সরকার পরিচালনায় আ.লীগ কারও ওপর নির্ভরশীল নয় : ওবায়দুল কাদের

স্টাফ রিপোর্টার: ‘নির্বাচন কমিশন সরকারের হাতিয়ার হিসেবে কাজ করছে’- বিএনপির এমন অভিযোগ অস্বীকার করেছেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, শেখ হাসিনা সরকার ও আওয়ামী লীগের শেকড় এ দেশের মাটির অনেক গভীরে। সরকার পরিচালনায় আওয়ামী লীগ কারও ওপর নির্ভরশীল নয়। আওয়ামী লীগ সরকারের একমাত্র হাতিয়ার হচ্ছে দেশের জনগণ। জনগণের ওপরেই আমাদের আস্থা শতভাগ রয়েছে। জনমানুষের আস্থাই সরকারের শক্তি।
বুধবার সকালে রাজধানীর সংসদ ভবন এলাকার সরকারি বাসভবনে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন। এ সময় সরকার এবং সাংবিধানিক প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে অপপ্রচার ও গুজব সৃষ্টিতে বিএনপিই নিপুণ দক্ষতার পরিচয় দিয়ে যাচ্ছে বলেও মন্তব্য করেন ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, বিএনপি যখন জনগণের ভোটের অধিকার, নির্বাচনি ব্যবস্থা ও নির্বাচন কমিশন নিয়ে কথা বলে, তখন হাসি পায়। স্মৃতিতে ভাসে তাদের আমলে সৃষ্ট রেকর্ডের কথা। এ দেশের ইতিহাসে ভোটারবিহীন এবং একতরফা নির্বাচনের রেকর্ড গড়েছিল বিএনপিই।
১৯৯৬ সালের ১৫ ফেব্রুয়ারি জাতীয় সংসদ নির্বাচন এবং মাগুরামার্কা উপ-নির্বাচনের মধ্যদিয়ে বিএনপি অনিয়মের রেকর্ড সৃষ্টি করেছিল উল্লেখ করে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, দেশের নির্বাচন ব্যবস্থায় সবচেয়ে আজ্ঞাবহ ও বিতর্কিত নির্বাচন কমিশন ছিলেন আজিজ কমিশন। যার প্রমাণ ১ কোটি ২৩ লাখ ভুয়া ভোটার দিয়ে প্রহসনের নির্বাচন তারা করতে চেয়েছিল। বিএনপি নেতাদের উদ্দেশে তিনি বলেন, কারও সমালোচনা করার আগে আয়নায় নিজেদের মুখ দেখুন। মানুষের ভোটাধিকার হরণের জনক বিএনপির মুখের কথা মানুষ এখন আর বিশ্বাস করে না।
সেতুমন্ত্রী বলেন, নির্বাচন কমিশন একটি সাংবিধানিক প্রতিষ্ঠান, নিজস্ব ক্ষমতা এবং আইন প্রয়োগের মাধ্যমে সুষ্ঠু ও অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন অনুষ্ঠান তাদের দায়িত্ব। রাজনৈতিক দল হিসেবে আওয়ামী লীগের দায়িত্ব কমিশনকে সহযোগিতা করা। তিনি বলেন, বিএনপি এ পর্যন্ত পদে পদে বাধা প্রদান ছাড়া একটি শক্তিশালী নির্বাচন ব্যবস্থা গড়ে তুলতে কোনো সহযোগিতা তো করেইনি, উল্টো তারা নির্বাচনে জয়ের নিশ্চয়তা চায়। তিনি বলেন, কমিশন যদি বিএনপিকে জয়ের নিশ্চয়তা দেয় তবেই তাদের ভাষায় কমিশন নিরপেক্ষ। ওবায়দুল কাদের বলেন, আন্দোলন-সংগ্রামের মধ্যদিয়ে বেড়ে ওঠা দল আওয়ামী লীগ সরকারে থাকলেও এখনও রাজপথ ছাড়েনি। আওয়ামী লীগ গণতন্ত্রের শত্রুদের বিরুদ্ধে, সাম্প্রদায়িক শক্তির বিরুদ্ধে এবং দেশে-বিদেশে সরকারবিরোধী ষড়যন্ত্রের বিরুদ্ধে লড়াই করে যাচ্ছে। তাই ষড়যন্ত্র করে কোনো লাভ নেই।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More