ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবসে সংক্ষিপ্ত পরিসরে কর্মসূচি পালিত

করোনা প্রতিরোধে সরকারি নির্দেশনা মেনে চলার আহ্বান

মুজিবনগর প্রতিনিধি: করোনা ভাইরাস সংক্রমণরোধে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা ও সরকারি অন্যান্য নির্দেশনা মেনে চলাই হোক এবারের মুজিবনগর দিবসের শপথ। গতকাল শুক্রবার সকালে ঐতিহাসিক মুজিবনগর স্মৃতি সৌধে দেশবাসীর প্রতি এমন আহ্বান জানান মেহেরপুর জেলা আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ ও প্রশাসনের কর্তা ব্যক্তিরা। করোনাভাইরাস প্রাদুর্ভাবের কারণে সংক্ষিপ্ত অনুষ্ঠানের আয়োজনের মধ্যদিয়ে ঐতিহাসিক মুজিবনগর আম্রকাননে বাংলাদেশের প্রথম সরকারের শপথের এ দিনটি পালন করা হচ্ছে।
বক্তব্যে মেহেরপুর-২ আসনের সংসদ সদস্য মোহাম্মদ সাহিদুজ্জামান খোকন বলেন, একাত্তরে এখানে শপথ না হলে হয়তো দেশ স্বাধীন হতো না। তাই ইতিহাসের অবিচ্ছেদ্য অংশ এই মুজিবনগর আম্রকানন। বিশ্বব্যাপী নোভেল করোনাভাইরাসের কারণে আজ আমরাও ঘরবন্দি। তবে জননেত্রী শেখ হাসিনা শক্ত হাতে সকল পরিস্থিতি মোকাবেলা করছেন। আমরা যদি তার (প্রধানমন্ত্রীর) নির্দেশনাগুলো মেনে চলি; তাহলে আল্লাহ আমাদের সুদিন দিবেন। আজকের এ দিবস উদযাপনের শপথ হোক নেভোল করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে ঘরে থাকার শপথ।
বক্তব্যে জেলা প্রশাসক আতাউল গনি বলেন, দেশব্যাপী আমরা সকল মানুষ যার যার অবস্থান থেকে সংগ্রামে অবতীর্ণ হয়েছি। নিশ্চয়ই এই সংগ্রামে আমরা জয়লাভ করবো এবং আমাদের অর্থনৈতিক যে অগ্রযাত্রাকে অব্যাহত রেখে ১৯৭১ সালের আমাদের যে সকল বীর মুক্তিযোদ্ধাগণ এদেশের জন্য যুদ্ধ করেছিলেন তাদের স্বপ্ন বাস্তবায়ন করতে সক্ষম হবো।
প্রতি বছর যথাযোগ্য মর্যাদায় মুজিবনগর দিবসটি উদযাপন করা হয় উল্লেখ করে জেলা প্রশাসক আরও বলেন, সারা বিশ্বের ন্যায় আমাদের মাতৃভূমি বাংলাদেশ কোডিড-১৯ ভাইরাসে আক্রান্ত। যার ফলে সরকারি সকল অনুষ্ঠান অত্যান্ত সীমিত করা হয়েছে। সংক্ষিপ্ত এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয় ও জেলা প্রশাসন।
ভোরে পুলিশের ৩১ বার তোপধ্বনির মধ্যদিয়ে দিবসের অনুষ্ঠান সূচনা হয়। এরপর জেলা প্রশাসক আতাউল গনি ও পুলিশ সুপার এসএম মুরাদ আলী স্মৃতিসৌধ বেদিতে পুষ্পার্ঘ অর্পণ করেন। ওই সময় উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জাহিদ, নির্বাহী অফিসার উসমান গনি, থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আব্দুল হাশেম, সেখানে জাতীয় সঙ্গীতের সাথে জাতীয় পতাকা উত্তোলন ও দোয়া করা হয়।
১৯৭১ সালের ১৭ এপ্রিল মেহেরপুরের বৈদ্যনাথতলা তথা মুজিবনগর আম্রকাননে বাংলাদেশের প্রথম সরকার শপথ গ্রহণ করেন। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে রাষ্ট্রপতি করে গঠিত এ সরকারের নেতৃত্বে মুক্তিযুদ্ধে বাংলাদেশ যুদ্ধে বিজয় অর্জন করে। স্বাধীনতা যুদ্ধের বিভিন্ন স্মৃতি ধরে রাখতে মুজিবনগরে শপথের স্থানটিতে স্মৃতি সৌধ, পাশে মুক্তিযুদ্ধ কমপ্লেক্সে বাংলাদেশের মানচিত্র, জাতির জনক বঙ্গবন্ধুসহ স্বাধীনতা যুদ্ধের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালনকারীদের মুর‌্যলসহ বিভিন্ন স্থাপনা নির্মাণ করা হয়েছে। সারা বছর দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে দশনার্থী আসেন এখানে।
পরে পুষ্পার্ঘ অর্পণ করেন মেহেরপুর-২ আসনের সংসদ সদস্য মোহাম্মদ সাহিদুজ্জামান খোকন, জেলা আওয়ামী লীগের পক্ষে সাধারণ সম্পাদক এমএ খালেক ও যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক অ্যাড. ইব্রাহিম শাহীন, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান গোলাম রসুল, পৌর মেয়র মাহফুজুর রহমান রিটন, সদর উপজেলা চেয়ারম্যান অ্যাড. ইয়ারুল ইসলাম, অ্যাড. মিয়াজান আলী ও বাগোয়ান ইউপি চেয়ারম্যান আয়ুব হোসেন। এছাড়া জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি আব্দুস সালাম বাঁধন, মেহেরপুর সরকারি কলেজ ছাত্রলীগ সভাপতি আসিব ইকবাল, উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক শেখ সাকিব, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি বিপ্লব হোসেন, উপজেলা তাঁতিলীগের সভাপতি প্রবীর শেখ প্রমুখ। সমাবেশ এড়িয়ে সংক্ষিপ্ত পরিসরে এ কার্যক্রম সম্পাদন করেন নেতৃবৃন্দ। এছাড়াও জেলা পুলিশের একটি চৌকস দল গার্ড অব অনার প্রদান করে।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More