দুই মিনিটের মধ্যেই গুলি করা হয় সিনহাকে

সাবেক ওসি প্রদীপসহ তিন আসামিকে নিয়ে ঘটনাস্থলে র‌্যাবের তদন্ত দল
স্টাফ রিপোর্টার: মেজর (অব.) সিনহাকে গুলি করে হত্যার বিবরণ পেতে রিমান্ডে থাকা প্রধান তিন আসামিকে নিয়ে ঘটনাস্থল মেরিন ড্রাইভের বাহারছড়ার শামলাপুর চেকপোস্ট পরিদর্শন করেছে র‌্যাবের তদন্ত দল। তিন আসামি হলেন সাবেক ওসি প্রদীপ কুমার দাশ, ইন্সপেক্টর লিয়াকত আলী ও এসআই নন্দদুলাল রক্ষিত। গতকাল তদন্তকারী কর্মকর্তা (আইও) র‌্যাব-১৫ এর সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার মোহাম্মদ খায়রুল ইসলাম তাদের নিয়ে ঘটনাস্থলে যান। র‌্যাবের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (অপারেশন) তোফায়েল মোস্তফা সারওয়ার বলেছেন, ‘আসামিদের সঙ্গে কথা বলে এটা নিশ্চিত যে, মেজর (অব.) সিনহাকে গুলি করার ঘটনা ২ মিনিটের মধ্যেই ঘটে। সেই ২ মিনিটের মধ্যে কী এমন ঘটেছিলো, কেন তাকে গুলি করা হলো সে প্রশ্নের উত্তর খোঁজা হচ্ছে। এই ২ মিনিটে গাড়ি তল্লাশি করা, পরিচয় জানতে চাওয়া, কোন অবস্থার পরিপ্রেক্ষিতে গুলিটা হয়েছিলো তা বের করতে প্রতিটা সেকেন্ডকে বিশ্লেষণ করছি আমরা। এটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ।’ অভিযুক্তদের সঙ্গে ঘটনাস্থল পরিদর্শনে গিয়ে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন তিনি। রিমান্ডে জিজ্ঞাসাবাদে পাওয়া আসামিদের বক্তব্যের সঙ্গে আলামতগুলো মিলিয়ে দেখতে তাদের ঘটনাস্থলে নেয়া হয়।
তোফায়েল মোস্তফা সারওয়ার আরও বলেন, ‘১-২ মিনিটে ফায়ারিং পর্যন্ত চলে যাওয়ার ঘটনা কোন পরিপ্রেক্ষিতে হয়েছে তা বুঝতে চেকপোস্ট থেকে চেকিং পয়েন্ট, ব্যারিকেড থেকে গাড়ির দূরত্ব, প্রত্যক্ষদর্শীদের দূরত্ব সবকিছু পরিমাপ করা হয়েছে। এর মাধ্যমে আইও তার একটি কনসেপ্ট ডেভলাপ করবে। যেহেতু এটি সেনসিটিভ বিষয় তাই হুট করে কিছু বলা যাবে না। আমরা ডিটেইলসে যাচ্ছি, কেন ফায়ারিং হয়েছে তা তুলে আনার চেষ্টা করছি। আসামি লিয়াকতের কথা যদি সত্যি হয় তবে, কী ঘটনায় সিনহা পিস্তল তাক করলেন এবং লিয়াকত গুলি করলেন সব বিষয় বের করার চেষ্টা করছি। তবে অনেক কথা তদন্তের স্বার্থে বলা সম্ভব হচ্ছে না।’
র‌্যাবের লিগ্যাল অ্যান্ড মিডিয়া উইংয়ের পরিচালক লে. কর্নেল আশিক বিল্লাহের আগে সাংবাদিকদের বলেন, সিনহা হত্যা মামলায় রিমান্ডে থাকা আসামিরা চাঞ্চল্যকর ও গুরুত্বপূর্ণ তথ্য দিয়েছেন। তাই অত্যন্ত সতকর্তা ও পেশাদারিত্বের সঙ্গে তদন্ত কার্যক্রম এগিয়ে নেয়া হচ্ছে। এরই মধ্যে এ মামলায় ১৩ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। আশিক বিল্লাহ বলেন, সিনহার বোনের মামলার ৯ আসামির মধ্যে সাত জন গ্রেফতার হয়েছে। বাকি দুজনের পরিচয় শনাক্তের জন্য পুলিশ সুপার কার্যালয়ে আবেদন করেছেন তদন্ত কর্মকর্তা।
