কঠোর লকডাউন : দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া ঘাটে উপচেপড়া ভিড়

স্টাফ রিপোর্টার: করোনার প্রকোপ বেড়ে যাওয়ায় চলমান লকডাউনের মধ্যেই দেশজুড়ে ১৪ এপ্রিল হতে কঠোর লকডাউনের সিদ্ধান্ত নিতে যাচ্ছে সরকার। এ সংক্রান্ত ঘোষণায় ঢাকা ছাড়তে শুরু করেছেন অসংখ্য মানুষ। এর প্রভাব পড়ছে দেশের অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌরুটের ওপর। এ রুটে চলাচলকারী ফেরিগুলোতে গাদাগাদি করে পার হচ্ছেন সাধারণ যাত্রীরা। অধিকাংশ যাত্রীর মধ্যেই সচেতনতার বালাই নেন। গতকাল রোববার সরেজমিন দেখা যায়, দূরপাল্লার যানবাহন বন্ধ থাকায় ঢাকা ও এর আশপাশের জেলা শহরগুলো থেকে খেটেখাওয়া সাধারণ মানুষ বিভিন্ন ছোট ছোট যানবাহনযোগে পাটুরিয়া ফেরি ঘাটে আসছেন। সেখান থেকে গাদাগাদি করে ফেরি পার হয়ে দৌলতদিয়া ফেরিঘাটে আসছেন। এখানে আসার পর অতিরিক্ত ভাড়া দিয়ে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে ইজিবাইক, মাহিন্দ্র, মোটরসাইকেল, নসিমন, পিকআপসহ বিভিন্ন যানবাহনে গাদাগাদি করে গন্তব্যস্থলের দিকে রওনা করছেন তারা। সরকারিভাবে স্বাস্থ্যবিধি মানার কথা বলা হলেও সাধারণ মানুষের মধ্যে তা মেনে চলার কোনো লক্ষণ দেখা যায়নি। রাজধানীর হোটেল ব্যবসায়ী আফছার উদ্দিন বলেন, চলমান কঠোর লকডাউনে এমনিতেই ব্যবসা মন্দা। তার ওপর চোর-পুলিশ খেলে ব্যবসা চালানোও অসম্ভব। তাছাড়া সামনে কঠোর লকডাউন এবং রোজায় ব্যবসা এমনিতেই বন্ধ রাখতে হবে; তাই আগে থেকেই চরম ঝুঁকি থাকা সত্ত্বেও স্ত্রী-সন্তানকে নিয়ে চলে আসলাম। বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন করপোরেশন (বিআইডব্লিউটিসি) দৌলতদিয়া কার্যালয়ের (এজিএম) ফিরোজ শেখ বলেন, বর্তমান ঘাটে যানবাহনের চাপ বেড়েছে। সরকার লকডাউনের ব্যাপারে আরও কঠোর হওয়ার ঘোষণা দেয়ায় মানুষ ঢাকা ছাড়ছে। আমরা চেষ্টা করছি মানুষকে যতটা সম্ভব স্বাস্থ্যবিধি মেনে পারাপার করতে।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More