চুয়াডাঙ্গায় পুলিশের বাধায় পণ্ড ছাত্রদলের মিছিল : বিক্ষোভ সমাবেশ

খালেদা জিয়াকে কটূক্তি ছাত্রদল সভাপতির ওপর হামলা-মামলা-গুম ও সাঁড়াশি গ্রেফতারের প্রতিবাদে কর্মসূচি

মাথাভাঙ্গা ডেস্ক: বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে হত্যার হুমকি, কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য করা, ছাত্রদল সভাপতি কাজী রওনকুল ইসলাম শ্রাবণের ওপর হামলা-মামলা-গুম এবং সারাদেশে সাঁড়াশি গ্রেফতারের প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশ করেছে জাতীয়তাবাদী ছাত্রদল। কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে গতকাল সোমবার চুয়াডাঙ্গায় পৃথক স্থানসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে এ বিক্ষোভ ও প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। তবে প্রায় সব স্থানেই পুলিশি বাধার মুখে পড়ে প- হয়ে যায় ছাত্রদলের বিক্ষোভ মিছিল। পরে প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

গতকাল সোমবার বিকেল ৪টার দিকে চুয়াডাঙ্গা আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয় মাঠ থেকে জেলা ছাত্রদলের সভাপতি মো. শাজাহান খাঁনের নেতৃত্বে একটি বিক্ষোভ মিছিল বের করা হয়। মিছিলটি পুলিশের কঠিন বাধার মুখে পড়লে সেখানে বিক্ষোভ সমাবেশ করেন নেতাকর্মীরা।

সমাবেশে ছাত্রদল সভাপতি মো. শাজাহান খাঁন বলেন, অবৈধ সরকারের অবৈধ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যে হত্যার হুমকি ও কুরুচিপূর্ণ বক্তব্য দিয়েছে দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে কটাক্ষ করে চুয়াডাঙ্গা জেলা ছাত্রদলের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান, অবিলম্বে এই কুরুচিপূর্ণ বক্তব্য প্রত্যাহার না করলে চুয়াডঙ্গা জেলা ছাত্রদল কঠিন থেকে কঠিনতর সরকার হটাও আন্দোলনে নামতে বাধ্য হবে এবং তিনি আরওও বলেন কেন্দ্রীয় ছাত্রদলের সভাপতি মেধাবী ছাত্রনেতা কাজী রওনকুল ইসলাম শ্রাবণ ভাইয়ের ওপর শাদা পোষাকধারী ডিবি পুলিশের ন্যাক্কারজনক হামলার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান এবং পুলিশ প্রশাসনকে ছাত্রনেতাদের ওপর এমন ন্যাক্কারজনক হামলা না করার আহ্বান জানান। সেই সাথে চুয়াডাঙ্গা জেলা ছাত্রদলের সকল নেতৃবৃন্দকে সুসংগঠিত হয়ে কেন্দ্র ঘোষিত সকল কর্মসূচি সফল করার জন্য আহবান জানান।

সমাবেশে অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন জেলা ছাত্রদলের সিনিয়র সহসভাপতি তৌফিক এলাহী, সহসভাপতি মাসুদ রানা মুক্ত, হাবিবুর রহমান স্কয়ার বিশ্বাস, ইন্তিয়ার হোসেন ইরন, শেখ শাহাবার সুজন, শাহাবুদ্দিন আমম্মেদ, যুগ্মসাধারণ সম্পাদক সাদ্দাম হোসেন, রোকন জোয়ার্দ্দার, কাইছ আহম্মেদ, সহসাংগঠনিক সম্পাদক আরিফুর হক, ইকরামুল হক ইকরা, জুড়োন আহম্মেদ, টিংকু শেখ, প্রচার সম্পাদক বাইজিদ হোসেন মুর্শিদ, মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক সম্পাদক হিরক আহাম্মেদ, যোগাযোগ বিষয়ক সম্পাদক সৌরভ আরেফিন শাওন, আপ্যায়ন বিষয়ক সম্পাদক শুকুর আলীসহ সমাজ সেবা সম্পাদক আব্দুল লতিফ, সদস্য খালিদ হাসান, আজিজুল, জেলা ছাত্রনেতা শাহিন আলম ও ইমদাদ হোসেন। সমাবেশ পরিচালনা করেন জেলা ছাত্রদলের সাংগঠনিক সম্পাদক আহসান হাবীব মামুন।

অপরদিকে, সোমবার বিকেলে চুয়াডাঙ্গা জেলা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক মোমিন মালিতার নেতৃত্বে জেলা-উপজেলা-ইউনিয়ন পর্যায়ের নেতাকর্মীরা চুয়াডাঙ্গা সাহিত্য পরিষদ চত্বরে জড়ো হতে থাকে। পরে সেখান থেকে একটি বিক্ষোভ মিছিল বের হয়ে শহরের সড়ক প্রদক্ষিণ করে সদর থানার সামনে পৌঁছুলে পুলিশের বাঁধার মুখে পড়ে। ছত্রভঙ্গ হয়ে সেখান থেকে সাহিত্য পরিষদ চত্বরে ফিরে প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে জেলা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক মোমিন মালিতা বলেন, জনগণের টাকায় পদ্মা সেতু নির্মাণ হলেও নিজের বলে দাবি করছেন অবৈধ সরকার। আর সেই সেতু থেকে সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়াকে ফেলে দেয়া হবে বলে হত্যার হুমকি দেয়া হয়েছে। যা কখনো মেনে নেয়া যায় না। অন্যদিকে রাষ্ট্রের বাহিনীগুলোকে ব্যবহার করে সরকার জোর করে ক্ষমতা ধরে রেখেছে। তিনি আরও বলেন, এই সরকারের নির্যাতনের মাত্রা অনেক গুণে বেড়ে গেছে। যার ফলে ছাত্রদলের নতুন সভাপতি শ্রাবণকে শাদা পোশাকে গুম করার অপচেষ্টা চালানো হচ্ছে। এর তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি। একই সাথে ছাত্রদলের নেতাকর্মীদের নামে মিথ্যে মামলা দিয়ে তাদের হয়রানি যারা করছেন তাদের সাবধান করে দিচ্ছি। সময় সবসময় এক রকম যাবে না, এর উত্তম জবাব দেয়া হবে।

কর্মসূচিতে উপস্থিত ছিলেন জেলা ছাত্রদলের সিনিয়র যুগ্মসম্পাদক জুয়েল মাহমুদ, সহসভাপতি সাইফুল ইসলাম, রনি জোয়ার্দ্দার, মীর শুভ জামান, সাহাবুদ্দীন আহমেদ বুদ্দীন, আশিকুর রহমান, শরিফুল ইসলাম ছোটন, যুগ্মসম্পাদক আমান উল্লাহ আমান, আরিফ আহমেদ শিপ্লব, সাইমুম আহমেদ ইকবালসহ জেলা-উপজেলার ও ইউনিয়ন ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More