টেকনাফ থানা থেকে সিসিটিভি ফুটেজ গায়েব প্রসঙ্গে র‌্যাবের মিডিয়াপ্রধান বলেন, অঘটন ঘটলে যে কেউ এমন ঘটনা ঘটায়। থানার সিসিটিভি ফুটেজ গায়েবও এমন ঘটনা। সিসিটিভি ফুটেজ পাওয়ার জন্য আমরা আদালতের কাছে আবেদন করেছি। আশা করছি, তা-ও পেয়ে যাবো।
হত্যাকা-ের সময় মেজর (অব.) সিনহার ব্যবহৃত ব্যক্তিগত গাড়িটি র‌্যাবের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। গাড়ি থেকে জব্দ অন্য আলামতও র‌্যাবকে দেয়া হয়েছে। পুলিশ সুপারের অফিস থেকে বুধবার রাতে র‌্যাবের কাছে গাড়ি ও এসব মালপত্র হস্তান্তর হয়েছে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্র জানিয়েছে। এছাড়া ল্যাপটপ, নগদ টাকাসহ ২৯ সরঞ্জামও র‌্যাবের কাছে হস্তান্তর করেছে রামু থানা পুলিশ। মেজর সিনহা হত্যাকা-ের পর রামু উপজেলার হিমছড়ির নীলিমা রিসোর্ট থেকে এসব উপকরণ উদ্ধার করা হয়।
এর আগে, ১৯ আগস্ট র‌্যাবের এক আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে এসংক্রান্ত আদেশ দেন সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট তামান্না ফারাহর আদালত। এরপর বৃহস্পতিবার পুলিশের পক্ষ থেকে বিচারিক হাকিম হেলাল উদ্দিনের আদালতে আবেদন করা হয়েছিলো জব্দ করা ইলেকট্রনিকস ডিভাইসগুলো তাদের হেফাজতে রাখতে। কিন্তু বিচারক পুলিশের আবেদন খারিজ করে বিচারক তামান্না ফারাহর আদেশটি বহাল রাখেন। সেই আদেশবলে ডিভাইসগুলো রাতেই গ্রহণ করতে যায় তদন্তকারী কর্মকর্তারা। র‌্যাব-১৫ কক্সবাজারের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার বিমান চন্দ্র কর্মকারের নেতৃত্বে র‌্যাবের একটি প্রতিনিধি দল বৃহস্পতিবার রাত পৌনে ১২টায় রামু থানা থেকে এসব মালামাল গ্রহণ করেন। এসময় রামু থানার ওসি আবুল খায়ের উপস্থিত ছিলেন।
র‌্যাব-১৫ কক্সবাজারের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার বিমান চন্দ্র কর্মকার জানিয়েছেন, ল্যাপটপ, মোবাইল ফোন, হার্ডডিস্ক, ২ লাখ টাকাসহ ২৯ প্রকার মালামাল আদালতের আদেশের পরিপ্রেক্ষিতে র‌্যাবের কাছে হস্তান্তর হয়েছে। এসব ডিভাইস ব্যবহূত হয়েছে কি-না তা পরে তদন্তসাপেক্ষে জানানো হবে। এ নিয়ে কোনো তথ্য গোপন রাখা হবে না। সিনহার মৃত্যুর ঘটনায় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় গঠিত তদন্ত কমিটি রিপোর্ট পেশের জন্য এক সপ্তাহ সময় পেলো। ২৩ আগস্ট প্রতিবেদন দেয়ার কথা থাকলেও এখনো সাবেক ওসি প্রদীপকে জিজ্ঞাসাবাদ করতে পারেননি তারা। তাই স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে আরো সাত দিন সময় চেয়েছে কমিটি। মন্ত্রণালয় এ আবেদন মঞ্জুর করেছে। তদন্ত কমিটির আহ্বায়ক চট্টগ্রামের বিভাগীয় অতিরিক্ত কমিশনার মিজানুর রহমান বলেন, আসামিদের মধ্যে গুরুত্বপূর্ণ একজন ওসি প্রদীপ কুমারকে এখনো জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়নি। এ জন্য অন্তত আরও এক সপ্তাহ সময় প্রয়োজন।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More