এমপিদের পদত্যাগে মূল্য দিতে হবে বিএনপিকে

স্টাফ রিপোর্টার: আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহণ ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, বিএনপির সংসদ-সদস্যরা (এমপি) পদত্যাগ করলেন। তারা ৭ জন গেলে জাতীয় সংসদ অচল হয়ে পড়বে এটা ভাবার কোনো কারণ নেই। তবে এই ভুলের মূল্য দিতে হবে বিএনপিকে। তিনি বলেন, ‘মানুষ জঙ্গিবাদ, সাম্প্রদায়িকতা ও খুনের বাংলাদেশে ফিরে যেতে চায় না। মানুষ খুনের রাজনীতিতে বিশ্বাস করে না। গতকাল শনিবার বিকেলে সাভারের রেডিও কলোনি স্কুল অ্যান্ড কলেজ মাঠে বিএনপি-জামায়াতের ষড়যন্ত্র ও মিথ্যাচারের প্রতিবাদে আয়োজিত আওয়ামী লীগের জনসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে ওবায়দুল কাদের এসব কথা বলেন। তিনি বলেন, বিএনপি আন্দোলনের নামে পিকনিক পার্টি শুরু করেছে। রাজধানীর নয়াপল্টনে গত বুধবার বিএনপির নেতাকর্মীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষের ঘটনার বিষয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, বিএনপি নয়াপল্টনে সমাবেশে অনুমতি পাওয়ার আগেই প্রস্তুতি নিয়েছিলো। সেখানে তল্লাশি চালিয়ে পুলিশ ১৬০ বস্তা চাল, হাঁড়ি-পাতিল, মশারি, মশার কয়েল এসব পেয়েছে। বিভিন্ন জেলার সমাবেশেও তারা এই কাজ করেছে। কোথা থেকে টাকা আসে? কোন ব্যবসায়ী, কোন শিল্পপতি কত টাকা দিয়েছে, সে খবর আমরা জানি। তিনি বলেন, খালেদা জিয়া এতিমের টাকা আত্মসাৎ করায় দ-প্রাপ্ত। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উদারতায় আজ তিনি বাসায় আছেন, নিরাপদে আছেন। বিএনপি কি আন্দোলন করে খালেদা জিয়াকে মুক্ত করেছে? ওবায়দুল কাদের বলেন, ১০ তারিখের পর নাকি দেশ চলবে খালেদা জিয়ার নির্দেশে, তারেক ফিরে আসবে বাংলাদেশে। কিন্তু দেখতে দেখতে ১৫ বছর, তারেক ফিরে আসবে কোন বছর। নয়াপল্টনে জমায়েত হতে না পেরে আজ গোলাপবাগে সমাবেশ করার মধ্য দিয়ে বিএনপির অর্ধেক পরাজয় হয়ে গেছে মন্তব্য করে তিনি বলেন, ‘আজকে পল্টনে গেলেন না? এতে হাফ ডিফিট হয়ে গেছে।’ পুলিশের ওপর হামলার বিষয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, পুলিশের ওপর তারা হামলা করবে, আর পুলিশ কি বসে বসে ললিপপ খাবে। আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক আরও বলেন, ১৫ আগস্টে বঙ্গবন্ধুকে হত্যার মাস্টারমাইন্ড জিয়াউর রহমান। খুনিদের পুরস্কৃত করেছেন তিনি। বঙ্গবন্ধু হত্যায় জড়িতদের পুনর্বাসিত করেছেন জিয়া। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশেই দেশ চলবে। আগামী নির্বাচনেও শেখ হাসিনার সরকার ক্ষমতায় আসবে। মানুষ ভোট দিয়ে আওয়ামী লীগকেই নির্বাচিত করবে। কাদের বলেন, বিএনপি ভাওতাবাজি করছে। তারা মিথ্যাচার করে মানুষকে বিভ্রান্ত করছে। আর লন্ডনে বসে তাদের মদদ দিচ্ছে তারেক রহমান। তিনি বলেন, ‘খেলা হবে। বিজয়ের মাসে খেলা হবে। খেলা হবে দুর্নীতির বিরুদ্ধে, মিথ্যাচারের বিরুদ্ধে, জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে, সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে। একাত্তরের পরাজিত শক্তিকে বিতাড়িত করা হবে।’ বক্তব্যের শুরুর দিকে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, আজকের এই মঞ্চে নেতা আর নেতা। সিকি নেতা, আদুলি নেতা, পাতি নেতা। মঞ্চে এত নেতা কেন, কর্মী কোথায়। এত নেতা কেন? র‌্যাবের ওপর নিষেধাজ্ঞা দিতে বিএনপি লবিস্ট নিয়োগ করেছিল বলে দাবি করেন ওবায়দুল কাদের। সমাবেশে তিনি বলেন, যুক্তরাষ্ট্র থেকে আজ সকালে খবর এসেছে। বাংলাদেশের জন্য ভালো খবর আর ষড়যন্ত্রকারীদের জন্য খারাপ খবর। যুক্তরাষ্ট্র ৯টি দেশের ৪০ ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানকে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে। সেখানে বাংলাদেশ নেই। বিদেশি বন্ধুরা এখন বাস্তবতা অনেকটাই বুঝতে পেরেছে। সামনে আরও বুঝতে পারবে। সাভার উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি হাসিনা দৌলার সভাপতিত্বে এবং গোলাম কবিরের সঞ্চালনায় জনসভায় অতিথি ছিলেন আওয়ামী লীগের সভাপতিম-লীর সদস্য ড. আব্দুর রাজ্জাক, অ্যাডভোকেট জাহাঙ্গীর কবির নানক, অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুল আলম হানিফ, আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, সাংগঠনিক সম্পাদক মির্জা আজম, দুর্যোগ ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী ডা. মো. এনামুর রহমান, ঢাকা জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বেনজীর আহমদ ও সাধারণ সম্পাদক পনিরুজ্জামান তরুণ।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More