দেশের বিভিন্ন স্থানে সড়কে প্রাণ গেলো আরও ১৬ জনের

স্টাফ রিপোর্টার: দেশের বিভিন্ন স্থানে পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় ১৬ জন নিহত হয়েছেন। তার মধ্যে গাজীপুরের শ্রীপুরে ট্রেনের সঙ্গে গার্মেন্টসের শ্রমিকবাহী একটি বাসের সংঘর্ষে বাসচালকসহ ৫ জন নিহত হয়েছেন। এতে আহত হয়েছেন অন্তত ১৫ জন। এ ঘটনায় তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। অন্যদিকে গাজীপুরের কোনাবাড়ি ও বাসন উপজেলায় পৃথক দুর্ঘটনায় আরও তিনজন নিহত হয়েছেন। এছাড়া কুমিল্লার দেবিদ্বারে প্রাইভেটকার নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে খাদে পড়ে স্বামী-স্ত্রী ও শ্যালীকা, টাঙ্গাইলের কালিহাতীতে যাত্রীবাহী বাস ও ট্রাকের সংঘর্ষে দুই চালক, দিনাজপুরের বিরামপুরে বাসের ধাক্কায় এক ব্যাংক কর্মকর্তা, বরিশালে যাত্রীবাহী বাস ও থ্রি-হুইলারের সংঘর্ষে এক যাত্রী এবং মুন্সীগঞ্জে পিকআপের ধাক্কায় অটোরিক্সার এক যাত্রী নিহত হয়েছেন। গাজীপুরের শ্রীপুরে ট্রেনের সঙ্গে গার্মেন্টসের শ্রমিকবাহী একটি বাসের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে বাসের চালকসহ ৫ জন নিহত ও অন্তত ১৫ জন আহত হয়েছেন। রবিবার ঢাকা-ময়মনসিংহ রেল সড়কের শ্রীপুরের মাইজপাড়া এলাকার লেভেল ক্রসিংয়ে এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহতদের মধ্যে তিনজন ট্রেনের ইঞ্জিনের সামনে বসা ছিলেন। এদিকে দুর্ঘটনা তদন্তে গাজীপুর জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। নিহতদের মধ্যে তিনজনের পরিচয় পাওয়া গেছে। তারা হলেন গাজীপুরের শ্রীপুর থানার বালিয়াপাড়া এলাকার জুনায়েদের স্ত্রী গার্মেন্টসকর্মী প্রিয়া বেগম (২৬), ময়মনসিংহের ত্রিশাল থানার চর মাধাখালি (নতুনচর) এলাকার মৃত শামাল উদ্দিনের ছেলে ইলিয়াস উদ্দিন (৩৫) ও বাসের চালক তাজুল ইসলাম (৩০)। শ্রীপুর রেলওয়ে স্টেশনের মাস্টার হারুন অর রশিদ ও স্থানীয়রা জানান, রবিবার সকালে শ্রীপুরের তেলিহাটি ইউনিয়নের টেপিরবাড়ী এলাকার জামান ফ্যাশন লিমিটেড নামের পোশাক কারখানার একটি বাস শ্রমিক নিয়ে কারখানায় যাচ্ছিল। সকাল সাড়ে ৭টার দিকে বাসটি শ্রীপুর উপজেলার কাওরাইদ স্টেশন ও সাতখামাইর স্টেশনের মাঝামাঝি মাইজপাড়া এলাকার লেভেল ক্রসিং দিয়ে সিগন্যালবার নামানো না থাকায় ঢাকা-ময়মনসিংহ রেললাইন অতিক্রম করছিল। এ সময় ঢাকা থেকে নেত্রকোনার জাজিরাগামী বলাকা কমিউটার এক্সপ্রেস ট্রেনের সঙ্গে ওই বাসের সংঘর্ষ হয়। ট্রেনের ধাক্কায় বাসটি ছিটকে রেললাইনের পাশে উল্টে পড়ে দুমড়ে মুচড়ে যায়। ময়মনসিংহের গফরগাঁও রেলওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির এসআই রফিকুল ইসলাম জানান, বাস ও ট্রেনের সংঘর্ষে ঘটনাস্থলে ২জন এবং হাসপাতালে নেয়ার পথে আরও ৩ জনসহ মোট ৫ জন নিহত ও ১৫ জন আহত হন। আহতদের বেশিরভাগই বাসযাত্রী এবং তারা ওই কারখানার কর্মী। স্থানীয়রা হতাহতদের উদ্ধার করে বিভিন্ন হাসপাতাল ও ক্লিনিকে প্রেরণ করে। গুরুতর আহত ৬জনকে শ্রীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স হতে ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়। দুর্ঘটনায় নিহত দুইজনের লাশ স্বজনরা ঘটনার পরপরই নিয়ে গেছে। দুর্ঘটনার সময় রেল ক্রসিংয়ের সিগন্যাল বার নামানো হয়নি এবং সেখানে কোন গেটম্যান ছিল না। শ্রীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা নেয়া আহতরা হলেন- নিলুফা (৪১), জাহিদ (২৪), আরমান (১৭), নাঈম (১৯), পারভেজ (৩৪), মাসুম (১৮), ফারজানা (২০), বেবী (৪০), রেশমী (৩০), বিল্লাল (২০), হালিমা (২৪), মাহফুজ (২৫), শিপন (১৭), হাবিবুল্লাহ (১৬), সুলেমা (১৯)। এদিকে দুর্ঘটনা তদন্তের জন্য