জাতীয়পার্টির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান দাবি করে বিদিশা খুঁজছেন তরুণ নেতৃত্ব

স্টাফ রিপোর্টার: ছাদ খোলা গাড়িতে হঠাৎ করেই রাজধানীর রাস্তায় বের হলেন জাতীয়পার্টির (জাপা) সাবেক চেয়ারম্যান ও প্রয়াত রাষ্ট্রপতি এইচএম এরশাদের সাবেক স্ত্রী বিদিশা এরশাদ। পেছনে কয়েকশ মোটরসাইকেল ও গাড়ির বহর। গাড়িতে দাঁড়িয়ে পথে পথে হাত নাড়েন, ভি চিহ্ন দেখান, শেষে গুলশান-১ নম্বর পুলিশ প্লাজার সামনে গিয়ে বক্তব্যও দেন বিদিশা। বিদিশা এরশাদ বলেন, ‘আমি একদল তরুণ নেতৃত্ব খুঁজছি। যারা আমার সঙ্গে দেশের জন্য, মেহনতি মানুষের হয়ে সংসদে কথা বলবে।’ হঠাৎ এই মোটর শোভাযাত্রার কারণ সম্পর্কে বিদিশা এরশাদ সাংবাদিকদের জানান, ২০ মার্চ জাতীয় পার্টির (জাপা) প্রতিষ্ঠাতা হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের ৯৩তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে এই শোভাযাত্রা। গতকাল শনিবার বেলা সোয়া ১১টার দিকে বারিধারার দূতাবাস রোডের প্রেসিডেন্ট পার্কের বাসা থেকে মোটরবহরসহ একটি ছাদ খোলা খয়েরি রঙের গাড়ি নিয়ে বের হন বিদিশা। এরপর গুলশান দুই নম্বর, কামাল আতাতুর্ক অ্যাভিনিউ, বনানী চেয়ারম্যান বাড়ি, মহাখালী, তেজগাঁও লিংক রোড হয়ে হাতিরঝিলে একবার চক্কর দেন। প্রায় দুই ঘণ্টা পর পুলিশ প্লাজার সামনে গিয়ে বিদিশা এরশাদ বলেন, ‘এই দিনে আমি প্রয়াত এরশাদ সাহেবের জন্য দোয়া চাচ্ছি। ওনার আমল ছিলো স্বর্ণ যুগ। ওনার সময়ে যে চালের দাম ছিলো কেজি ২০ টাকার নিচে, এখন সে চাল ৫০ থেকে ৬০ টাকা। সামনে রোজা। মানুষ খাদ্যদ্রব্য নিয়ে বিপদে আছে। এখনই সরকার দ্রব্যমূল্যের লাগাম টেনে ধরতে না পারলে সরকারের সব ভালো কাজ মøান হয়ে যাবে।’

বিদিশা নিজেকে জাতীয় পার্টির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান দাবি করেন। তিনি বলেন, তার নেতৃত্বে জাতীয়পার্টি পুনর্গঠিত হচ্ছে। ছেলে এরিক এরশাদও দলে যুক্ত হয়েছেন। তবে মোটর শোভাযাত্রায় এরিক ছিলেন না। শোভাযাত্রায় বিদিশার সঙ্গে তার গঠিত কমিটির কো-চেয়ারম্যান, উপদেষ্টাসহ বিভিন্ন পর্যায়ের নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More