চিনিকল বন্ধের চক্রান্তের প্রতিবাদসহ ৫ দফা দাবিতে শ্রমিক-চাষিদের মানববন্ধন : চিনি কারখানা বন্ধ পরিকল্পনা বাতিল করা না হলে বৃহত্তর আন্দোলনের হুশিয়ারী

স্টাফ রিপোর্টার: চিনিকল বন্ধের চক্রান্তের প্রতিবাদসহ ৫ দফা দাবিতে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছেন শ্রমিক-চাষিরা। গতকাল শনিবার চুয়াডাঙ্গার দর্শনা, ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ ও কুষ্টিয়ার জগতি চিনিকলের শ্রমিক এবং চাষিরাসহ দেশের বিভিন্ন চিনিকল শ্রমিক এবং চাষিরা এ কর্মসূচি পালন করে। মানববন্ধন কর্মসূচিতে বক্তারা বলেন, চলতি আখ মাড়ই মৌসুমে দেশের ১৫টি চিনিকলই একযোগে চালু, শ্রমিক কর্মচারিদের ৭ মাসের বেতন পরিশোধ, শ্রমিকদের গ্রাইচ্যুটি পরিশোধসহ আখচাষিদের বকেয়া পাওনা পরিশোধ করতে হবে। চিনি কারখানা বন্ধ পরিকল্পনা বাতিল করা না হলে বৃহত্তর আন্দোলনের হুশিয়ারী দিয়ে শ্রমিকরা জানায়, দেশের ১৫টি রাষ্ট্রয়াত্ব চিনিকলের মধ্যে কুষ্টিয়া জগতি, পাবনা, শ্যামপুর, রংপুর, পঞ্চগড় ও সেতাবগঞ্জ চিনিকল বন্ধের পরিকল্পনা করছে সরকার। চিনিকলগুলো বন্ধ করা হলে হাজার হাজার শ্রমিক-কর্মচারী যেমন পথে বসবে পরিবার-পরিজন নিয়ে, তেমনই অসংখ্য কৃষক লাভজনক আখচাষ থেকে হবে বঞ্চিত। পাশাপাশি অর্থনৈতিকভাবে ভেঙে পড়বে সেসব এলাকাগুলো। সরকারের এ ধরণের বৈরী সিদ্ধান্ত পরিবর্তনের দাবিতে আজ রাজপথে শ্রমিক-কর্মচারী, আখচাষিরাই নয়, সামাজিক, রাজনৈতিক, সাংস্কৃতিক ও সুধীমহলসহ সর্বস্তরের মানুষ নেমেছে মাঠে। চিনিকল বন্ধের পরিকল্পনা বাতিল, শ্রমিকদের বকেয়া বেতন পরিশোধ, আখচাষিদের সময়মতো সার ও কীটনাশক বিতরণ, শ্রমিকদের সভাসমাবেশ করার অগাত স্বাধীনতা ও কোনো কারণ দর্শানো ছাড়া শ্রমিক ছাটাই বন্ধ করার দাবিতে সর্বস্তরের মানুষের উপস্থিতিতে করা হয়েছে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ কর্মসূচি।
বক্তারা আরও বলেন, চলতি ২০২০-২১ রোপণ মরসুম শুরু হলেও কৃষকের সার ও কীটনাশক কিনতে না পারায় বন্ড বা স্ট্যাম্প করছে না মিল কর্তৃপক্ষ। সার ও কীটনাশক না পেয়ে বিপাকে পড়েছে আখচাষিরা। ফলে সময়মতো বন্ড না হওয়ায় আখ রোপনে অনাগ্রহ দেখাচ্ছে অনেক কৃষক। অন্যদিকে মিলের শ্রমিক কর্মকর্তাদের তিন মাসের প্রায় সাড়ে ৪ কোটি টাকা বাকি। বাকি রয়েছে গেলো বছরের মৌসুমি শ্রমিকদের অভার টাইমের প্রায় অর্ধকোটি টাকা। কিন্তু চলতি মৌসুমের আর মাত্র কয়েকদিন বাকি থাকলেও মিলের এমন নাজুক অবস্থায় শ্রমিক কর্মচারী ও মিল এলাকার আখচাষিদের মধ্যে হতাশা ছড়িয়ে পড়েছে।
