চুয়াডাঙ্গা মেহেরপুর ঝিনাইদহসহ সারাদেশে আন্তর্জাতিক সাক্ষরতা দিবস পালন

সরকারের প্রচেষ্টায় দেশে সাক্ষরতার হার প্রায় ৭৫ শতাংশ
স্টাফ রিপোর্টার: ‘কেভিড-১৯ সংকট সাক্ষরতা শিক্ষায় পরিবর্তনশীল শিখন-শেখানো কৌশল এবং শিক্ষাবিদদের ভূমিকা’ প্রতিপাদ্যে চুয়াডাঙ্গা মেহেরপুর ঝিনাইদহসহ সারাদেশে আন্তর্জাতিক সাক্ষরতা দিবস পালিত হয়েছে। সাক্ষরতা দিবস উপলক্ষে গতকাল মঙ্গলবার সকাল ১০টা থেকে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় দিনব্যাপী অনুষ্ঠানমালার আয়োজন করে। ঢাকায় উপানুষ্ঠানিক শিক্ষা ব্যুরো মিলনায়তনে অনুষ্ঠানের শুভ উদ্বোধন করেন প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী মো. জাকির হোসেন। তিনি বলেন, ‘করোনা ভাইরাসের কারণে দীর্ঘ ৫ মাস হলো সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে। শিক্ষার্থীরা অনিশ্চিত অবস্থায় গৃহবন্দী হয়ে ক্লাসে যাওয়ার অপেক্ষায় আছে। কবে স্কুল খুলবে ও তারা ক্লাসে যাবে সেই অপেক্ষা রয়েছে’। ‘বর্তমানে দেশে স্বাক্ষরতার হার শতকরা ৭৪ দশমিক ৭ ভাগে উন্নীত হয়েছে যা ২০০৫ সালে তৎকালীন বিএনপি-জামাত জোট সরকারের সময় ছিলো মাত্র ৫৩ দশমিক ৫ ভাগ।’ জাকির হোসেন বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সরকারের নিরলস প্রচেষ্টায় ‘সবার জন্য শিক্ষা’ এবং ‘সহস্রাব্দ উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রাসমূহ’ সাফল্যজনকভাবে অর্জনের জন্য ২০১৪ সালে ইউনেস্কো বাংলাদেশকে ‘শান্তি বৃক্ষ’ পদক প্রদান করে।’ প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান প্রাথমিক শিক্ষাকে যুগোপযোগী করার লক্ষ্যে ১৯৭৩ সালে ৩৬ হাজার ১৬৫টি প্রাথমিক বিদ্যালয়কে জাতীয়করণ এবং এক লাখ ৫৭ হাজার ৭২৪ জন শিক্ষককে সরকারিকরণের মাধ্যমে প্রাথমিক শিক্ষার অগ্রগতির সোপান রচনা করেন। এরই ধারাবাহিকতায় প্রাথমিক শিক্ষাকে আরও গতিশীল করার লক্ষ্যে ২০১৩ সালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২৬ হাজার ১৯৩টি বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়কে জাতীয়করণ করেন।’
চুয়াডাঙ্গায় আন্তর্জাতিক সাক্ষরতা দিবস পালন
স্টাফ রিপোর্টার: ‘কেভিড-১৯ সংকট সাক্ষরতা শিক্ষায় পরিবর্তনশীল শিখন-শেখানো কৌশল এবং শিক্ষাবিদদের ভূমিকা’ প্রতিপাদ্যে চুয়াডাঙ্গা মেহেরপুর ঝিনাইদহসহ সারাদেশে আন্তর্জাতিক সাক্ষরতা দিবস পালিত হয়েছে। সাক্ষরতা দিবস উপলক্ষে গতকাল মঙ্গলবার সকাল ১০টা থেকে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় দিনব্যাপী অনুষ্ঠানমালার আয়োজন করে। ঢাকায় উপানুষ্ঠানিক শিক্ষা ব্যুরো মিলনায়তনে অনুষ্ঠানের শুভ উদ্বোধন করেন প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী মো. জাকির হোসেন। ইউনেস্কো’র উদ্যোগে ১৯৬৬ সালের ৮ সেপ্টেম্বর প্রথমবারের মতো ‘আন্তর্জাতিক সাক্ষরতা দিবস’ পালন করা হয়। স্বাধীন বাংলাদেশের সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ১৯৭২ সালে প্রথমবারের মতো আন্তর্জাতিক সাক্ষরতা দিবস উদযাপনের উদ্যোগ গ্রহণ করেন। এরই ধারাবাহিকতায় সরকার প্রতিবছর আন্তর্জাতিক সাক্ষরতা দিবসটি যথাযোগ্য মর্যাদার সঙ্গে পালন করে আসছে বাংলাদেশ। মৌলিক সাক্ষরতা প্রকল্পে (৬৪ জেলা) আওতায় দেশের ৬৪ জেলায় নির্বাচিত ২৫০টি উপজেলার ১৫ থেকে ৪৫ বছর বয়সী ৪৫ লাখ নিরক্ষরকে সাক্ষরতা জ্ঞান প্রদান করা হচ্ছে। এরইমধ্যে এ প্রকল্পের মাধ্যমে প্রথম পর্যায়ে ১৩৪টি উপজেলায় শিখন কেন্দ্রের মাধ্যমে ২৩ লাখ ৫৯ হাজার ৪৪২ জন নিরক্ষরকে সাক্ষরতা প্রদান করা হয়েছে। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকীর বছর মুজিব শতবর্ষ উপলক্ষে আরও ২১ লাখ নিরক্ষরকে সাক্ষরতা দেয়ার কার্যক্রম চলমান আছে।
