কালীগঞ্জে প্রবাসীর স্ত্রীকে গণধর্ষণের অভিযোগ : ব্লাকমেইল করে টাকা দাবি

কালীগঞ্জ প্রতিনিধি: ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ উপজেলার পূর্ববালিয়াডাঙ্গা গ্রামের এক প্রবাসীর স্ত্রী ও তিন সন্তানের জননীকে গণধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। এছাড়াও ভিকটিম ওই গৃহবধূর কাছে ৫ লাখ টাকা দাবি করা হয়। অন্যথায় ধর্ষণের ভিডিও ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেয়ার হুমকি দেয়া হয়।
অভিযোগে জানা যায়, বালিয়াডাঙ্গা গ্রামের শাহাজান আলীর পুত্র সাঈদ হোসেন, আব্দুল লতিফের পুত্র আলী হোসেন, আব্দুর রহিমের পুত্র জুয়েল, আল-আমিনসহ ৫/৭ জন তাকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। দীর্ঘদিন ধরে আমাকে বিভিন্নভাবে উত্ত্যক্ত করে আসছিলো এবং বিভিন্ন সময় প্রাণনাশের হুমকি দিতো।
ভিকটিম জানায়, স্বামী বিদেশ যাওয়ার পর তিন মেয়েকে নিয়ে বাড়িতে থাকি। গত ৫-৬ মাস সাঈদ হোসেন নামে একজন আমাকে মোবাইলে ফোন দিতো। বিভিন্ন সময় ফোনে উত্ত্যক্ত করতো এবং ফোন দেয়ার বিষয়ে কারও কাছে বললে আমাকে ও আমার সন্তানদের মেরে ফেলার হুমকি দিতো। আমি ভয়ে কাউকে কিছু বলিনি। বিভিন্ন সময় ফোন দিয়ে কুপ্রস্তাব দিতো। এরপর ৩০ জুন মঙ্গলবার ঘটনার দিন রাতে সাঈদ ফোন দিয়ে আমাকে ঘরের বাইরে আসতে বলে। না খুললে দরজা ভেঙে ঘরে ঢুকবে। মানসম্মানের ভয়ে ঘরের দরজা খুলতেই তারা ৩/৪ জন আমকে বাড়ির পেছনের একটি আমাবাগানে নিয়ে যায়। এরপর আমাকে তারা জোরপূর্বক ধর্ষণ করে এবং মোবাইলে সেই দৃশ্য ধারণ করে। এরপর আমি বেহুশ হয়ে মাঠের মধ্যে পড়ে থাকি। ২-৩ ঘন্টা পর জ্ঞান ফিরে এলে আমি বিবস্ত্র অবস্থায় পড়ে আছি দেখতে পাই। এরপর আস্তে আস্তে উঠে বাড়ির দিকে চলে আসি।
তিনি আরো জানান, ঘটনার পরদিন সকালে আমি কাউকে কোনো কিছু জানানোর আগেই তারা আমাকে মোবাইলফোনে হুমকি দিতে শুরু করে। যেনো আমি কাউকে কিছু না বলি। কাউকে কিছু বললে তারা আমার সস্তানের অনেক ক্ষতি করবে ও ধর্ষণ করা ভিডিও ইন্টারনেটে ছেড়ে দেবো। আমি এই ভয়ে চুপ থাকি। এরপর তারা আমাকে ফোন দিয়ে ৫ লাখ টাকা দাবি করে। নাহলে ধর্ষণের ভিডিও ইন্টারনেটে ছেড়ে দেয়ার ভয় দেখায়। আমি টাকা দিতে অপারগতা প্রকাশ করলে তাদের কাছে থাকা ওই ভিডিও কয়েকজনকে দেখালে পরে বিষয়টি লোক জানাজানি হয়।
ভিকটিম ওই গৃহবধূ এই প্রতিবেদকের সাথে কথা বলতে বলতে হাউমাউ করে কাঁদতে থাকেন আর যারা এই কাজ করেছে তাদের কঠিন শাস্তি দাবি করেন। তিনি বলেন, আমি গত ৮ জুলাই কালীগঞ্জ থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছি।
কালীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মুহা. মাহফুজুর রহমান মিয়া বলেন, এ ব্যাপারে এখনও কোনো লিখিত অভিযোগ পায়নি। লিখিত অভিযোগ পেলে অবশ্যই প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেবো।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More