জীবননগরের আন্দুলবাড়ীয়ায় মানববন্ধন ও প্রতিবাদসভা অনুষ্ঠিত

আন্দুলবাড়িয়া প্রতিনিধি: জীবননগরের আন্দুলবাড়িয়ায় বহুমুখী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মমতাজ আহম্মেদ তাজকে অবিলম্বে অপসারণসহ ৯ দফা দাবিতে মানববন্ধন ও প্রতিবাদসভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল রোববার সকাল ১০ থেকে প্রায় দেড়ঘন্টাব্যাপী বিদ্যালয়ের প্রধান ফটকের সামনে ছাত্র সংগ্রাম পরিষদের আয়োজনে সমাবেশ শেষে এ মানববন্ধন ও প্রতিবাদসভা অনুষ্ঠিত হয়। একই সময়ে বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির নেতৃবৃন্দ জরুরী সভায় মিলিত হয়। সড়কপথের পাশে মানববন্ধন ও প্রতিবাদসভা, বিদ্যালয়ের অফিস কক্ষে ম্যানেজিং কমিটির জরুরি সভা অনুষ্ঠিত হয়। পাল্টাপাল্টি সভা করায় জনমনে নানা প্রশ্ন দেখা দেয়। অবশেষে আইন-শৃংঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর উপস্থিতিতে পাল্টাপাল্টি কর্মসূচি শান্তিপূর্ণভাবে সম্পন্ন হয়েছে।

ন্যায়ের সাথে ও সত্যের পথে এ স্লোগান নিয়ে অযোগ্য, দুঃস্কৃতকারী প্রধান শিক্ষক মমতাজ আহম্মেদ তাজের হাত থেকে আন্দুলবাড়িয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয় বাঁচানোর দাবিতে ব্যানার, ফেস্টুন ও প্লেকার্ডে বিভিন্ন লেখা হাতে নিয়ে আন্দুলবাড়িয়া ছাত্র সংগ্রাম পরিষদের উদ্যোগে মানববন্ধন ও প্রতিবাদসভা অনুষ্ঠিত হয়। প্রতিবাদ সভায় বক্তব্য রাখেন আন্দুলবাড়িয়া ক্রীড়া সংস্থার সভাপতি মির্জা হাকিবুর রহমান লিটন, সমাজকর্মী মোল্লা আলতাব হোসেন, সাবেক যুবলীগনেতা সানোয়ার হোসেন, মোল্লা মনিরুজামান মুক্ত, রাকিবুল ইসলাম রুবেল, ইন্নাল হোসেন ও হাসিবুল ইসলাম প্রমুখ। বক্তরা অবিলম্বে লম্পট ও অযোগ্য প্রধান শিক্ষকের অপসারণ ও অযোগ্য ও অদক্ষ বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির অপসারনসহ ৯ দফা দাবি তুলে ধরেন। আগামী ৩১ জানুয়ারির মধ্যে ছাত্র সংগ্রাম পরিষদের এ দাবি মানা না হলে জেলা প্রশাসকের নিকট স্বারকলিপিসহ বৃহত্তর কর্মসূচি গ্রহণ করা হবে বলে মানববন্ধন চলাকালে প্রতিবাদসভা থেকে বক্তরা তাদের বক্তব্যে উল্লেখ করেন। অনুষ্ঠানটি উপস্থপনা করেন রমজান আলী বিশ্বাস। সমাবেশ, মানববন্ধন ও প্রতিবাদসভা সফল করার লক্ষ্যে গত শনিবার রাতে ছাত্র সংগ্রাম পরিষদের নামে এলাকায় ব্যাপক মাইকিং করা হয়। অপরদিকে বিদ্যালয়ে ম্যানেজিং কমিটির জরুরিসভায় কোনো সিদ্ধান্ত ছাড়াই শেষ হয়েছে বলে প্রধান শিক্ষক মমতাজ আহম্মদ তাজ মাথাভাঙ্গাকে নিশ্চিত করেছেন।

প্রসঙ্গত: আন্দুলবাড়িয়া বহুমুখী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সমাজ বিজ্ঞান বিভাগের সহকারী শিক্ষক নাসিমা খাতুন গত ৬ জানুয়ারি প্রধান শিক্ষক মমতাজ আহম্মেদ তাজের বিরুদ্ধে কু-প্রস্তাব দেয়া, সাময়িক বহিস্কার, বেতন কর্তন ও অন্যের স্ত্রীকে ভাগিয়ে নিয়ে বিয়ে করাসহ নানা অভিযোগ তুলে চুয়াডাঙ্গার জীবননগর সহকারী জজ আদালতে নালিশী অভিযোগ দায়ের করেন। বিজ্ঞ আদালত বিবাদীগণকে জবাব প্রদানে আদেশ দেন। আদালতে এ অভিযোগ দায়ের করায় প্রধান শিক্ষকের নেতৃত্বে গত ১৮ জানুয়ারি সহকারী শিক্ষিকা নাসিমা খাতুন মিথ্যা অপবাদ রটনা করায় বিদ্যালয়ের শিক্ষক, শিক্ষিকা ও কর্মচারীরা মানববন্ধন করে তার বহিস্কারের দাবি জানান। সৃষ্ট পরিস্থিতির উদ্ভব ঘটায় পরদিন ম্যানেজিং কমিটির নেতৃবৃন্দ জরুরিসভায় মিলিত হয়ে সহকারী শিক্ষিকা নাসিমা খাতুনকে সাময়িক বহিস্কার করেন।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More