‘কেভিড-১৯ সংকট স্বাক্ষরতা শিক্ষায় পরিবর্তনশীল শিখন-শেখানো কৌশল এবং শিক্ষাবিদদের ভূমিকা’ এ প্রতিপাদ্য চুয়াডাঙ্গায় আন্তর্জাতিক সাক্ষরতা দিবস উপলক্ষে আলোচনাসভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে জেলা প্রশাসনের সম্মেলনকক্ষে এ সভার আয়োজন করা হয়। করোনাকালীন সময়ে বন্ধ রয়েছে সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। শিক্ষা ব্যবস্থার প্রতিকূলতা কাটিয়ে স্বাভাবিকভাবে শিক্ষা কার্যক্রম চলতে পারে সে ব্যবস্থা নিতে হবে। প্রতিটি মানুষের সাক্ষরতা জ্ঞান থাকা প্রয়োজন। আন্তর্জাতিক সাক্ষরতা দিবসের আলোচনাসভায় উপস্থিত ছিলেন জেলা প্রশাসক নজরুল ইসলাম সরকার, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মনিরা পারভিন, জেলা শিক্ষা অফিসার নিখিল রঞ্জন চক্রবর্তী, এনডিসি আমজাদ হোসেন প্রমুখ।
আলমডাঙ্গা ব্যুরো জানিয়েছে, চলমান বৈশি^ক ভাইরাস কোভিড-১৯ মহামারী পরিস্থিতির কারণে আলমডাঙ্গায় আর্ন্তজাতিক সাক্ষরতা দিবস উপলক্ষে ভার্চ্যুয়াল এ্যাপের সাহায্যে আলোচনাসভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে গতকাল মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১০টায় উপজেলা সভাকক্ষে কোভিড-১৯ সঙ্কট সাক্ষরতা শিক্ষায় পরিবর্তনশীল শিখন-শেখানো কৌশল ও শিক্ষাবিদদের ভূমিকা বিষয় এ সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ লিটন আলীর সভাপতিত্বে একযোগে জুম ক্লাউড এ্যাপসের মাধ্যমে নিজ নিজ অবস্থান থেকেই ভিডিও কলে সংযুক্ত হন আলমডাঙ্গা পৌর মেয়র ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি হাসান কাদির গনু, কালিদাসপুর ইউপি চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম, আইসহাস ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল মালেক, উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা হাসানুজ্জামান খান, আলমডাঙ্গা থানার অফিসার ইনচার্জ আলমগীর কবীর, আলমডাঙ্গা সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ (ভারপ্রাপ্ত) গোলাম সরোয়ার মিঠু, উপজেলা গণস্বাস্থ্য প্রকৌশলী আব্দুর রশিদ, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা এনামুল হক, প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার শামসুজ্জোহা, আলমডাঙ্গা পাইলট সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রবিউল ইসলাম খান, সহকারী শিক্ষা অফিসার আব্দুর রশিদ, শামিম সুলতান, মহিলা বিষয়ক কর্মকর্ত্ ামাখছুরা জান্নাতসহ উপজেলা প্রশাসনের বিভিন্নস্তরের কর্মকর্তা, সাংবাদিক, বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-শিক্ষার্থীগণ উপস্থিত ছিলেন।
মেহেরপুর অফিস জানিয়েছে, আন্তর্জাতিক সাক্ষরতা দিবস পালন উপলক্ষে মেহেরপুরে আলোচনাসভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার সকাল ১০টায় মেহেরপুর জেলা প্রশাসকের সম্মেলনকক্ষে জুম কনফারেন্সের মাধ্যমে এ আলোচনাসভা অনুষ্ঠিত হয়। মেহেরপুর জেলা প্রশাসন ও জেলা উপানুষ্ঠানিক শিক্ষা ব্যুরো’র উদ্যোগে অনুষ্ঠিত সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন জেলা প্রশাসক ড. মোহাম্মদ মুনসুর আলম খান। