চুয়াডাঙ্গায় করোনা ও উপসের্গ আরও ৬ জনের মৃত্যু হলেও সিভিল সার্জনের হিসেবে মৃত্যু সংখ্যা শূন্য

স্টাফ রিপোর্টার: চুয়াডাঙ্গায় একের পর এক করোনা আক্রান্ত হয়ে রোগীর মৃত্যু হচ্ছে। গতকাল শুক্রবার করোনায় ৮০ বছরের এক বৃদ্ধা সদর হাসপাতালে মারা গেলেও সিভিল সার্জন বলছে এদিন করোনায় কেউ মারা যায়নি। অপরদিকে, গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা আক্রান্ত হয়ে একজনের মৃত্যু হয়েছে। উপসর্গ নিয়ে মারা গেছেন আরও পাঁচজন। সিভিল সার্জনের তথ্যমতে, শুক্রবার করোনা আক্রান্ত হয়ে জেলায় কেউ মারা যায়নি। জেলা স্বাস্থ্য বিভাগের তথ্যে জেলায় করোনায় মৃতের সংখ্যা দাঁড়ালো ২০০ জন, তবে বেসরকারি হিসেবে মৃতের সংখ্যা ২০১ জন। এর মধ্যে চুয়াডাঙ্গায় করোনায় মারা গেছেন ১৮১ জন এবং জেলার বাইরে ২০ জন। শুক্রবার চুয়াডাঙ্গায় নতুন করে একজনের শরীরে করোনা শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে জেলায় মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়ালো ৬ হাজার ৪৬২ জনে।
চুয়াডাঙ্গা স্বাস্থ্য বিভাগ শুক্রবার নতুন কোনো নমুনা সংগ্রহ করে পাঠাইনি। পূর্বের হিসেব অনুযায়ী জেলায় মোট নমুনা সংগ্রহের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২৪ হাজার ৬৯৯ জন। এদিন ১৫ জনের নমুনা পরীক্ষার রিপোর্ট পাওয়া গেছে। এ নিয়ে মোট ২৪ হাজার ৭০২ জনের নমুনা পরীক্ষার রিপোর্ট পাওয়া গেছে। এ সময় সুস্থ হয়েছেন ৬৫ জন। এ নিয়ে জেলায় মোট সুস্থ হলেন ৫ হাজার ৯৪ জন। বর্তমানে সক্রিয় রোগীর মধ্যে হাসপাতালে রয়েছেন ৬৮ জন আর বাড়িতে রয়েছেন ১ হাজার ১০০ জন। নতুন যে একজন শনাক্ত হয়েছেন তার বাড়ি দামুড়হুদা উপজেলায়। এদিকে সূত্রে জানা যায়, শুক্রবার দুপুরে চুয়াডাঙ্গা পৌর এলাকা বনানীপাড়ার ৮০ বছরের এক বৃদ্ধা করোনা আক্রান্ত হয়ে সদর হাসপাতালের রেডজোনে মারা গেলেও জেলা স্বাস্থ্য বিভাগের হিসেব অনুযায়ী গতকাল করোনায় মৃতের সংখ্যা শূন্য।
চুয়াডাঙ্গার সিভিল সার্জন ডা. এএসএম মারুফ হাসান বলেন, শুক্রবার চুয়াডাঙ্গায় করোনা আক্রান্ত হয়ে কেউ মারা যায়নি। উপসর্গ নিয়ে হলুদ জোনে মারা গেছেন পাঁচজন। এ পর্যন্ত জেলায় মোট ৮৭ জন স্বাস্থ্যকর্মী করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। এর মধ্যে সুস্থ হয়েছেন ৭১ জন।

 

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More