চুয়াডাঙ্গায় ২ আনসার সদস্যসহ মেহেরপুরে ১ ও কুষ্টিয়ায় ৪২ জন আক্রান্ত

স্টাফ রিপোর্টার: চুয়াডাঙ্গায় নতুন করে দুই আনসার সদস্য করোনাভাইরাস আক্রান্ত হয়েছেন। মেহেরপুরের তিন উপজেলার ১৫টি নমুনা পরীক্ষায় একজন করোনাভাইরাস সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছেন। আক্রান্তের সংখ্যায় গত ২৪ ঘণ্টায় রেকর্ড করেছে কুষ্টিয়া। নতুন করে এ জেলাটিতে করোনা পজেটিভ হয়েছেন ৪২ জন। কুষ্টিয়ার মেডিকেল কলেজের পিসিআর ল্যাবের রিপোর্ট শুক্রবার প্রকাশ করে জেলা সিভিল সার্জন অফিস। সিভিল সার্জন অফিস জানায়, পিসিআর ল্যাবে মোট ২৮১ টি স্যাম্পল পরীক্ষা করা হয়। এর মধ্যে কুষ্টিয়ায় ১৭২, মেহেরপুরে ১৫, চুয়াডাঙ্গায় ২, নড়াইলে ৬৪ ও বাগেরহাটে ২।
চুয়াডাঙ্গায় দু’জন আনসার সদস্য নতুন করে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। করোনার কোনো উপসর্গ ছাড়ায় বেশি আক্রান্ত হচ্ছে। যার ফলে জেলায় আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা বেড়ে যাচ্ছে। গতকাল শুক্রবার পরীক্ষার জন্য নতুন ৯টি নমুনা প্রেরণ করা হয়েছে। করোনায় নতুন আক্রান্ত দুজন চুয়াডাঙ্গা ডিঙ্গেদহ ২৬-আনসার ব্যাটলিয়নের সদস্য। ৭ জন সদস্য এ পর্যন্ত করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। আনসার সদস্যরা নিজ ব্যাটলিয়ন থেকে চিকিৎসা নিচ্ছেন। গতকাল শুক্রবার রাতে কুষ্টিয়া মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পিসিআর ল্যাব থেকে সিভিল সার্জন অফিসে এ রিপোর্ট আসে।
চুয়াডাঙ্গা সিভিল সার্জন অফিস সূত্রে জানা যায়, শুক্রবার রাতে কুষ্টিয়া পিসিআর ল্যাব থেকে চুয়াডাঙ্গার রিপোর্ট আসে ২১টি। এরমধ্যে দুজনের শরীরে করোনা ভাইরাস পজিটিভ হয়। আক্রান্ত দুইজন চুয়াডাঙ্গার ডিঙ্গেদহ ২৬-আনসার ব্যাটালিয়নের সদস্য। এ পর্যন্ত ব্যাটালিয়নের ৭ জন সদস্য করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হলেন। চুয়াডাঙ্গার চারটি উপজেলায় এ পর্যন্ত ২০৫ জন করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। সুস্থ হয়েছেন ১১৫ জন। প্রাতিষ্ঠানিক আইসোলেশনে ২৭ জন ও হোম আইসোলেশনে রয়েছেন ৬১ জন। সদর উপজেলায় আক্রান্ত ৬৭ জন, সুস্থ হয়েছেন ৪৫ জন ও মারা গেছেন একজন। আলমডাঙ্গা উপজেলায় আক্রান্ত ৫৩ জন, সুস্থ হয়েছেন ৩০ জন। দামুড়হুদা উপজেলায় আক্রান্ত ৫৯ জন, সুস্থ হয়েছেন ৩৩ জন ও মারা গেছেন একজন। জীবননগর উপজেলায় আক্রান্ত ২৬ জন, সুস্থ হয়েছে ৭ জন।
সিভিল সার্জন ডা. এএসএম মারুফ হাসান বলেন, আজকে নতুন আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা কম। কুষ্টিয়া ল্যাবে নতুন দুটি জেলা যুক্ত হয়েছে। সন্দেহভাজন রোগী কম থাকায় নমুনা সংগ্রহ কম হচ্ছে। নতুন করে দুজন আনসার সদস্য করোনা আক্রান্ত হয়েছে। বৃহস্পতিবার রাতে করোনা উপসর্গ নিয়ে মারা যাওয়া রোগী তার স্বজনেরা জোর করে নিয়ে গিয়েছে তা জানতাম না। আমি লাশ নেয়ার জন্য ব্যাগও দিয়েছিলাম। অ্যাম্বুলেন্স ড্রাইভার তৈরি ছিলো লাশ নিয়ে যাওয়ার জন্য। স্বাস্থ্য বিধি না মানায় ঝুঁকি থাকবে। রেজাল্ট যদি পজিটিভ হয় তখন কি হবে।