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মো. তৌফিকুর রহমান। কোভিট ১৯ সংকট সাক্ষরতা শিক্ষায় পরিবর্তনশীল শিখন শেখনের কৌশল এবং শিক্ষাবিদদের ভূমিকা শীর্ষক” সভায় বক্তব্য রাখেন মেহেরপুর সরকারি মহিলা কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ অধ্যাপক রফিকুল ইসলাম, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জামিরুল ইসলাম জামি, উপানুষ্ঠানিক শিক্ষা ব্যুরোর এডি কবির আহমদ মোল্লা, মেহেরপুর জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার ফজলে রহমান, মেহেরপুর সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মিজানুর রহমান, পিটিআই সুপার মাহফুজুল ইসলাম, সদর উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার আনোয়াার হোসেন, জেলা আওয়াামী লীগের সহসভাপতি আব্দুল হালিম প্রমুখ।
মুজিবনগর প্রতিনিধি জানিয়েছেন, ‘সাক্ষরতা শিক্ষায় পরিবর্তনশীল শিখন-শেখানো কৌশল এবং শিক্ষাবিদদের ভূমিকা’ এ সেøাগানে মুজিবনগর উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে আন্তর্জাতিক সাক্ষরতা দিবস উপলক্ষে র‌্যালি ও আলোচনাসভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার ১০টায় উপজেলা চত্বওে থেকে উপজেলা নির্বাহী অফিসার সুজন সরকারের নেতৃত্বে র‌্যালি শেষে উপজেলা হলরুমে এক আলোচনাসভার আয়োজন করা হয়। সভাপতিত্ব করেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার সুজন সরকার। এসময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা কৃষি অফিসার আনিসুজ্জামান খাঁন, প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার বেলায়েত হোসেন, দারিদ্র বিমোচন অফিসার প্রেসেনজি কুমার ঘোষ, আমার বাড়ী আমার খামার কর্মকর্তা আব্দুস সাত্তার, তথ্য আপা খন্দকার তানিয়া আক্তার প্রমুখ। র‌্যালি ও আলোচনা সভায় উপজেলার বিভিন্ন অফিসের কর্মকর্তা ও সাংবাদিকবৃন্দ অংর্শ গ্রহণ করেন।
হরিণাকু-ু প্রতিনিধি জানিয়েছেন, ঝিনাইদহ হরিণাকুন্ডু উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে আন্তর্জাতিক সাক্ষরতা দিবস ২০২০ উদযাপনে র‌্যালি ও আলোচনাসভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। কোভিড-১৯ সংকট সাক্ষরতা শিখায় পরিবর্তনশীল শিখন-শেখানো এবং শিক্ষাবিদদের ভূমিকা” এ প্রতিপাদ্য বিষয়কে সামনে রেখে র‌্যালি বের করা হয়। সভাপতিত্ব করেন উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) রাজিয়া আক্তার চৌধুরী। প্রধান অতিথি ছিলেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সৈয়দা নাফিস সুলতানা। বিশেষ অতিথি ছিলেন মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার ফজলুল হক, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা জামাল হোসেন, সমাজসেবা কর্মকর্তা মোহাম্মদ হোসেন খান, সহকারী প্রোগ্রামার ওয়াসিকুর রহমান, মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা শিলা বেগমসহ উপজেলা প্রশাসনের সকল কর্মকর্তা ও কর্মচারীবৃন্দ। এছাড়াও একই সময়ে জেলা প্রশাসনের আয়োজনে উপজেলা প্রশাসনের বাস্তবায়নে জাতির জনক শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবর্ষ উদযাপনে অনলাইন বিতর্ক প্রতিযোগিতার মনিটরিং করেন ইউএনও সৈয়দা নাফিস সুলতানা ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) রাজিয়া আক্তার চৌধুরী। দু’দিনব্যাপী বিতর্ক প্রতিযোগিতার প্রথম দিন মঙ্গলবারে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা অনলাইনের মাধ্যমে এ প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করে।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More