করোনামুক্ত রাখতে সরকারি নির্দেশনা মেনে চলার আহ্বান

করোনা পরিস্থিতি নিয়ে জীবননগর ইউএনও’র সিরাজুল ইসলামের বিশেষ সাক্ষাৎকার

এম আর বাবু: বৈশ্বিক মহামারী করোনা ভাইরাস থেকে জীবননগর উপজেলাকে করোনামুক্ত রাখতে উপজেলা নির্বাহী অফিসার সিরাজুল ইসলাম কঠোর পরিশ্রম করে চলেছেন। তাকে সার্বক্ষণিকভাবে সহযোগিতা করছেন জীবনগর থানার অফিসার ইনচার্জ সাইফুল ইসলাম ও উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. জুলিয়েট পারউইন স্নিগ্ধাসহ উপজেলা পরিষদের একঝাক কর্মকর্তা। গতকাল শুক্রবার রাতে দৈনিক মাথাভাঙ্গাকে বিশেষ সাক্ষাৎকার দিয়েছেন ইউএনও সিরাজুল ইসলাম।

দৈনিক মাথাভাঙ্গার এক প্রশ্নের জবাবে ইউএনও সিরাজুল ইসলাম বলেন, শুরু থেকেই জীবননগর উপজেলাকে করোনামুক্ত রাখতে সরকারি এবং চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রশাসক নজরুল ইসলাম সরকারের নির্দেশনা মোতাবেক কাজ করে যাওয়া হচ্ছে। ইতোমধ্যে বিদেশ ফেরত প্রবাসীদের হোম কোয়ারেন্টাইন শেষ হলেও বর্তমানে বিভিন্ন জেলা থেকে বাড়ি ফেরা ১৯১ জনকে হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। বেশ কয়েক জনের করোনার মতো উপসর্গ দেখা দেয়ায় তাদের লালারস নিয়ে পরীক্ষার জন্য পরীক্ষাগারে পাঠানো হয়। এর মধ্যে খয়েরহুদার মৃত বৃদ্ধা রেহেজানসহ অধিকাংশ পরীক্ষার রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছে। তিনি বলেন, করোনা মোকাবেলাই আমরা আমাদের সামর্থ অনুযায়ী প্রস্তুতি গ্রহণ করা হয়েছে। হাসপাতালের চিকিৎসকদের পিপিই ও মাস্কসহ মেডিকেল সামগ্রী দেয়া হয়েছে। আপতকালীনের জন্য মজুদও রাখা হয়েছে। প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনের জন্য ১শ’ বেড প্রস্তুত করা হচ্ছে। এরমধ্যে ৬০টি বেড ইতোমধ্যে প্রস্তুত করা হয়েছে। উপজেলার সকল হাট-বাজার নিকটবর্তী স্কুল ও খেলার মাঠে স্থানান্তর করা হয়েছে।

ইউএনও সিরাজুল ইসলাম বলেন, করোনা মোকাবেলায় সরকার পর্যাপ্ত ত্রাণ ও নগদ টাকা বরাদ্দ দিয়েছে। ত্রাণের জন্য উপজেলার ২৩ হাজার ৬শ’ পরিবারের তালিকা তৈরি করা হয়েছে। ইতোমধ্যে ১১ হাজার ৬শ’ পরিবারকে খাদ্য সহায়তা প্রদান করা হয়েছে। ৩৩৩ হট লাইনে ফোন পেয়ে ৪শ’ পরিবারকে খাদ্য সামগ্রী তুলে দেয়া হয়েছে। এছাড়াও সামাজিক অবস্থান বিবেচনা করে অনেক পরিবারকে রাতের আধারে গোপনে খাদ্য সহায়তা প্রদান করা হয়েছে। তাদের নাম ঠিকানা গোপন রাখা হচ্ছে। শিশু ফুডসহ নগদ ৪ লাখ ৫ হাজার টাকা সহায়তা প্রদান করা হয়েছে।

তিনি বলেন, খাদ্য এবং টাকা মজুদ রয়েছে যা চাহিদা অনুযায়ী দরিদ্রদের মাঝে বিতরণ করা হচ্ছে।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার সিরাজুল ইসলাম জীবননগরবাসীদের প্রতি উদাত্ব আহŸান জানিয়ে বলেন, করোনা মোকাবেলায় সরকারি নির্দেশনা মেনে বাড়িতে অবস্থান করুন। কোনো কারণ ছাড়া ঘরের বাইরে বের হওয়ার প্রয়োজন নেই। জীবননগর উপজেলাকে করোনা ভাইরাসমুক্ত রাখতে সকল প্রকার পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে। অযথা বাইরে বের হওয়ার প্রয়োজন নেই। বের হলে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর আইনি পদক্ষেপ নিতে একজন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের নেতৃত্বে আইন শৃঙ্খলাবাহিনী সার্বক্ষণিক কাজ করছেন। তিনি বলেন, করোনা ভাইরাস নিয়ে অহেতুক আতঙ্কিত না হয়ে সাবধানতা অবলম্বন করতে হবে। সামজিক দূরত্ব বজায় রেখে প্রশাসনিক সহযোগিতা নেয়ার জন্য তিনি উপজেলাবাসীতে আহ্বান জানান।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More