মেহেরপুর অফিস জানিয়েছে, শুক্রবার রাত আটটা পূর্ব ২৪ ঘন্টায় মেহেরপুর জেলায় আরও একজন কোভিড-১৯ পজিটিভ। এ সময়ে জেলার তিন উপজেলার ১৫টি নমুনা পরীক্ষায় একজন করোনাভাইরাস সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছেন। আক্রান্ত ব্যক্তির বাড়ি মেহেরপুর শহরের হোটেল বাজার এলাকায়। মেহেরপুর সিভিল সার্জন সুত্রে জানা গেছে, গতকাল শুক্রবার আক্রান্ত ওই ব্যক্তির বয়স ৪৫ বছর। তিনি ইলেকট্রনিক্স ব্যবসায়ী। শারীরিকভাবে তিনি সুস্থ আছেন। তবে কার মাধ্যমে তিনি আক্রান্ত হয়েছেন তা প্রাথমিকভাবে নিশ্চিত নন তিনি। তবে আক্রান্ত ওই ব্যবসায়ীকের আইসোলেশন করার পাশাপাশি তার বাড়ি লকডাউন করা হয়েছে। তার সংস্পর্শে যারা যারা এসেছেন তাদের নমুনা পরীক্ষার প্রক্রিয়া চলছে। গতকাল শুক্রবার আক্রান্ত একজন নিয়ে জেলায় মোট আক্রান্তের সংখ্যা এখন ৬১। এর মধ্যে সুস্থ হয়েছেন ২২ জন। আক্রান্তের মধ্যে সদর উপজেলায় ৩১ জন, গাংনী উপজেলায় ২৪ জন আর মুজিবনগর উপজেলায় এ সংখ্যা ৬। এর মধ্যে মৃত্যু হয়েছে ৫ জনের। মৃত্যুর পরে নমুনা পরীক্ষায় ৪ জন পজিটিভ আর আক্রান্ত শনাক্তের পর একজনের মৃত্যু হয়।
কুষ্টিয়া প্রতিনিধি জানিয়েছেন, আক্রান্তের সংখ্যায় গত ২৪ ঘণ্টায় রেকর্ড করেছে কুষ্টিয়া। নতুন করে এ জেলাটিতে করোনা পজেটিভ হয়েছেন ৪২ জন। সদর উপজেলায় ২৪ জন, কুমারখালী উপজেলায় ৫ জন, দৌলতপুর উপজেলায় ১০ জন, মিরপুর উপজেলায় ৩ জনের রিপোর্ট পজেটিভ এসেছে। এছাড়া, নড়াইল জেলায় ১৭ জন, মেহেরপুর জেলায় ১ জন, চুয়াডাঙ্গা জেলায় ২ জন ও বাগেরহাট জেলার ২ জন নতুন করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছে। নড়াইল জেলার ২ জন, চট্টগ্রাম জেলার ১ জন এবং কুষ্টিয়া সদর ও মিরপুর উপজেলার ২টি করে মোট ৬টি ফলোআপ রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে। বাকিগুলোর ফলাফল নেগেটিভ। কুষ্টিয়া জেলার সদর উপজেলায় আক্রান্ত ২৪ জনের ঠিকানা উকিল পাড়া ২ জন, হসপিটাল কোয়ার্টার ১ জন, ঝাউতলা ১ জন, বেলঘরিয়া ১ জন, কেজিএইচ ১ জন, উত্তর কমলাপুর ১ জন, ৪৬, মসজিদ বাড়ি লেন, হালুয়াপাড়া ১ জন, আদর্শপাড়া ১ জন, আড়ুয়াপাড়া ২ জন, চৌড়হাস ফুলতলা ২ জন, উত্তর আমলাপাড়া ২ জন, কালিশঙ্করপুর ৩ জন, বি ৪১৯ নং হাউজিং ১ জন, পুলিশ লাইন ১ জন, হরিনারায়ণপুর ৪ জন। কুমারখালী উপজেলায় আক্রান্ত ৫ জনের ঠিকানা গোবিন্দপুর ১ জন, পুটিয়া ১ জন, গরুরিয়া ১ জন ও মহেন্দ্রপুর ২ জন। দৌলতপুর উপজেলায় আক্রান্ত ১০ জনের ঠিকানা ওয়ালটন প্লাজা ১ জন, কল্যাণপুর ২ জন, বালুডাঙ্গা ১ জন, সোনাইকুন্দী ১ জন, পাকুরিয়া ৩ জন ও মহেসকু-ি ২ জন। মিরপুর উপজেলায় আক্রান্ত ৩ জনের ঠিকানা সোনালি ব্যাংক ১ জন, পোড়াদহ বারুইপাড়া ১ জন, উত্তর কাটাদহ ১ জন।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More