জীবননগরে অসহায় নারীদের মাঝে সেলাই মেশিন বিতরণ অনুষ্ঠানে এমপি টগর

জনগণের কল্যাণ ও দেশের উন্নয়নে কাজ করে আওয়ামী লীগ

জীবননগর ব্যুরো: জনগণের কল্যাণে ও দেশের উন্নয়নে কাজ করে বলেই মানুষ আওয়ামী লীগকে ভোট দিয়ে সরকার গঠনের সুযোগ দিয়েছে। শুধু তাই নয়, ১৫ আগস্ট, ৩ নভেম্বর, ২১ আগস্ট, ২০০১ পরবর্তী অত্যাচার, নির্যাতন, হত্যাকা-ের পরও আওয়ামী লীগ টিকে আছে শুধু জনগণের সমর্থনেই। ২০০৮ সালের পর আওয়ামী লীগকে ক্ষমতা থেকে উৎখাতের অনেক চেষ্টা ও ষড়যন্ত্র হয়েছে। জনসমর্থন না থাকলে ষড়যন্ত্র করে হত্যাকা- ঘটানো যায়, কিন্তু ক্ষমতায় আসা কিংবা টিকে থাকা যায় না। তাই আওয়ামী লীগকে নিয়ে যতো বেশি নাড়াচাড়া কিংবা ষড়যন্ত্র করা হবে, আওয়ামী লীগের জনসমর্থনের শিকড় আরও বেশি শক্তিশালী হবে। জনগণের সমর্থন নিয়েই প্রতিবার আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় এসে জনগণের মঙ্গলে ও কল্যাণে কাজ করেছে, যার শুভ ফলও জনগণ পাচ্ছে। এতো অত্যাচার, নির্যাতন, হত্যাকা-ের পরও আওয়ামী লীগ টিকে আছে শুধুমাত্র জনগণের সমর্থনেই। আওয়ামী লীগই দেশের একমাত্র রাজনৈতিক দল যেটি দেশের মাটি ও মানুষের মধ্যে থেকে দেশের মাটিতে জন্ম নিয়েছে, তাই আওয়ামী লীগের শিকড় অনেক গভীরে। আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় এলেই দেশ উন্নতি হয়, দেশের মানুষের কল্যাণ হয়, বিশ্বের বুকে মাথা উচু করে চলতে পারে।
গতকাল বুধবার জীবননগর উপজেলায় অসহায় নারীদের মধ্যে সেলাইমেশিন বিতরণ করার সময় চুয়াডাঙ্গা-২ আসনের সংসদ সদস্য হাজি মো. আলী আজগার টগর প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপরোক্ত কথাগুলো বলেন। তিনি আরও বলেন, বর্তমান সরকার ২০৪১ সালের ভিশন বাস্তবায়নের জন্য পিছিয়ে পড়া নারীদের সাবলম্বী করতে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে নানা কর্মসূচি গ্রহণ করেছে। এরই অংশ হিসেবে ঐচ্ছিক তহবিল থেকে উপজেলার ৫৮জন নারীর মধ্যে সেলাইমেশিন বিতরণ করা হলো। মহিলা বিষয়ক অধিদফতর থেকে প্রশিক্ষণ নেয়া এ সমস্ত নারীরা সেলাইয়ের কাজ করে পারিবারিক স্বচ্ছলতা আনার জন্য স্বামীদেরকে সহযোগিতা করতে পারবেন।
জীবননগর উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে বেলা ১১টায় চুয়াডাঙ্গা-২ আসনের সংসদ সদস্য হাজি মো. আলী আজগার টগরের অনকূলে ২০১৯-২০ অর্থ বছরের ঐচ্ছিক তহবিল থেকে নারীদের স্বাবলম্বী করতে উপজেলার ৫৮ জন নারীর মধ্যে সেলাই মেশিন বিতরণ করা হয়। জীবননগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এসএম মুনিম লিংকনের সভাপতিত্বে এবং সাংবাদিক কাজী সামসুর রহমানের উপস্থাপনায় সেলাই মেশিন বিতরণ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, জীবননগর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি গোলাম মোর্তুজা, সাধারণ সম্পাদক উপাধ্যক্ষ নজরুল ইসলাম, সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান আবু মো. আব্দুল লতিফ অমল, পৌর মেয়র জাহাঙ্গীর আলম, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুস সালাম ঈশা, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান আয়েশা সুলতানা লাকী, পৌর আওয়ামী লীগ সভাপতি মুন্সী নাসির উদ্দীন, উথলী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সভাপতি আব্দুল হান্নান, সাধারণ সম্পাদক মোবারক সোহেল আহম্মদ প্রদীপ, হাসাদাহ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক প্রভাষক জসিমউদ্দীন জালাল, সীমান্ত ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সভাপতি আব্দুল মালেক মোল্লা, বাঁকা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল কাদের প্রধান, আন্দুলবাড়ীয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ইউপি চেয়ারম্যান শেখ শফিকুল ইসলাম মুক্তার, মনোহরপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি গোলাম রসুল, সাধারণ সম্পাদক আহসান হাবিব বকুল, জীবননগর পৌর আওয়ামী লীগের সহসভাপতি জয়নাল আবেদীন, সাংগঠনিক সম্পাদক, রফিকুল ইসলাম প্রমুখ।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More