চুয়াডাঙ্গার সাহায্যের হাত বাড়িয়ে ছিনতাইয়ের চেষ্টা : চালক ও হেলপারকে ক্ষুরের পোঁচে জখম : অভিযুক্ত শাকের আটক

স্টাফ রিপোর্টার: চুয়াডাঙ্গার জাফরপুরে কাভার্ডভ্যানের চালকসহ হেলপারকে ক্ষুর মেরে জখম করেছে এক দুর্বৃত্ত। বিকল কাভার্ডভ্যান মেরামতের সময় তাদের মোবাইল-মানিব্যাগ ছিনিয়ে নেয়ার সময় এ ঘটনা ঘটে। ধারালো অস্ত্র ক্ষুরের পোঁচে জখম চালককে প্রাথমিক চিকিৎসা এবং হেলপারকে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় রাতেই নূরনগর কলোনিপাড়ার শাকের নামের এক যুবককে আটক করেছে পুলিশ।
আলমডাঙ্গা খাসকররার নিশ্চিন্তপুর গ্রামের বিশারত ম-লের ছেলে কাভার্ডভ্যান চালক নাজমুল হোসেন বলেন, রাত ১২টার দিকে চুয়াডাঙ্গা থেকে খালি গাড়ি নিয়ে ঝিনাইদহের উদ্দেশ্যে যাচ্ছিলাম। জাফরপুরে নতুন স্টেডিয়ামের অদূরে পৌঁছুলে হঠাৎ গাড়িটি বিকল হয়ে যায়। এ সময় একই গ্রামের ইদ্রিস আলীর ছেলে হেলপার জিনারুল এবং আমি গাড়ি থেকে নেমে মেরামতের চেষ্টা করি। রাতের অন্ধকারে গাড়ি মেরামতের জন্য হেলপারকে টর্চলাইট আনতে বলি। এ সময় এক ব্যক্তি এসে টর্চলাইট দিয়ে কাজ করতে বলে।
জিনারুল ইসলাম বলেন, কাজ করার সময় হঠাৎ দেখি ওই ব্যক্তি গাড়ির মধ্যে থাকা আমাদের মোবাইল ও মানব্যিাগ নিয়ে চলে যাচ্ছে। আমি দৌড়ে গিয়ে তাকে জাপটে ধরি। আমার চিৎকারে ড্রাইভার ছুটে গিয়ে তাকে চেপে ধরে। এ সময় আমি ওই ব্যক্তির পকেট থেকে আমাদের মোবাইল ও মানিব্যাগ বের করে নিই। এ সময় পকেট থেকে ক্ষুর বের করে পোঁচ মারে আমাদের।
নাজমুল বলেন, ধস্তাধস্তির একপর্যায়ে সে নিজেকে স্থানীয় বলে পরিচয় দেয় এবং ছেড়ে দিতে বলে। চায়ের দোকান থেকে স্থানীয় কয়েকজন এসে তাকে ছেড়ে দেয়ার জন্য বলে। পরে জখম হেলপার জিনারুলকে উদ্ধার করে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে নেয়া হয়। তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More