এলাকায় যুব সমাজকে মাদক ছেড়ে খেলার মাঠে ফিরিয়ে আনতে হবে

চুয়াডাঙ্গায় স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের মাঝে অনুদানের চেক বিতরণ অনুষ্ঠানে এমপি ছেলুন জোয়ার্দ্দার

স্টাফ রিপোর্টার: বাংলাদেশ জাতীয় সমাজ কল্যাণ পরিষদ কর্তৃক মঞ্জুরিকৃত ২০২১-২০২২ অর্থবছরে স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন সমূহের মধ্যে এককালীন অনুদানের চেক বিতরণ অনুষ্ঠিত হয়। গতকাল শনিবার বেলা ১২টায় চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রশাসক সম্মেলন কক্ষে জেলা সমাজসেবা অধিদপ্তর এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আমিনুল ইসলাম খানের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন চুয়াডাঙ্গা-১ আসনের সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা সোলায়মান হক জোয়ার্দ্দার ছেলুন। এ সময় তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২০৪১ সালের মধ্যে বাংলাদেশকে উন্নত রাষ্ট্রে পরিণত করার জন্য নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন। তার দক্ষ নেতৃত্বের মধ্য দিয়ে ইতোমধ্যেই দেশ মধ্য আয়ের দেশে পরিণত হয়েছে। এর পেছনে যেমন রাজনৈতিক দল, সরকারি কর্মকর্তা কর্মচারী, সাধারণ জনগণের অবদান আছে। তেমনই দেশের স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের ভূমিকা রয়েছে। আগামী ২০৪১ সালের মধ্যে দেশকে উন্নত রাষ্ট্রে পরিণত করতে হয় তবে সকল পেশার প্রতিনিধিদের কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে কাজ করতে হবে। দেশের জনগোষ্ঠির অর্ধেক নারী এ জন্য নারীদের পেছনে রেখে দেশের উন্নয়ন সম্ভব নয়। বাল্যবিয়ে নারীদের এগিয়ে নেয়ার পথকে রুদ্ধ করে দেয়। যুব সমাজ এদেশের প্রধান চালিকা শক্তি। যে দেশে প্রশিক্ষিত যুব সমাজের সংখ্যা যত বেশী সেই দেশ তত দ্রুত এগিয়ে যাবে। এজন্য যুব সমাজকে প্রশিক্ষণ দিয়ে মানব সম্পদে পরিণত করতে হবে। স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনগুলো তৃণমূলের সংগঠন। প্রতিটি ইউনিয়নে স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন কাজ করে। এ জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনসমূহের মধ্যে অনুদান প্রদান করছেন। এ অনুদানের টাকা এলাকার বাল্যবিয়ে প্রতিরোধ, মাদক প্রতিরোধ উপলক্ষে কোনো খেলাধুলা বা সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান করলে এলাকার বাল্যবিয়ে কমে আসবে। দেশের যুবকরা মাদক ছেড়ে খেলার মাঠে চলে আসবে। বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন চুয়াডাঙ্গা পুলিশ সুপার আব্দুল্লাহ আল মামুন, চুয়াডাঙ্গা পৌর মেয়র জাহাঙ্গীর আলম মালিক, চুয়াডাঙ্গা সিভিল সার্জনের প্রতিনিধি ডা. আওলিয়ার রহমান, জেলা সমাজ কল্যাণ কমিটির সহসভাপতি মুন্সি আলমগীর হান্নান, সমাজসেবা অধিদপ্তরের উপপরিচালক সিদ্দিকা সোহেলী রশিদ। আরও উপস্থিত ছিলেন রেজিষ্ট্রেশন অফিসার সাইদ হাসান, উপজেলা সমাজসেবা অফিসার মৌমিতা পারভীন, শহর সমাজসেবা অফিসার মিজানুর রহামান। জেলা সমাজসেবা অধিদফতরের সহকারী পরিচালক আবু তালেবের উপস্থাপনায় বক্তব্য রাখেন জেলা প্রতিবন্ধী বিষয়ক কর্মকর্তা আনোয়ারুল ইসলাম, পল্লী উন্নয়ন সংস্থা পাস’র নির্বাহী পরিচালক ইলিয়াস হোসেন। এরপর প্রধান অতিথি বীর মুক্তিযোদ্ধা সোলায়মান হক জোয়ার্দ্দার ছেলুনসহ অতিথিবৃন্দ চুয়াডাঙ্গা জেলায় কর্মরত ৫৪টি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের মধ্যে ৯ লাখ ৬৮ হাজার টাকার চেক তুলে দেন।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More