দেশব্যাপী এক কোটি বৃক্ষরোপণ কর্মসূচির উদ্বোধন- দেশে বনভূমির পরিমাণ ২৫ শতাংশে উন্নীত করার আশাবাদ

স্টাফ রিপোর্টার: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মুজিববর্ষ উদযাপন উপলক্ষে সারাদেশে এক কোটি গাছের চারা রোপণ কর্মসূচির উদ্বোধনকালে দেশে মোট বনভূমির পরিমাণ ২৫ শতাংশে উন্নীত করায় তার সরকারের লক্ষ্য পুনর্ব্যক্ত করেছেন। গতকাল বৃহস্পতিবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গণভবনে এ কর্মসূচির উদ্বোধন করেন। এসময় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, করোনা ভাইরাস আমাদের সকল অগ্রযাত্রা সাময়িকভাবে থামিয়ে দিয়েছে। আমি আশা করি জনগণ এ থেকে বেরোতে পারবে, আবার আমরা এগিয়ে যাবো। এ সমস্যা শুধু বাংলাদেশের না, বিশ্বব্যাপী। কাজেই সবাই যেনো এ সমস্যা কাটিয়ে তুলতে পারে। তিনি বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে দেশব্যাপী এক কোটি বৃক্ষের চারা রোপণের এ কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমাদের সারা বাংলাদেশে বনায়নে যেন সবুজ বেষ্টনী সৃষ্টি হয় সেদিকে লক্ষ্য রেখে এ কর্মসূচি নেয়া হয়েছে। তার স্মরণে আমরা এ পদক্ষেপ নিয়েছি এবং আমরা এ পদক্ষেপ প্রতিবছরই নিচ্ছি। তিনি বলেন, পরিবেশ সংরক্ষণের জন্য বাংলাদেশে বনায়ন সৃষ্টি। আমি যখন ৯৬ সালে সরকার গঠন করি তখন মাত্র সাত ভাগ বনায়ন ছিলো। আজ প্রায় ১৭ ভাগের উপরে আমরা করতে পেরেছি। আমাদের লক্ষ্য সারা বাংলাদেশে ২৫ ভাগ বনায়ন করবো। সে লক্ষ্য নিয়ে আমরা আমাদের কাজ করে যাচ্ছি।
চুয়াডাঙ্গায় যুব উন্নয়ন অধিদফতর চত্বরে ফুল, ওষধি ও বনজ গাছের চারা রোপণের মধ্যদিয়ে বৃক্ষরোপণ অভিযান শুরু হয়েছে। জেলা প্রশাসক মো. নজরুল ইসলাম সরকার গতকাল বৃহস্পতিবার জামরুল গাছের চারা রোপণের মধ্যদিয়ে এ কর্মসূচির উদ্বোধন করেন। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে সামাজিক বনায়ন জোন চুয়াডাঙ্গা এ বৃক্ষরোপণ অভিযানের আয়োজন করে। সামাজিক দূরত্ব মেনে উদ্বোধন অনুষ্ঠানে উপস্থিত থেকে চুয়াডাঙ্গা সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ মো. কামরুজ্জামান, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর) কনক কুমার দাস ও যুব উন্নয়ন অধিদফতর চুয়াডাঙ্গার উপপরিচালক মাসুম আহমেদ, সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মুহাম্মদ সাদিকুর রহমান, সদর উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা জাহাঙ্গীর হোসেন ও চুয়াডাঙ্গা সরকারি কলেজ শিক্ষক পরিষদের সাধারণ সম্পাদক শফিকুল ইসলামসহ অতিথিবৃন্দ গাছের চারা রোপণ করেন। সামাজিক বনায়ন জোন চুয়াডাঙ্গার বন কর্মকর্তা জাকির হোসেন জানান, জেলায় চলতি মরসুমে প্রতিটি উপজেলায় বিভিন্ন প্রজাতির ২০ হাজার ৩২৫টি করে জেলায় মোট ৮১ হাজার ৩শ’ চারা বিতরণ ও রোপণের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে।
জীবননগর ব্যুরো জানিয়েছে, জীবননগর উপজেলায়ও আনুষ্ঠানিকভাবে বৃক্ষরোপণ কর্মসূচির উদ্বোধন করা হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে উপজেলা বন বিভাগ চত্বরে একটি ফলজ গাছের চারা লাগানোর মাধ্যমে এ কর্মসূচির উদ্বোধন করেন চুয়াডাঙ্গা-২ আসনের সংসদ সদস্য হাজি মো. আলী আজগার টগর। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সংক্ষিপ্ত এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি বলেন, প্রকৃতি তার ভারসাম্য হারিয়ে ফেলছে। যার কারণে আবহাওয়া পরিবর্তনসহ নানা প্রাকৃতিক দুর্যোগ হচ্ছে বিশ্বে। এ কারণে জননেত্রী শেখ হাসিনা বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকীতে দেশব্যাপী এক কোটি গাছের চারা রোপণের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছেন। আমাদেরকেও গাছ লাগিয়ে তার লালিত স্বপ্ন বাস্তবায়ন করতে হবে। তিনি বলেন, বসতবাড়ি ও পতিত জমিতে বিভিন্ন প্রকার গাছ লাগান। তিনি সরকারের এ মহতি উদ্যোগকে বাস্তবায়নের সামাজিক বনায়ন কর্মসূচি বেগবান করার আহ্বান জানান। জীবননগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এসএম মুনিম লিংকনের সভাপতিত্বে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক উপধ্যক্ষ নজরুল ইসলাম, জীবননগর থানা অফিসার ইনচার্জ সাইফুল ইসলাম, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুস সালাম ইশা, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান আয়েশা সুলতানা লাকী, জীবননগর বন বিভাগের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শরিফুল ইসলাম প্রমুখ।
উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে চুয়াডাঙ্গা-২ আসনের সংসদ সদস্য হাজি আলী আজগার টগর এমপি বন বিভাগ চত্বরে একটি কাঁঠাল গাছের চারা রোপণের মাধ্যমে অনুষ্ঠানের উদ্বোধন ঘোষণা করেন। এছাড়াও তিনি একটি বাড়ি একটি খামার প্রকল্পের পরিবারের সদস্যদের মাঝে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে গাছের চারা বিতরণ করেন।
জীবননগর বনবিভাগ অফিসসূত্রে জানা গেছে, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশত বার্ষিকী উপলক্ষে জীবননগর উপজেলায় ২০ হাজার ৩২৫টি বিভিন্ন প্রজাতির ফলজ, বনজ ও ওষুধি চারা বিতরণ করা হবে। এরমধ্যে জীবননগর উপজেলা একটি বাড়ি একটি খামার প্রকল্পের ৭ হাজার পরিবারের সদস্যদের মধ্যে ১৪ হাজার, কলেজ এবং মাধ্যমিক বিদ্যালয় ও মাদরাসায় ৩ হাজার, উপজেলার সকল প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ৩শ’, উপজেলার প্রতিটি কবরস্থানে ৩ হাজার ও জীবননগর থানায় ২৫টি গাছের চারা বিতরণ করা হবে।
আলমডাঙ্গা ব্যুরো জানিয়েছে, আলমডাঙ্গায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে দেশব্যাপী এক কোটি বৃক্ষের চারা রোপণ কর্মসূচি উদ্বোধন করা হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টার দিকে আলমডাঙ্গা উপজেলা প্রশাসন এবং সামাজিক বনায়ন ও নার্সারি কেন্দ্রের উদ্যোগে বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি উদ্বোধন করা হয়। বৃক্ষরোপণ উদ্বোধন করেন আলমডাঙ্গা উপজেলা চেয়ারম্যান আইয়ুব হোসেন ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. লিটন আলী। এসময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান অ্যাড. সালমুন আহমেদ ডন, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান কাজী মারজাহান নিতু, উপজেলা বনবিভাগের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শাকিল পারভেজ, জেলা পরিষদের সদস্য রকিবুল ইসলাম, যুবলীগ নেতা মিজানুর রহমান মিজান, মোজাম্মেল হক, অফিস স্টাফ আব্দুল মান্নান।
দামুড়হুদা ব্যুরো জানিয়েছে, দামুড়হুদা উপজেলা প্রশাসন ও উপজেলা বনবিভাগের উদ্যোগে বৃক্ষরোপণসহ গাছের চারা বিতরণ করা হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে প্রধান অতিথি উপজেলা পরিষদস্থ উপজেলা ভূমি অফিস চত্বরে গাছের চারা রোপণের মধ্যদিয়ে এ কর্মসূচির উদ্বোধন করেন দামুড়হুদা উপজেলা নির্বাহী অফিসার দিলারা রহমান। এছাড়া তিনি উপজেলার জনসাধারণের মাঝে ফলজ, বনজ ও ওষুধিসহ বিভিন্ন প্রজাতির ২০ হাজারেরও অধিক চারা বিতরণ করেন। এসময় উপস্থিত ছিলেন দামুড়হুদা উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. মহিউদ্দিন, উপজেলা বনকর্মকর্তা রকিব উদ্দীন, উপজেলা ভূমি অফিসের নাজির মহিদুল ইসলাম, সার্ভেয়ার মাজেদুল ইসলঅম, কানুনগো মিলাদ উদ্দীন মিয়া, বনবিভাগের পিএম হুমায়ুন আহম্মেদ প্রমুখ।
মেহেরপুর অফিস জানিয়েছে, মেহেরপুর জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে জেলা প্রশাসন কার্যালয় চত্বরে বৃক্ষরোপণ কর্মসূচির উদ্বোধন করা হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরের দিকে জেলা প্রশাসক ড. মোহাম্মদ মনসুর আলম খাঁন চারা রোপণের মধ্যদিয়ে বৃক্ষরোপণ কর্মসূচির উদ্বোধন করেন। এসময় উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মো. তৌফিকুর রহমান, স্থানীয় সরকারের উপপরিচালক মৃধা মো. মুজাহিদুল ইসলাম, সহকারী কমিশনার নাহিদ হোসেন, সহকারী বন কর্মকর্তা জাফরুল্লাহ, জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি আব্দুল হালিম, যুগ্ম সম্পাদক অ্যাড. এসএম ইব্রাহিম শাহীন, অধ্যাপক (অব.) হাসানুজ্জামান মালেক প্রমুখ। এদিকে জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন এমপি’র নির্দেশে এদিন দুপুরে মেহেরপুর সরকারি কলেজ ছাত্রলীগের উদ্যোগে জনপ্রশাসন মন্ত্রীর মেহেরপুর বাসভবনের সামনে গাছের চারা বিতরণ করা হয়েছে। মেহেরপুর সরকারি কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি আদিব হোসেন আসিফ, সাধারণ সম্পাদক কুতুবউদ্দিন আহমেদ উপস্থিত থেকে এ চারা বিতরণ করেন। এসময় উপস্থিত ছিলেন জেলা ছাত্রলীগের সহসম্পাদক শামীম রেজা, উপ-সম্পাদক এজাজ আহমেদ, দফতর সম্পাদক ইব্রাহিম হোসেন প্রমুখ।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More