গাজীপুরের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট অঞ্জন কুমার সরকারকে আহ্বায়ক করে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে তিন সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। কমিটিকে আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে প্রতিবেদন দাখিল করতে বলা হয়েছে। কমিটির অন্য দু’সদস্য হলেন- শ্রীপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তরিকুল ইসলাম এবং শ্রীপুর থানার ওসি মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান। এছাড়া জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে নিহতদের প্রত্যেকের পরিবারকে ২০ হাজার টাকা এবং আহতদের চিকিৎসার জন্য ১০ হাজার টাকা করে সহায়তা দেয়া হয়েছে।
অন্যদিকে গাজীপুরের কোনাবাড়ি ও বাসন উপজেলায় ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কে পৃথক দুটি সড়ক দুর্ঘটনায় তিনজন নিহত হয়েছেন। রবিবার বিকেলে কোনাবাড়ির কড্ডা ব্রিজ এলাকায় ট্রাকের ধাক্কায় মোটরসাইকেল আরোহী দুই তরুণ এবং বাসন থানাধীন নাওজোর এলাকায় পিকআপের ধাক্কায় এক নারী নিহত হন। নিহতরা হলেন গাজীপুরের কালিয়াকৈর উপজেলার জাঙ্গালিয়াপাড়া এলাকার সুমন আলীর ছেলে মাসুদ হোসেন (২০), একই এলাকার আব্দুস সাত্তারের ছেলে রুহুল হোসেন (২২) এবং মহানগরীর বাসন থানাধীন ইটাহাটা এলাকার সোলায়মান মিয়ার স্ত্রী হাজেরা বেগম (৫৫)। কুমিল্লা : দেবিদ্বার উপজেলার সাহারপাড় আজহার মেম্বারের বাড়ির সামনে রবিবার সকাল সাড়ে ৭টায় প্রাইভেটকার নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে খাদে পড়ে স্বামী-স্ত্রীসহ তিন জন নিহত হয়েছেন। নিহতরা হলেন, ফেনী জেলার ভূমি সহকারী কর্মকর্তা গিয়াস উদ্দিন মাহমুদ ফরাজী (৫২), তার স্ত্রী-জাহানারা আক্তার (৪৮) এবং শ্যালিকা সালমা আক্তার নাজমা (৪৫)। টাঙ্গাইল : কালিহাতী উপজেলার সল্লা এলাকায় বঙ্গবন্ধু সেতুর পূর্ব প্রান্তে রবিবার সকালে যাত্রীবাহী বাস ও ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষে দুই চালক নিহত হয়েছেন। এতে গুরুতর আহত হয়েছেন বাসের অন্তত ১০ যাত্রী। নিহতরা হলেন হানিফ বাসের চালক ঢাকার আমিনবাজারের আব্দুল আলীর ছেলে মিকাইল (৩৫) ও ট্রাকচালক ঠাকুরগাঁও জেলার হরিনারায়ণপুর থানার মুক্তার মেলা গ্রামের আফজাল হোসেনের ছেলে মানিক (২৫)। বরিশাল : ঢাকা-বরিশাল মহাসড়কের সদর উপজেলাধীন ছয়মাইল নামক এলাকায় রবিবার দুপুর পৌনে দুইটার দিকে যাত্রীবাহী বাস ও থ্রি-হুইলারের মুখোমুখি সংঘর্ষে এক যাত্রী নিহত হয়েছেন। নিহত অজ্ঞাত ব্যক্তির বয়স আনুমানিক ৫৫ বছর। দিনাজপুর : বিরামপুরে চলন্ত বাসের ধাক্কায় নজরুল ইসলাম (৪০) নামে গ্রামীণ ব্যাংকের এক কর্মকর্তা নিহত হয়েছেন। রবিবার সকালে দিনাজপুর-গোবিন্দগঞ্জ আঞ্চলিক মহাসড়কের দুর্গাপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের ৫০ গজ উত্তরে এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত নজরুল ইসলাম ফুলবাড়ি উপজেলার সুজাপুর এলাকার জাহের উদ্দিনের ছেলে। তিনি গ্রামীণ ব্যাংক দিওড় শাখায় অফিসার পদে কর্মরত ছিলেন। মুন্সীগঞ্জ : রবিবার বেলা ১২টার দিকে ঢাকা-মাওয়া বঙ্গবন্ধু এক্সপ্রেসওয়ের শ্রীনগর উপজেলার কেউটখালীতে পিকআপের ধাক্কায় ব্যাটারিচালিত অটোরিক্সার এক যাত্রী নিহত ও চারজন আহত হয়েছেন। নিহত ব্যক্তির (৪৫) পরিচয় পাওয়া যায়নি। কক্সবাজার : শহরের কলাতলী সুগন্ধা মোড়ে হানিফ পরিবহনের একটি বাসের ধাক্কায় অটোরিক্সার ড্রাইভার ও পর্যটকসহ ১০ জন আহত হয়েছেন। তাদের মধ্যে ২ জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানা গেছে।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More