ভেঙে গেছে শাকিব-বুবলির সংসার, শিগগিরই ঘোষণা

বিয়ে আর সন্তানের খবর প্রকাশ্যে আনলেও তারকা জুটি শাকিব খান ও শবনম বুবলী এখন আর স্বামী-স্ত্রী নন। এমন গুঞ্জন জোরেশোরেই উঠেছে। একটি ঘনিষ্ঠ সূত্র মারফত খবর, ৮ মাস আগেই বিবাহ বিচ্ছেদ হয়েছে শাকিব-বুবলীর। এখন শুধু ঘোষণা দিতে বাকি। সেই ঘোষণা যেকোনো সময় আসতে পারে বলে শোনা যাচ্ছে।

গত ৩০ সেপ্টেম্বর ছেলের শেহজাদ খান বীরের ছবি ফেসবুকে পোস্ট করেন চিত্রনায়িকা বুবলী। জানান, এই সন্তানের বাবা শাকিব খান। এরপর তাদের বিয়ে এবং সন্তান জন্মের তারিখও জানান ফেসবুকে। তাই ধারণা করা হচ্ছে, বিবাহ বিচ্ছেদের কথাও ফেসবুকেই জানাবেন সংবাদপাঠিকা থেকে নায়িকা বনে যাওয়া শবনম ইয়াসমিন বুবলী।

নায়িকার ঘনিষ্ঠ সূত্র বলছে, গত বছরের শুরু থেকে শাকিব খানের সঙ্গে তার বিবাদ শুরু হয়। সে বছরেরই ১৮ ফেব্রুয়ারি ‘লিডার: আমিই বাংলাদেশ’ সিনেমার চুক্তি সম্পাদন অনুষ্ঠানে শাকিব-বুবলীকে একসঙ্গে দেখা যায়। কিন্তু দুই তারকা কেউ কারও সঙ্গে কথা বলেননি। শোনা যাচ্ছে, ‘লিডার: আমিই বাংলাদেশ’-এ চুক্তিবদ্ধ হওয়ার আগেই ভাঙে তাদের সংসার।

এ সম্পর্কে জানতে বুবলীর সঙ্গে যোগাযোগ করেছিল ঢাকা টাইমস। কিন্তু নায়িকার কোনো সাড়া পাওয়া যায়নি। মন্তব্য পাওয়া যায়নি শাকিব খানেরও। শোনা যাচ্ছে, খুব শিগগিরই বিষয়টি তারা জনসমক্ষে আসবেন। এখন সংবাদ সম্মেলন করে জানাবেন নাকি আবারও সোশ্যাল মিডিয়ার আশ্রয় নেবেন, সেটা দেখার অপেক্ষা।

২০১৬ সালে শাকিব খানের বিপরীতে ‘বসগিরি’ ছবি দিয়ে ঢালিউডে অভিষেক করেন শবনম বুবলী। এরপর তারা ধারাবাহিক এক ডজন ছবিতে একসঙ্গে কাজ করেন। ২০১৮ সালের ২০ জুলাই করেন গোপনে বিয়ে। ২০২০ সালের ২১ মার্চ আমেরিকায় জন্ম হয় তাদের ছেলে শেহজাদ খান বীরের। গোপন ছিল এ খবরও। তবে গুঞ্জন ছিল। অবশেষে সেই গুঞ্জনই সত্যি হয়।

এর আগে ২০০৮ সালে অপু বিশ্বাসকেও গোপনে বিয়ে করেন শাকিব খান। ২০১৬ সালের ২৭ সেপ্টেম্বর কলকাতায় জন্ম হয় তাদের ছেলে আব্রাম খান জয়ের। পরের বছরের এপ্রিলে একটি টিভি চ্যানেলে গিয়ে বিয়ে ও সন্তান জন্মদানের কথা প্রকাশ করেন অপু বিশ্বাস। এর কয়েক মাস না যেতেই নানা অভিযোগ তুলে অপুকে তালাক দেন শাকিব খান।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More