শেখপাড়া পৌর কবরস্থানে তার লাশ দাফন করা হয়েছে। এদিকে অজ্ঞাতনামা কয়েকজনকে আসামি করে মেহেরপুর সদর থানায় নিহতের স্ত্রী মামলা করেছেন। পুলিশ এখনও পর্যন্ত সন্দেহভাজন কাউকে আটক করতে পারেনি।

জানা যায়, নিহত ফারুক আহমেদের লাশের ময়না তদন্ত শেষে গতকাল শুক্রবার বিকেল সাড়ে ৩ টার দিকে স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়। গতকাল বাদ মাগরিব শেখপাড়া ঈদগাহ প্রাঙ্গণে নামাজে জানাজা শেষে শেখপাড়া পৌর কবরস্থানে তার লাশ দাফন করা হয়েছে। তার দাফন অনুষ্ঠানে বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ অংশগ্রহণ করে।

এদিকে গতকাল নিহতের স্ত্রী নাজমা খাতুন অজ্ঞাতনামা কয়েকজনকে আসামি করে মেহেরপুর সদর থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছেন।

মেহেরপুর সদর থানার ওসি শাহ দারা খান মামলার ঘটনা নিশ্চিত করে বলেন, এখনও হত্যা রহস্য উদঘাটন করা সম্ভব হয়নি। ঘটনার পর থেকে পুলিশি অভিযান অব্যাহত রয়েছে। হত্যা রহস্য উদঘাটনসহ ঘাতকদের আটকের জন্য পুলিশ একাধিক ক্লু নিয়ে এগিয়ে যাচ্ছে বলে তিনি জানান।

উল্লেখ্য, বৃহস্পতিবার রাত ১১ টার দিকে ফারুক আহমেদ মেহেরপুর সদর থানার গেটে অবস্থিত রতনের চায়ের দোকান থেকে চা খেয়ে বাসায় ফিরছিলেন। পথে সুমনের দোকান থেকে মশার কয়েল ও শিশু পুত্রের জন্য জুস কিনে বাসায় উদ্দেশ্যে রওনা হলে নিজ বাড়ির গেটের কাছে পৌঁছামাত্র পূর্ব থেকে ওৎ পেতে থাকে একদল অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী তার ওপর ঝাঁপিয়ে পড়ে এবং তাকে উপযর্ুুপুরি কোপাতে থাকে। এসময় তার চিৎকারে লোকজন ছুটে আসার আগেই অস্ত্রধারীরা পালিয়ে যায়। লোকজন ছুটে গিয়ে তাকে মুমূর্ষু অবস্থায় উদ্ধার করে মেহেরপুর ২৫০ শষ্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More