চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতাল থেকে অক্সিজেন সিলিন্ডার উধাও

স্টাফ রিপোর্টার: চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালের পুরুষ সার্জারী ওয়ার্ডের একটি অক্সিজেন সিলিন্ডার সহ ফ্লো মিটার খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না। গত বৃহস্পিবার (৬ মে) রাত থেকে সিলিন্ডারটির হদিস নেই। দিনভর খুজেও না পেয়ে সদর হাসপাতলের কর্মরতদের দায়িত্ব নিয়ে প্রশ্ন তোলেন সচেতন মহল। সার্জারী ওয়ার্ডের নার্স রানী বেগমের দাবি সরকারি এম্বুলেন্সে নিয়ে গেছে সিলিন্ডারটি। তবে এম্বুলেন্স চালক সাকু জানায়, আমার গাড়িতে ওয়ার্ডের কোন অক্সিজেন সিলিন্ডার নেয় বলে সাফ জানিয়ে দেন।
জানা যায়, গত বৃহস্পতিবার সদর উপজেলার গাড়াবাড়িয়া গ্রামের আহত এক আ.লীগ কর্মীকে রাজশাহী রেফার্ড করেন চিকিৎসক। সার্জারী ওয়ার্ডে থাকাকালীন ওই রোগীর অক্সিজেন দেয়া ছিল। সন্ধার পর সরকারি এম্বুলেন্সযোগে রাজশাহীতে নেয়া হয়। সে সময় হাসপাতালের গেট থেকে অক্সিজেন সিলিন্ডারটি হারিয়ে যায়। এতে ওয়ার্ডে থাকা কর্মরতরা অনেক খোজাখুজির পর ও সেটিকে পায়নি।  সরকারি এম্বুলেন্সের চালক সাকু বলেন, আমার গাড়িতে অক্সিজেন সিলিন্ডার আছে৷ ওই রোগী কে রাজশাহী নেয়ার সময় কোন অক্সিজেন সিলিন্ডার ছিলনা। আর কোথায় আছে তা হাসপাতালের কর্তৃপক্ষই জানে।সার্জারী ওয়ার্ডের নার্স রানী বেগমের জানতে চাইলে তিনি বলেন, সরকারি এম্বুলেন্সে অক্সিজেন সিলিন্ডারটি নিয়ে গেছে। আপনি কে? আপনাকে কেন বলতে হবে এসব কথা? আপনি আরএমওকে জিজ্ঞাসা করেন। নাম প্রকাশে একাধিক হাসপাতালে স্টাফরা বলেন, এমনিতেই অক্সিজেনের সংকট চলছে। ঠিক এসময় সিলিন্ডার হারিয়ে গেলো। ওয়ার্ডের কর্মরত দের অবহেলা এঘটনা ঘটেছে বলে মন্তব্য করেন। চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে আবাসিক মেডিক্যাল চিকিৎসা কর্মকর্তা ডা. এএসএম ফাতেহ আকরাম বলেন,  সদর হাসপাতালের একটি অক্সিজেন সিলিন্ডার পাওয়া যাচ্ছেনা বলে আমি শুনেছি। হয়তো কোন ওয়ার্ডে বা রোগীর স্বজনরা নিয়ে যেতে পারে। রোগীর স্বজনদেরকে জানানো হয়েছে। আমরা খোজাখুজি করছি এবং বিষয়টি গুরুত্ব সহকারে দেখছি।
Attachments area
এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More