কোনো চাপ অনুভব করছি না: সিইসি

 

স্টাফ রিপোর্টার: অনিয়মের কারণে গাইবান্ধা-৫ আসনের উপনির্বাচন বন্ধ করে নির্বাচন কমিশন (ইসি) কোনো ধরনের চাপ অনুভব করছে না বলে জানিয়েছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কাজী হাবিবুল আউয়াল। রোববার নির্বাচন ভবনে সাংবাদিকের প্রশ্নের জবাবে সিইসি এ কথা বলেন। হাবিবুল আউয়ালকে এক সাংবাদিক প্রশ্ন করেন, ‘সিসিটিভি মনিটর করে গাইবান্ধা-৫ আসনের উপনির্বাচন বন্ধ করে অনেকের বাহাবা পেয়েছেন। আবার রাজনীতিবিদদের দিক থেকে সমালোচনাও পেয়েছেন। আপনারা এই সিদ্ধান্ত নিয়ে চাপ অনুভব করছেন কি না?’ সাংবাদিকের প্রশ্নের জবাবে সিইসি বলেন, ‘আমরা কোনো চাপ অনুভব করছি না। আমরা আমাদের কাজ করছি।’ জেলা পরিষদ নির্বাচনে একই চিত্র দেখতে পেলে ইসি কী করবে, এমন প্রশ্নের জবাবে হাবিবুল আউয়াল বলেন, ‘আগাম কিছু বলতে পারছি না। আর এটা একটা ভিন্ন ধরনের নির্বাচন। এখানে নির্বাচকম-লী ভোট দেবেন।’ সিইসি বলেন, ‘সিসিটিভির প্রচলনটা সাম্প্রতিক। আমরা এর আগে দুটি করেছি। আর এটা নিঃসন্দেহে একটা অগ্রগতি, ভোটাররা যাতে ভোট দিতে পারেন, তা আমরা কেন্দ্রীয়ভাবে মনিটর করি। এটা একটা ভালো উদ্যোগ।’ জাতীয় নির্বাচনে সিসিটিভির ব্যবহার সংক্রান্ত প্রশ্নে নির্বাচন কমিশনার মো. আলমগীর বলেন, ‘পরীক্ষামূলকভাবে আমরা সিসিটিভি স্থাপন করে পর্যবেক্ষণ করছি। আমাদের টেকনিক্যাল এক্সপার্টদের সঙ্গে কথা বলছি। জাতীয় নির্বাচনে ৪২ হাজার কেন্দ্র ও ৪ লাখ বুথ থাকে। সেটা মনিটর করা সম্ভব। এটা আমাদের অনেক বড় আকারে করতে হবে। অনেক লোক নিয়োগ দিতে হবে। তখন মনিটরে আমরা পাঁচজন নয়, আরও অনেক লোক থাকবে। আমাদের সচিবালয়ের কর্মকর্তারা আছেন। তাদের দায়িত্ব দেওয়া হবে। তারা সবাই মিলে মনিটর করবেন।’ মো. আলমগীর বলেন, জেলা পরিষদ নির্বাচনের সব কেন্দ্র ও কক্ষে সিসিটিভি ক্যামেরা থাকবে। গাইবান্ধা-৫ আসনের উপনির্বাচনের মতো একইভাবে ভোট মনিটর করা হবে। ১২ অক্টোবর গাইবান্ধা-৫ (সাঘাটা-ফুলছড়ি) আসনে উপনির্বাচন ছিল। এদিন সকালে ভোট গ্রহণ শুরুর পর থেকেই অনিয়মের কারণে একের পর এক কেন্দ্রের ভোট বাতিল করতে থাকে ইসি। দুপুর নাগাদ এক-তৃতীয়াংশ কেন্দ্রের ভোট বাতিল করা হয়। শেষ পর্যন্ত পরিস্থিতি সামাল দিতে না পেরে বেলা আড়াইটার দিকে পুরো ভোট গ্রহণই বন্ধ ঘোষণা করে ইসি।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More