রেগেমেগে স্টাম্প ভাঙলেন সাকিব

ব্যাটে-বলে সময়টা একদম ভালো কাটছে না বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসানের। সেই আক্ষেপ থেকেই কি না আবারও ক্রিকেটের মাঠে মেজাজ হারালেন তিনি। ঢাকা প্রিমিয়ার লীগের আবাহনী-মোহামেডান ম্যাচে আম্পায়ারের সঙ্গে বিতণ্ডায় জড়িয়ে সাকিব লাথি মেরে স্টাম্প ভেঙেছেন, পরে উপড়েও ফেলেন স্টাম্প।
শুক্রবার দুপুরে ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ টি-টোয়েন্টিতে মিরপুর শের-ই-বাংলা স্টেডিয়ামে আবাহনী লিমিটেডের বিপক্ষে এমন ঘটনা ঘটিয়েছেন মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাবের অধিনায়ক সাকিব আল হাসান। ঘটনার সূত্রপাত আবাহনীর রান তাড়ার পঞ্চম ওভারে। সাকিবের প্রথম ওভারে টানা দুই বলে ছক্কা-চার মারেন আবাহনী অধিনায়ক মুশফিকুর রহিম। ওই ওভারের শেষ বলে মুশফিকের প্যাডে বল লাগলে এলবিডব্লিউর আবেদন করেন সাকিব।কিন্তু আম্পায়ার তাতে সাড়া না দিলে চটে যান সাকিব।পরে এক পদক্ষেপ এগিয়ে বাঁপায়ে লাথি মারেন স্টাম্পে। আম্পায়ার ইমরান পারভেজের সঙ্গে ক্ষিপ্ত ভঙ্গিতে কথা বলতেও দেখা যায় তাকে। এই পর্ব চলে বেশ কিছুক্ষণ। এ কাণ্ডের দ্বিতীয় পর্ব ষষ্ঠ ওভারের পঞ্চম বলের পর। তখন বৃষ্টি শুরু হলে মাঠকর্মীদের দিকে ইশারায় কাভার আনতে বলেন আম্পায়ার মাহফুজুর রহমান। সাকিব তখন আবার আম্পায়ারের দিকে এগিয়ে যান, কিছু একটা বলতে দেখা যায় তাকে। এরপর হুট করেই তিনটি স্টাম্পই তুলে আছাড় মারেন মাটিতে। এবারও আম্পায়ারের সঙ্গে বৎসা বাধে তার। এবার এগিয়ে গিয়ে উপড়ে ফেলা স্টাম্পের একটি নিয়ে উল্টো করে আবার মাটিতে পোঁতার চেষ্টা করতে দেখা যায় তাকে।
এখানেই শেষ নয়। বৃষ্টি নামার পর দুই দলের খেলোয়াড়রা যখন ড্রেসিংরুমে ফিরে যাচ্ছেন, তখন সাকিব তেড়ে যান আবাহনীর ড্রেসিং রুমের দিকে। বাইরে বেরিয়ে আসা আবাহনী কোচ খালেদ মাহমুদের দিকে ক্ষিপ্ত সাকিব তেড়ে যান কিছু বলতে বলতে। এসময় মোহামেডানের ক্রিকেটাররা থামান সাকিবকে। প্রথমে ব্যাটিং করে মোহামেডান নির্ধারিত ২০ ওভারে ৬ উইকেটে তোলে ১৪৫ রান।২৭ বলে সর্বোচ্চ ৩৭ রান করেন সাকিব। আবাহনীর পক্ষে এ কে এস স্বাধীন ২৪ রানে ৩ উইকেট নেন। জবাবে ব্যাটিংয়ে নেমে বিপর্যয়ের মুখে পড়ে আবাহনী। ২.৩ ওভারে ৯ রানে ৩ উইকেট হারায় তারা। তারপর বৃষ্টি নামলে খেলা বন্ধ হয়ে যায়। তখন উইকেটে ছিলেন নাজমুল হোসেন ও মুশফিকুর রহিম। আবাহনীর সংগ্রহ ছিল ৫.৫ ওভারে ৫ উইকেটে ৩১।
২০১৮ সালের মার্চে শ্রীলঙ্কার কলম্বোতে নিদাহাস ট্রফির গ্রুপ পর্বের ম্যাচে আম্পায়ারের সিদ্ধান্তের বিরোধিতা করে মেজাজ হারিয়েছিলেন সাকিব। ক্রিকেট মাঠে মেজাজ হারানোর এমন ঘটনা বারবার আলোচিত হয়েছে নানা প্রসঙ্গে।

 

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More