পদ না পেয়ে দুধ দিয়ে গোসল করে দল ছাড়লেন যুবলীগ নেতা

 

স্টাফ রিপোর্টার: টাঙ্গাইল জেলা যুবলীগ সভাপতির পদ না পেয়ে দুধ দিয়ে গোসল করে দল ছাড়লেন যুবলীগের সাবেক নেতা মো. ছানোয়ার হোসেন। রোববার (১৬ অক্টোবর) সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া এক ভিডিওতে দেখা যায়, ১১ নম্বর আজগানা ইউনিয়নের এক নম্বর ওয়ার্ডের খাটিয়ারহাট বাজারে আওয়ামী লীগ ও দলের নেতা-কর্মীদের বিরুদ্ধে বিভিন্ন বাজে মন্তব্য করে কান ধরে ওঠ বস করেছেন তিনি। সেইসঙ্গে তার মোটরসাইকেল ও দোকানের চারপাশ দুধ দিয়ে পরিষ্কার করেন, যাতে আওয়ামী লীগের কোন নেতা-কর্মী তার ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে না আসে এবং মোটরসাইকেলে না ওঠেন। দুধ দিয়ে গোসল করে ভাইরাল হওয়া সাবেক যুবলীগ নেতা মো. ছানোয়ার হোসেনের পিতার নাম মৃত আব্দুর রাজ্জাক। গ্রামের বাড়ি আজগানা ইউনিয়নের খাটিয়ারহাট গ্রামে। ছানোয়ার হোসেন জানান, তিনি দীর্ঘদিন ধরে আওয়ামী লীগের রাজনীতির সঙ্গে জড়িত। ওয়ার্ড, ইউনিয়ন ও উপজেলা পর্যায়ে সভাপতি-সম্পাদকসহ আজ পর্যন্ত ভালো কোনো পদ পাননি। তারপরও আওয়ামী লীগ করে আসছেন। শনিবার (১৫ অক্টোবর) ছিল আজগানা ইউনিয়নের এক নম্বর ওয়ার্ড যুবলীগের সম্মেলন। বিকেলে খাটিয়ারহাট বাজারে সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। সম্মেলনে ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানসহ আওয়ামী লীগের নেতারা উপস্থিত ছিলেন। সম্মেলনে তিনি এক নম্বর ওয়ার্ড যুবলীগের সভাপতি প্রার্থী ছিলেন। সম্মেলনে কাউন্সিলরদের ভোটা না হয়ে জুরি বোর্ড গঠন হয়। জুরি বোর্ডের সদস্যরা তাকে সভাপতি না বানিয়ে ঐ এলাকার রুমানকে আহ্বায়ক এবং সুরুজ ও লতিফকে যুগ্ম-আহ্বায়ক করে ১১ সদস্য বিশিষ্ট আহ্বায়ক কমিটি গঠন করে। এদিকে যুবলীগে তিনি কোনো পদ না পেয়ে মনের দুঃখ-কষ্ট নিয়ে রোববার সকাল ১০টার দিকে খাটিয়ারহাট বাজারে তার ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের সামনে বালতিতে দুধ দিয়ে গোসল করে আওয়ামী লীগ থেকে সরে গেছেন। এখন থেকে তিনি ও তার পরিবার আওয়ামী লীগ করবেন না বলে জানিয়েছেন। অপরদিকে সাবেক যুবলীগ নেতা ছানোয়ার হোসেনের দুধ দিয়ে গোসল করে আওয়ামী লীগ থেকে সরে যাওয়ার ঘটনাটি এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি করেছে। এ নিয়ে আওয়ামী লীগ ও এর সহযোগী সংগঠনের নেতা-কর্মীদের মধ্যে নানা আলোচনা-সমালোচনার সৃষ্টি হয়েছে। আওয়ামী লীগের একাধিক নেতা অভিযোগ করেছেন, দলের মধ্যে বিভেদ সৃষ্টি করার জন্য একটি চক্র সাবেক যুবলীগ নেতা ছানোয়ারকে ইন্ধন দিয়ে এই ঘটনা ঘটিয়েছে। এ ব্যাপারে আজগানা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি হাজী মোক্তার আলী সিদ্দিকী বলেন, শনিবার আজগানা ইউনিয়নের ১ নম্বর ওয়ার্ড যুবলীগের সম্মেলনে কাউন্সিলর এবং জুরি বোর্ডের সদস্যদের মতামত নিয়ে এলাকায় ও দলের মধ্যে যোগ্য, ত্যাগী ও গ্রহণযোগ্য নেতাদের সমন্বয়ে যুবলীগের আহ্বায়ক কমিটি গঠন করা হয়েছে। কারও প্রতি কোন স্বজনপ্রীতি বা অন্যায় করা হয়নি। যিনি দুধ দিয়ে গোসল করে দল ত্যাগ করেছেন এটি তার একান্তই ব্যক্তিগত বিষয়। এটা দলের কোনো ক্ষতি হবে না। আজগানা ইউনিয়নের আওয়ামী লীগের সব নেতাকর্মী ঐক্যবদ্ধ রয়েছে।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More