কয়েকটি খেলার খবর : মুশফিকের ব্যাটের দাম উঠলো ৪০ লাখ টাকা

মুশফিকের ব্যাটের দাম উঠলো ৪০ লাখ টাকা
স্টাফ রিপোর্টার: করোনা দুর্গতদের সাহায্যার্থে দেশকে প্রথম ডাবল সেঞ্চুরি এনে দেয়া ঐতিহাসিক ব্যাটটি নিলামে তুলেছেন মি. ডিপেন্ডেবল মুশফিকুর রহিম। নিলাম শেষ হতে এখনো দুই দিন বাকি। এর মধ্যেই সাকিব আল হাসানের ব্যাটকে টেক্কা দিচ্ছেন মুশি। সাকিবের বিশ্বকাপ খেলা ব্যাট যেখানে ২০ লাখ টাকায় বিক্রি হয়েছিলো, সেখানে মুশফিকের ব্যাট ইতোমধ্যেই দ্বিগুণ দামের অফার পেয়ে গেছে। এভাবে চলতে থাকলে ঐতিহাসিক ব্যাটটির দাম অর্ধকোটি পেরিয়ে যেতে পারে। এই ‘এস এস’ ব্যাটটি দিয়েই ২০১৩ সালে গল টেস্টে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে দেশের হয়ে প্রথম ডাবল সেঞ্চুরি করেছিলেন বর্তমানে তিন ডাবলের মালিক মুশফিক। এই ঐতিহাসিক ব্যাটটি এতদিন যতœ করে রেখে দিয়েছিলেন। যা নিলামে তুলেছেন করোনা দুর্গতদের জন্য। নিলামে ব্যাটের ভিত্তি মূল্য ছিলো ৬ লাখ টাকা। নিলামের দায়িত্বে থাকা প্রতিষ্ঠানসূত্রে জানা গেছে, এ পর্যন্ত ৫২ বার মুশফিকের ব্যাটের দাম হাঁকা হয়েছে। মুশফিকের ভেরিফায়েড পেইজ থেকেও এই ব্যাটের সর্বশেষ নিলামের অবস্থা দেখতে পারছেন ভক্তরা।
তবে নিলাম প্রতিষ্ঠান এখনই এতটা আনন্দিত হচ্ছে না। কারণ অনেক ভুয়া ব্যক্তিও এসে অযথা দাম হাঁকাচ্ছেন। একইসঙ্গে নিলাম হচ্ছে অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়ক আকবর আলীর জার্সি ও গøাভস, মোসাদ্দেক হোসেন, নাঈম শেখের ব্যাট, মাশরাফি বিন মুর্তজার সাক্ষর করা ক্যাপ এবং ২০১১ বিশ্বকাপে বাংলাদেশ দলের সব ক্রিকেটারদের সাক্ষর করা একটি ব্যাট। মাশরাফির ক্যাপের ভিত্তি মূল্য ছিলো ১ লাখ টাকা। এ পর্যন্ত দাম উঠেছে ১ লাখ ৪০ হাজার টাকা।

