দুই সপ্তাহের জন্য ভারতের সঙ্গে স্থলসীমান্ত বন্ধ

স্টাফ রিপোর্টার: ভারত জুড়ে করোনা ভাইরাসের (কোভিড-১৯) সংক্রমণ হুহু করে বাড়তে থাকায় দেশটির সঙ্গে স্থল সীমান্ত বন্ধ রাখার ঘোষণা দিয়েছে বাংলাদেশ। আজ সোমবার থেকে ১৪ দিন স্থল পথে মানুষের চলাচল বন্ধ থাকবে বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন। গতকাল রোববার মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের একটি সভায় এই সিদ্ধান্ত হয়েছে।
পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোমেন সাংবাদিকদের বলেন, ভারতে করোনা সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় এ সিদ্ধান্ত হয়েছে। আমরা চাইছি স্থলবন্দর ও সীমান্ত থেকে মানুষের যাতায়াত দুই সপ্তাহ বন্ধ রাখার। এই সময়ে মানুষের যাতায়াত বন্ধ থাকলেও পণ্যবাহী যানবাহন চলবে।
সূত্র জানায়, আজ সোমবার সকাল ৬টা থেকে ভারতের সঙ্গে সব সীমান্ত বন্ধ ঘোষণা করেছে বাংলাদেশ। এই সিদ্ধান্ত আগামী ১৪ দিন বলবত থাকবে। এই সময়ের মধ্যে কেউই দেশে ঢুকতে বা বের হতে পারবেন না। তবে সীমান্ত দিয়ে বাণিজ্য ব্যবস্থা বলবত থাকবে। এছাড়া যেসব বাংলাদেশির ভিসার মেয়াদ শেষ হয়ে যাচ্ছে, তাদের ক্ষেত্রে কোভিড টেস্ট ও কলকাতা মিশনের ছাড়পত্র সাপেক্ষে বাংলাদেশে প্রবেশের সুযোগ থাকবে। সঙ্গে অবশ্যই কোভিড আক্রান্ত নন এমন সার্টিফিকেটও থাকতে হবে। ওইসব বাংলাদেশির দেশে প্রবেশের পর বাধ্যতামূলক ১৪ দিন প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে।
চিকিৎসার জন্য যারা নিয়মিত ভারতে যাতায়াত করেন তাদের ক্ষেত্রে কী হবে? জানতে চাইলে পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোমেন বলেন, যারা ভারতে যেতে চান তারা ভারত সরকারের শর্ত মেনে সেখানে যাবেন। নিশ্চয় ঢাকার ভারতীয় দূতাবাস এ ব্যাপারে তাদের অবস্থান পরিষ্কার করবে। কেউ যেতে চাইলে নির্দিষ্ট বর্ডার দিয়েই যেতে হবে।
স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল জানান, মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে এরই মধ্যে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। সেই নির্দেশনার আলোকে ভারতের সঙ্গে সব সীমান্ত বন্ধ করে দেয়া হচ্ছে সোমবার থেকেই। যারা এর মধ্যে দেশে আসতে চান তাদের যশোরের বেনাপোল ও আখাউড়া সীমান্ত দিয়ে আসতে হবে। দেশে এলেও সীমান্ত এলাকায় তাদের ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে। এমনকি আজও (রবিবার) যারা দেশে ঢুকবেন তাদেরও ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে বলে জানান তিনি।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More