পাহারা দিয়েতো সহিংসতা ঠেকাতে পারবো না: সিইসি

স্টাফ রিপোর্টার: ঘরে ঘরে পাড়া মহল্লায় পাহারা দিয়ে নির্বাচনী সহিংসতা ঠেকানো সম্ভব নয় বলে মন্তব্য করেছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কেএম নূরুল হুদা। বুধবার আগারগাঁওয়ের নির্বাচন ভবনে ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) দ্বিতীয় ধাপের নির্বাচন ঘিরে বিভিন্ন এলাকায় উত্তেজনা, সংঘর্ষ ও সহিংসতার ঘটনার প্রসঙ্গে সিইসি আরো বলেন, ঘরে ঘরে মহল্লায় মহল্লায় পুলিশ দিয়ে পাহারা দিয়ে এ জাতীয় অপ্রীতিকর ঘটনা থামানো যায় না। এর একমাত্র উপায় হলো নির্বাচনের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের সহনশীলতা। নির্বাচনসুলভ আচরণ।
গতকাল বৃহস্পতিবার ৮৩৫ ইউনিয়ন পরিষদে সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত ভোট গ্রহণ চলবে। সাংবাদিকদের নির্বাচনী সহিংসতার বিষয়ে সিইসি আরও বলেন, সহিংসতার দায় এককভাবে কাউকে দেয়া যাবে না। নির্বাচনী সহিংসতা থামাতে দরকার সহনশীলতা। এ জন্য রাজনৈতিক দল, প্রার্থী, সমর্থক সবার সহযোগিতা দরকার।
বৃহস্পতিবারের নির্বাচন শান্তিপূর্ণ ও উৎসবমুখর হবে বলে আশা প্রকাশ করেন সিইসি এবং বলেন, আবার স্থানীয় নির্বাচনে উত্তেজনা প্রতিদ্বন্দ্বীতার বহিঃপ্রকাশ।
নির্বাচনী সহিংসতা দমন করতে কঠোর পদক্ষেপ নিতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে নির্দেশ দেয়া হয়েছে।
নির্বাচন ভবনে ব্রিফিংয়ের সময় নির্বাচন কমিশনার রফিকুল ইসলাম শাহাদাত হোসেন চৌধুরী ও কবিতা খানম উপস্থিত ছিলেন।
প্রসঙ্গত, প্রথম ধাপে দেশের ৩৬৪ ইউপির ভোট হয়েছে। দ্বিতীয় ধাপে ৮৩৫ ইউপির ভোট রয়েছে আজ ১১ নভেম্বর, তৃতীয় ধাপে ১০০৩ ইউপির ভোট হবে ২৮শে নভেম্বর। ডিসেম্বরের মধ্যে বাকি নির্বাচন উপযোগী ইউপির ভোট করার কথা রয়েছে।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More