তিন লাখ টাকায় বিক্রি হলো মাশরাফি-সাকিবদের স্বাক্ষরিত ব্যাট
স্টাফ রিপোর্টার: করোনাভাইরাসের কারণে অসহায় মানুষদের আর্থিক সহায়তার জন্য নিজেদের ক্রিকেট সরঞ্জামাদি নিলামে তোলার সিদ্বান্ত নেন বাংলাদেশ জাতীয় দলের ক্রিকেটাররা। তারই প্রেক্ষিতে ১৫ জনের বেশি বাংলাদেশের ক্রিকেটারদের স্বাক্ষরিত ব্যাট নিলামে বিক্রি হলো ৩ লাখ টাকায়। ব্যাটের ভিত্তিমূল্য ছিলো ৯৯ হাজার ৯৯৯ টাকা। ২০১৬ সালে সিডনিতে স্থানীয় দোকানে একটি ক্রিকেট ব্যাটে সই করেছিলেন বাংলাদেশ দলের ১৫ ক্রিকেটার। গতকাল ফেসবুকে ‘অকশন ফর অ্যাকশন’ কর্তৃক নিলাম করে বিক্রি হয় ব্যাটটি। নিলাম থেকে প্রাপ্ত অর্থ সাকিব আল হাসান ফাউন্ডেশনের মাধ্যমে করোনাভাইরাসে অসহায়দের সহায়তায় ব্যয় করা হবে। এছাড়া নিলামে উঠেছিলো অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়ক আকবর আলীর জার্সি ও গøাভস, মোসাদ্দেক হোসেন-নাঈম শেখের ব্যাট, দেশের সাবেক ওয়ানডে অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজার সই করা ক্যাপ এবং ২০১১ বিশ্বকাপে বাংলাদেশ দলের খেলোয়াড়দের সই করা একটি ব্যাট। মাশরাফির ক্যাপের ভিত্তি মূল্য ছিলো ১ লাখ টাকা। এ পর্যন্ত দাম উঠেছে ১ লাখ ৪০ হাজার টাকা। ভারতের বিপক্ষে ৮১ রানের ইনিংস খেলা ব্যাটটি নিলামে তুলেছেন নাঈম শেখ। তার ব্যাটের ভিত্তি মূল্য ছিলো ১ লাখ টাকা। এ পর্যন্ত দাম উঠেছে ১ লাখ ২৮ হাজার টাকা। ২০১১ বিশ্বকাপে বাংলাদেশ দলের ক্রিকেটারদের সই করা ব্যাটের ভিত্তি মূল্য ছিলো ১ লাখ ৫০ হাজার টাকা। এখন পর্যন্ত ঐ ব্যাটের দাম উঠেছে ১ লাখ ৮০ হাজার টাকা। আয়ারল্যান্ডে ত্রিদেশীয় সিরিজ জয়ের প্রধান ভ‚মিকা রাখা মোসাদ্দেকের ব্যাটের দাম এ পর্যন্ত উঠেছে ৩ লাখ ১ হাজার ২ টাকা। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ঐ ফাইনালে ২৭ বলে ৫২ রান করে বাংলাদেশের প্রথমবারের মত কোন টুর্নামেন্টের শিরোপার স্বাদ নেন মোসাদ্দেক। যুব বিশ্বকাপ জেতানো অধিনায়ক আকবরের জার্সি ও গøাভসের ভিত্তি ম‚ল্য ছিলো ১ লাখ টাকা। যার দাম উঠেছে ১ লাখ ৩০ হাজার টাকা। নিলাম শেষ হবে আগামী ১৪ মে।

আইপিএল না হলে কোহলিদের বেতন কাটা হতে পারে
মাথাভাঙ্গা মনিটর: করোনাভাইরাসের কারণে ঘরোয়া ও আন্তর্জাতিক সব ধরনের ক্রিকেট বন্ধ থাকায় ইংল্যান্ড অ্যান্ড ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ড তাদের চুক্তিবদ্ধ ক্রিকেটারদের বেতন কাটার ঘোষণা দিয়েছে। ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া তাদের বেশিরভাগ কর্মী ছাঁটাই করেছে। ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের আয়ের অন্যতম উৎস হলো আইপিএল। করোনায় এবার আইপিএল নাও হতে পারে। আইপিএল না হলে ৪ হাজার কোটি টাকা লোকসান হতে পারে ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ডের (বিসিসিআই)। আর্থিক এ ক্ষতির প্রভাব ক্রিকেটারদের মাসিক পারিশ্রমিকের ওপরও পড়তে পারে। যে কারণে ধারণা করা হচ্ছে বিসিসিআইয়ের কেন্দ্রীয় চুক্তিতে থাকা বিরাট কোহলিদের বেতন কাটা হতে পারে।
স¤প্রতিক এএফপিকে দেয়া সাক্ষাৎকারে বিসিসিআইয়ের কোষাধক্ষ অরুণ ধুমাল বলেছেন, বিষয়টি এখনও চ‚ড়ান্ত হয়নি আমরা যাচ্ছি ক্রিকেটারদের বেতন না কেটে পারা যায় কিনা। তবে যদি আইপিএল না হয় তাহলে বোর্ড বড় ধরনের আর্থিক ক্ষতির সম্মুখীন হবে, তখন হয়তো ক্রিকেটারদের বেতন টাকা হতে পারে। জুনে শ্রীলঙ্কা সফর নিয়ে ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ডের কোষাধ্যক্ষ বলেছেন, আমাদের ক্রিকেটারদের নিরাপত্তা এবং স্বাস্থ্য সুরক্ষার বিষয় চিন্তা করেই বিদেশ সফরের ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে। অক্টোবরে অস্ট্রেলিয়ায় শুরু হওয়ার কথা টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ, এরপর অজিদের সঙ্গে চারটি টেস্ট ও তিনটি ওয়ানডে ম্যাচ খেলার কথা রয়েছে ভারতের। অস্ট্রেলিয়া ও শ্রীলংকা সফরের দুই সপ্তাহ আগে ক্রিকেটারদের হোমকোয়ারেন্টাইনে রাখা হবে জানিয়ে ধুমাল বলেন, টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আগেই ক্রিকেটারদের কোয়ারান্টাইন নেয়া হবে। তাছাড়া ক্রিকেটারদের বিদেশ সফরের আগে সরকারের অনুমতি লাগবে। ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়াও বিশ্বকাপের আগে কি সিদ্ধান্ত নেয় সেটা আমাদের দেখতে হবে।

