দর্শনায় নদীতে  যুবক নিখোঁজ : ডুবুরি দলের দীর্ঘ অভিযানে লাশ উদ্ধার

দর্শনা অফিস: মাথাভাঙ্গা নদীতে গোসল করতে গিয়ে যুবক নিখোঁজ হন দর্শনা মোবারকপাড়ার ঝলক নামের এক যুবক। নিখোঁজের একদিনের মাথায় ডুবুরি দল দীর্ঘ অভিযান চালিয়ে মাথাভাঙ্গা নদী থেকে ঝলকের লাশ উদ্ধার করেছে। আসলে কি ঝলক গোসল করতে গিয়ে পানিতে ডুবে মরেছে না-কি নেপথ্যে রয়েছে কোনো রহস্য তা খতিয়ে দেখছে পুলিশ। কোনো প্রকার মামলা, অভিযোগ না করায় ময়না তদন্ত ছাড়াই ঝলকের লাশ দাফন সম্পন্ন করা হয়েছে। দর্শনা মোবারকপাড়ার বাচ্চু মিয়ার ছেলে কাঁচামাল ব্যবসায়ী সাইদুর রহমান ঝলক (২০) গত পরশু শনিবার তার ব্যবহৃত নীল রংয়ের ১৫০ সিসি অ্যাপাসি মোটর সাইকেল নিয়ে মাথাভাঙ্গা নদীর জয়নগর সীমান্তবর্তী ঘাটে গোসল করতে যান। দুপুর গড়িয়ে বিকেল, বিকেল গড়িয়ে সন্ধ্যা হলেও বাড়ি ফেরে না ঝলক। এক পর্যায়ে রাত থেকেই ঝলককে খোঁজাখুঁজি শুরু করে পরিবারের সদস্যরা। রাত পেরিয়ে সকাল হলেও বাড়ি না ফেরায় গতকাল রোববার সকালে ঝলকের চাচা দর্শনা রেলবাজারের ব্যবসায়ী নেতা আনোয়ার হোসেন রতন দর্শনা থানায় সাধারণ ডায়েরি করেন। এদিকে শনিবার দিনগত রাত ১টার দিকে নদীর ঘাটে নির্জন স্থান থেকেই মোটরসাইকেলটি উদ্ধার করেন দর্শনা জয়নগর আইসিপি বিজিবি ক্যাম্পের টহল দল। সকালে এ খবর পাওয়ার পর থেকে পরিবারের লোকজন নদীতে খুঁজতে শুরু করে ঝলককে। এক পর্যায়ে দুপুরের পর খুলনা থেকে আনা হয় ডুবুরিদলকে। দীর্ঘ ২ ঘণ্টা নদীর পানিতে অভিযান চালিয়ে ডুবুরিরা উদ্ধার করেছে ঝলকের লাশ। এ ব্যাপারে থানায় কোনোপ্রকার মামলা বা অভিযোগ করা হয়নি। ফলে ময়না তদন্ত ছাড়াই বিকেলে লাশ নেয়া হয় দর্শনা মোবারকপাড়াস্থ বাড়িতে। এশা বাদ মোবারকপাড়া গোরস্থানে ঝলকের লাশ দাফন করা হয়েছে।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More