কাতারকে ডুবিয়ে নকআউট পর্বে নেদারল্যান্ডস

 

মাথাভাঙ্গা মনিটর: টানা দুই হারে আগেই বিদায় নিশ্চিত হয়েছিল স্বাগতিক কাতারের। নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে গ্রুপ পর্বের শেষ ম্যাচটি ছিল স্রেফ নিয়ম রক্ষার। কিন্তু শেষটাও রাঙাতে পারল না আয়োজক দেশটি। উল্টো দাপট দেখিয়ে কাতারকে ডুবিয়ে বিশ্বকাপের নক আউট পর্বে পা রাখল নেদারল্যান্ডস। মঙ্গলবার বিশ্বকাপে ‘এ’ গ্রুপের ম্যাচে স্বাগতিক কাতারকে ২-০ গোলে হারিয়েছে নেদারল্যান্ডস। দলের জয়ের ম্যাচে গোল করেছেন কোডি গ্যাকপো ও ডি জং। ডাচদের প্রথম দুই ম্যাচেও গোল জালের দেখা পেয়েছিলেন কোডি। আজও প্রথম গোল আসে তাঁর পা থেকেই। গ্রুপ পর্বে দুই জয় ও এক ড্রতে মোট ৭ পয়েন্ট নিয়ে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়ে দ্বিতীয় রাউন্ডে উঠেছে ডাচরা। দিনের অন্য ম্যাচে ইকুয়েডরকে হারিয়ে রানার্সআপ হয়ে পরের রাউন্ডের টিকেট পেয়েছে সেনেগাল। এই গ্রুপ থেকে বাদ পড়েছে কাতার ও ইকুয়েডর। আল বাঈত স্টেডিয়ামে ‘এ’- গ্রুপের শেষ ম্যাচে স্বাগতিক কাতারের মুখোমুখি হয় নেদারল্যান্ডস। এদিন ম্যাচের শুরু থেকে আধিপত্য বিস্তার করে খেলে ডাচরা। কাতারের গোলমুখে ১৩টি শট নেয় তারা। যাতে অন টার্গেট শট ৪টি। ২৬তম মিনিটে ডি বক্সের বাইরে থেকে কাতারের রক্ষণ ভেঙে গোল করেন গ্যাকপো। ৩৩ মিনিটে সুযোগ পেলেও কাজে লাগাতে ব্যর্থ হয় কাতার। ৫-৩-২ ফর্মেশনে পুরোপুরি ডিফেন্সিভ দল সাজিয়েও গোল আটকাতে ব্যর্থ হয় কাতার। অপরদিকে ৩-৪-১-২ ফরম্যাটে মাঝমাঠের দখল নিয়ে এগিয়ে যাবার ছক কষে নেদারল্যান্ডস। ফলও পায় প্রথমার্ধজুড়ে আধিপত্য ধরে রেখে। প্রথমার্ধের যোগ করা সময়ে আরেকটি সুযোগ পায় নেদারল্যান্ডস। তবে কাজে লাগাতে পারেনি। বিরতির পর ফিরে অবশ্য লিড বাড়াতে দেরি করেনি কমলা সৈন্যরা। বিরতি থেকে ফিরেই স্কোরলাইন ২-০ করেন ডি জং। এই ব্যবধান ধরে রেখেই শেষ পর্যন্ত জয় তুলে নেয় নেদারল্যান্ডস। এদিন ম্যাচের ৬৩ শতাংশ বল পজিশন দখলে রেখে আক্রমণ সাজায় নেদারল্যান্ডস। তবে ম্যাচে ফাউলের ছড়াছড়ি দেখে আল বাঈতের দর্শকরা। নেদারল্যান্ডসের ১৯ ফাউলের বিপরীতে কাতার করে ৯টি ফাউল।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More