২০২১ নারী বিশ্বকাপ বাছাই পিছিয়ে গেলো
স্টাফ রিপোর্টার: নিউজিল্যান্ডের অনুষ্ঠিত ২০২১ নারী বিশ্বকাপের জন্য দশ দলকে খেলতে হবে বাছাইপর্ব। বাংলাদেশসহ ১০ দলের ওই বাছাইপর্ব থেকে মূল আসরের টিকেট পাবে তিনটি দল। শ্রীলংকায় আগামী ৩ থেকে ১৯ জুলাই পর্যন্ত অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিলো ওই বাছাইপর্ব। কিন্তু করোনাভাইরাসের কারণে আইসিসি ওই বাছাইপর্বের ম্যাচ স্থগিত করেছে। নারী বিশ্বকাপের বাছাইপর্বে অংশ নেবে বাংলাদেশ, আয়ারল্যান্ড, নেদারল্যান্ড, পাকিস্তান, শ্রীলংকা, পাপুয়া নিউগিনি, ওয়েস্ট ইন্ডিজ, থাইল্যান্ড, যুক্তরাষ্ট্র ও জিম্বাবুয়ে। আট দলের বিশ্বকাপে এরই মধ্যে নিউজিল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়া, ইংল্যান্ড, ভারত ও দক্ষিণ আফ্রিকা জায়গা পাকা করেছে। আইসিসি এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছে, ‘আইসিসির সদস্য ও এর সঙ্গে জড়িত দেশগুলোর সরকার ও স্বাস্থ্য কর্তৃপক্ষের সঙ্গে আলাপ করে ২০২১ নারী বিশ্বকাপের বাছাইপর্ব ও ২০২২ ছেলেদের অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপের বাছাইপর্ব আপাতত স্থগিত করার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।’ আইসিসি টুর্নামেন্ট আয়োজক কমিটির প্রধান ক্রিস টেটলি বলেছেন, ‘কোভিড-১৯ সংক্রমণের কারণে সীমান্ত অবরোধ, বিশ্বজুড়ে স্বাস্থ্য ঝুঁকি ও বিভিন্ন দেশের সরকার ও স্বাস্থ্য কর্তৃপক্ষের মতামত নিয়ে আমরা দুটি বাছাইপর্বই পিছিয়ে দিচ্ছি। এই কঠিন সময়ে খেলোয়াড়, কোচ, কর্মকর্তা, সমর্থক ও পুরো ক্রিকেট বিশ্বের স্বাস্থ্য সুরক্ষা আমাদের কাছে বেশি গুরুত্ব পাচ্ছে।’

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More