বাম ছাত্রজোটের মোদিবিরোধী কর্মসূচিতে ছাত্রলীগের হামলা : আহত ২০

স্টাফ রিপোর্টার: ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির আগমনের বিরোধিতা করে বামপন্থী ছাত্রসংগঠন আয়োজিত সমাবেশে ছাত্রলীগ হামলা করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে। এতে অন্তত ২০ বাম ছাত্র নেতাকর্মী আহত হয়েছেন বলে জানান তারা।
এছাড়া হামলায় দেশ রূপান্তরের আলোকচিত্রী রুবেল রশিদসহ দুই সাংবাদিক আহত হন। গতকাল মঙ্গলবার বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসি এলাকায় এ হামলার ঘটনা ঘটে।
প্রগতিশীল ছাত্রজোটের নেতাকর্মীরা জানান, মোদির আগমনের বিরোধিতা করে মঙ্গলবার তাদের পূর্বনির্ধারিত কর্মসূচি ছিলো। তারা টিএসসি থেকে মিছিল বের করে শহীদ মিনার ঘুরে আবার টিএসসিতে আসে। এরপর মোদির কুশপুত্তলিকায় আগুন দেন। এ সময় ছাত্রলীগের কয়েকজন নেতাকর্মী সেই আগুন নিভিয়ে ফেলতে যায়। তখন ছাত্রজোটের নেতাকর্মীদের সঙ্গে তাদের কথাটাকাটাটি হয়।
তারা আরো জানান, এ সময় ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা তাদের ওপর হামলা করেন। তারা ইটপাটকেল নিক্ষেপসহ লাঠি দিয়ে পেটাতে থাকেন। এতে বেশ কয়েকজন নেতাকর্মী আহত হন। তাদের কয়েকজনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।
দেশ রূপান্তরের অলোকচিত্রী রুবেল রশিদ বলেন, ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা তার তলপেটে বেশ কয়েকটি লাথি দেয়। তাদের হামলায় মানবজনিমের আলোকচিত্রী সাংবাদিক জীবন আহমেদও আহত হন।
সমাজতান্ত্রিক ছাত্রফ্রন্টের সাধারণ সম্পাদক আল কাদেরী জয় জানান, ‘আমরা শান্তিপূর্ণ কর্মসূচি পালন করছিলাম। ছাত্রলীগ অতর্কিতে আমাদের ওপর হামলা করে। ’
ছাত্র ইউনিয়ন সভাপতি ফয়েজ উল্লাহ জানান, ‘ছাত্রলীগের হামলায় আহত হয়েছেন ছাত্র ইউনিয়নের সাংগঠনিক সম্পাদক সুমাইয়া সেতু, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের সাংস্কৃতিক সম্পাদক আসমানি আশা, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের নেতা মেঘ মল্লার বসু, ছাত্রফ্রন্ট নেতা প্রগতি বর্মণ তমা, সোমাসহ অন্তত ২০ নেতাকর্মী।’
হামলায় ছাত্রলীগের মহানগর শাখার নেতাকর্মীরা অংশ নেন বলে প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, ‘এছাড়া ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের জহুরুল হক হলের ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আমির হামজা, বঙ্গবন্ধু হলছাত্র সংসদের জিএস শান্ত, কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রাজকে হামলায় অংশ নিতে দেখা যায়। ’
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, কুশপুত্তলিকায় দেয়া আগুন নেভাতে এলে দুপক্ষ হাতাহাতিতে জড়িয়ে পড়ে। এরপর ছাত্রলীগ লাঠি দিয়ে কয়েকজনকে পেটায়। এ সময়ে রাজু ভাস্কর্যে ছাত্রলীগ মোদিকে স্বাগত জানিয়ে সমাবেশ করছিল।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More