দর্শনা অফিস জানিয়েছে, দর্শনায় গতকাল শনিবার সকাল ১০ টা থেকে ১২ টা পর্যন্ত টানা ২ ঘন্টা দর্শনা-মুজিবনগর সড়ক খানেকটা অবরোধ হয়ে পড়ে। পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়। বেলা ১১ টার দিকে শুরু হয় মানববন্ধন কর্মসূচি। সূর্যের প্রখর চোখ রাঙ্গানিকে উপেক্ষা করে রাস্তার দুধারে দাবি সংবলিত ব্যানার, পোস্টার ও ফেস্টুন হাতে নিয়ে দাঁড়িয়ে পড়ে মানুষ। মানববন্ধন কর্মসূচি চলাকালীন বিক্ষোভ সমাবেশে বক্তব্য দেন, দামুড়হুদা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলী মুনছুর বাবু, দর্শনা পৌর মেয়র মতিয়ার রহমান, জেলা পরিষদের সাবেক প্রশাসক মাহফুজুর রহমান মঞ্জু, কমরেড অ্যাড. শহিদুল ইসলাম, সৈয়দ মজনুর রহমান, সিএ্যান্ডএফ নেতা আতিয়ার রহমান হাবু, দামুড়হুদা উপজেলা যুবলীগের সভাপতি আ. হান্নান ছোট, কেরুজ শ্রমিক-কর্মচারি ইউনিয়নের সভাপতি তৈয়ব আলী, সাধারণ সম্পাদক মাসুদুর রহমান, সহ-সভাপতি মোস্তাফিজুর রহমান, সহ-সম্পাদক খবির উদ্দিন, শ্রমিক নেতা হাফিজুল ইসলাম, আ. খালেক, মনিরুল ইসলাম প্রিন্স, ফারুক আহমেদ, ফিরোজ আহমেদ সবুজ, হাজি হারুন অর রশিদ, দর্শনা পৌর যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক শেখ আসলাম আলী তোতা, যুবলীগ নেতা সোলায়মান কবির, আ. মান্নান খান, দর্শনা পৌর যুবদলের সভাপতি এনামুল হক শাহ মুকুল, হাবীবি জহির রায়হান, আখচাষি কল্যাণ সংস্থার সভাপতি আ. হান্নান, সাধারণ সম্পাদক আ. বারী, সহ-সভাপতি ওমর আলী, বীর মুক্তিযোদ্ধা রুস্তম আলী, হাজি আকমত আলী, দর্শনা কলেজ ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক তোফাজ্জেল হোসেন তপু। উপস্থাপনা করেন জাহাঙ্গীর আলম লুল্লু।
কালীগঞ্জ প্রতিনিধি জানিয়েছেন, ঝিনাইদহের কালীগঞ্জে মোবারকগঞ্জ চিনিকল শ্রমিক কর্মচারীরা পাওনা বেতন ও কৃষকের সার কীটনাশক এবং মিল চালুর দাবিতে মানববন্ধন করেছে। কেন্দ্রীয় কর্মসূচীর অংশ হিসেবে শনিবার সকালে মিলের প্রধান ফটকের ঢাকা-খুলনা সড়কে এই মানববন্ধন করে। সভায় বক্তব্য রাখেন মোবারকগঞ্জ চিনিকল শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি ও শ্রমিক ফেডারেশনের আইন ও দরকষাকষি সম্পাদক গোলাম রসুল। এসময় আখ চাষি কল্যাণ সমিতির সাধারণ সম্পাদক মাসুদুর রহমান মন্টু, চিনিকল শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক শরিফুল ইসলামসহ মিলের শত শত শ্রমিক কর্মচারী উপস্থিত ছিলেন।
কুষ্টিয়া প্রতিনিধি জানিয়েছেন, বাংলা চিনি ও খাদ্য শিল্প কর্পোরেশনভুক্ত কুষ্টিয়া চিনিকল লোকসানজনিত কারণ উল্লেখ করে বন্ধের সিদ্ধান্তের প্রতিবাদসহ ৫ দফা দাবিতে কুষ্টিয়া চিনিকল শ্রমিক ও চাষিদের মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। শনিবার বেলা ১১টায় কুষ্টিয়া চিনিকল সংলগ্ন বাইপাস সড়কে শ্রমিক-কর্মচারি ইউনিয়ন, আখচাষি কল্যাণ সমিতি ও রেনউইক যজ্ঞেশ^র শ্রমিক ইউনিয়নের যৌথ উদ্যোগে এ মানববন্ধন কর্মসূচি পালিত হয়। সমাবেশে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ আখচাষি ফেডারেশনের যুগ্ম সম্পাদক মনিরুজ্জামান আতু, কুষ্টিয়া চিনিকল শ্রমিক-কর্মচারী ফেডারেশনের সভাপতি ফারুক হোসেন, সাধারণ সম্পাদক আনিসুর রহমান ও রেনউইক যজ্ঞেশ^র শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি রিপন হোসেন ও সাধারণ সম্পাদক জাফর ইকবাল প্রমুখ।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More