এসএসসি পরীক্ষা শুরু ১৫ সেপ্টেম্বর : সময় ২ ঘণ্টা

 

স্টাফ রিপোর্টার: আগামী ১৫ সেপ্টেম্বর, বৃহস্পতিবার বাংলা প্রথমপত্রের পরীক্ষার মাধ্যমে সারাদেশে একযোগে শুরু হচ্ছে ২০২২ সালের এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা। এবার মোট পরীক্ষার্থী ২০ লাখ ২১ হাজার ৮৬৮ জন। এ বছর ৩ ঘণ্টার পরিবর্তে প্রতিটি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে ২ ঘণ্টা। বেলা ১১টা থেকে পরীক্ষা শুরু হয়ে দুপুর ১টা পর্যন্ত চলবে। পরীক্ষা শুরুর ৩০ মিনিট আগে অর্থাৎ ১০টা ৩০ মিনিটের মধ্যে কেন্দ্রে প্রবেশ করতে হবে পরীক্ষার্থীদের। সোমবার এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার আইনশৃঙ্খলা সংক্রান্ত বৈঠক শেষে এক সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। পরীক্ষা উপলক্ষে আগামী ১২ সেপ্টেম্বর থেকে ২ অক্টোবর পর্যন্ত মোট ২০ দিন দেশের সব ধরনের কোচিং সেন্টার বন্ধ থাকবে বলেও জানান তিনি। শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘গত বছরের তুলনায় এবারের এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় পরীক্ষার্থীর সংখ্যা কমেছে। তবে পরীক্ষার কেন্দ্র ও প্রতিষ্ঠানের সংখ্যা বেড়েছে।’ এর কারণ হিসেবে তিনি বলেন, আমাদের প্রত্যেক পরীক্ষায় অনিয়মিত পরীক্ষার্থী একটা বড় সংখ্যায় থাকে। গত বছর আমরা সংক্ষিপ্ত সিলেবাসে মাত্র তিনটি বিষয়ে পরীক্ষা নিয়েছি। তাতে পাসের হারও অন্যান্য বছরের তুলনায় অনেক বেশি ছিলো। সে কারণে এবার অনিয়মিত শিক্ষার্থীর সংখ্যা একেবারেই কম। সে কারণে মোট পরীক্ষার্থীর সংখ্যা কমেছে। এসএসসি পরীক্ষা চলাকালীন কোনো ধরনের রাজনৈতিক কর্মসূচি ঘোষণা ও পালন না করার আহ্বানও জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী। তিনি বলেন, এসএসসি পরীক্ষার সময়ে রাজনৈতিক কর্মসূচি পালন করলে সেটি পরীক্ষার্থীদের ব্যাঘাত ঘটাবে। সেটি থেকে সব রাজনৈতিক ব্যক্তিদের বিরত থাকতে হবে। আমাদের শিক্ষার্থীরা আগামী দিনের ভবিষ্যত। শিক্ষার্থীদের চাইতে রাজনীতি বড় নয়। বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্ররাজনীতি প্রসঙ্গে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে দীপু মনি বলেন, গণতান্ত্রিক সমাজ চাইলে, সচেতন মানুষ চাইলে, দায়িত্বশীল সুনাগরিক-বিশ্ব নাগরিক গড়তে চাইলে, রাজনৈতিক সচেতনতার কোনো বিকল্প নেই। তবে কোনো শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে দলীয় রাজনীতি থাকবে কি থাকবে না, তা সেই প্রতিষ্ঠান শিক্ষার্থীদের সঙ্গে মিলে সিদ্ধান্ত নিতে পারে। কিন্তু কোনো স্বাভাবিক-সুস্থ প্রক্রিয়াকে নিষিদ্ধ করলে সেটির ফলাফলও আবার ভালো হয় না। সেগুলোও বিবেচনায় নেয়া উচিত। সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, ৯টি সাধারণ শিক্ষাবোর্ডে এ বছর মোট ১৫ লাখ ৯৯ হাজার ৭১১ শিক্ষার্থী এসএসসি ও সমমান পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করবে। মাদরাসা বোর্ডের দাখিল পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করবেন ২ লাখ ৬৮ হাজার ৪৯৫ জন এবং কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের এসএসসি (ভোকেশনাল) ও দাখিল পরীক্ষায় মোট পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ১ লাখ ৫৩ হাজার ৬৬২ জন। এবার সারাদেশে মোট পরীক্ষা কেন্দ্র ৩ হাজার ৭৯০টি। গত বছর ছিলো ৩ হাজার ৬৭৯টি। সে হিসেবে মোট কেন্দ্র বেড়েছে ১১১টি। এ বছর মোট শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ২৯ হাজার ৫৯১টি। গত বছর ছিলো ২৯ হাজার ৩৫টি। সে হিসেবে মোট প্রতিষ্ঠান বেড়েছে ৫৫৬টি। সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী, মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের সচিব মো. আবু বকর ছিদ্দীক, মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদফতরের মহাপরিচালক অধ্যাপক নেহাল আহমেদ, ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান অধ্যাপক তপন কুমার সরকার প্রমুখ।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More