গণপরিবহনের বর্ধিত ভাড়া প্রত্যাহারের দাবি

স্টাফ রিপোর্টার: গণপরিবহনের বর্ধিত ভাড়া প্রত্যাহারের দাবি জানিয়েছে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক লীগ। এ সময় পরিবহন মালিকরা বিআরটিএ-এর যোগসাজশে সাধারণ যাত্রীদের কষ্টার্জিত অর্থ লুটপাট করছে উল্লেখ করে চালক ও শ্রমিকদের নিয়োগপত্র প্রদানসহ ১২ দফা দাবি জানিয়েছে সংগঠনটি। মঙ্গলবার (১৫ জুন) বঙ্গবন্ধু এভিনিউতে সংগঠনটির কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত এক সংবাদ সম্মেলনে এসব দাবি জানানো হয়।
সংবাদ সম্মেলনে সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের সভাপতি মোহাম্মদ হানিফ খোকন। সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক মো. ইনসুর আলী বলেন, লকডাউনে শিল্পপ্রতিষ্ঠান, অফিস-আদালত খোলা। পরিবহনে গাদাগাদি করে যাত্রী নেয়া হচ্ছে। গণপরিবহনে স্বাস্থ্যবিধি পালন বা জীবাণুনাশক ব্যবহারের কোনো বালাই নেই। শ্রম আইন অনুযায়ী মালিক কর্তৃক পরিবহন চালক ও শ্রমিকদের নিয়োগপত্র দেয়ার কথা। কিন্তু শ্রমিকদের তা দেয়া হয় না।
তিনি আরও বলেন, পরিবহন-শ্রমিকদের কাছ থেকে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশন এবং তাদের অন্তর্ভুক্ত বেসিক ইউনিয়নগুলো দীর্ঘদিন ধরে শ্রম আইন পরিপন্থী চাঁদা উত্তোলন করে অবৈধ সম্পদের মালিক হওয়া শ্রমিক ফেডারেশনের নেতা ও তাদের পরিবারের সদস্যদের জ্ঞাত আয়বহির্ভূত সম্পদের হিসাব যাচাই-বাছাই করে আইনানুগ ব্যবস্থা নিতে হবে।
নেতারা কোভিড-১৯ পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হওয়া পর্যন্ত সরকার কর্তৃক পরিবহন-শ্রমিকদের আগামী এক বছর পর্যন্ত রেশন প্রদানের ব্যবস্থা করা, অগ্রাধিকার ভিত্তিতে পরিবহন-শ্রমিকদের কোভিড-১৯ প্রতিরোধক টিকাদান এবং বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক লীগ ঘোষিত পরিবহন-শ্রমিকদের ন্যায়সঙ্গত ১২ দফা দাবি বাস্তবায়নের আহ্বান জানান।
শ্রম আইন অনুযায়ী এবং সরকার ঘোষিত প্রজ্ঞাপন মোতাবেক মালিক কর্তৃক পরিবহন-শ্রমিকদের নিয়োগপত্র প্রদান এবং বেতন-ভাতা পরিশোধ, অবৈধ চাঁদা আদায়কারীদের গ্রেফতার করাসহ ১২ দফা দাবি বাস্তবায়নের লক্ষ্যে আগামী ১ জুলাই থেকে মাসব্যাপী বিভিন্ন জেলা ও উপজেলায় পরিবহন-শ্রমিক সমাবেশ ও জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বরাবর স্মারকলিপি প্রদান কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়।
এতে আরও উপস্থিত ছিলেন সংগঠনটির সহ-সভাপতি মো. আব্দুল কাইয়ুম, প্রচার সম্পাদক মো. ইরফান করিম, দফতর সম্পাদক আশরাফুল ইসলামসহ বিভিন্ন থানা ও ওয়ার্ড শাখার নেতারা।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More