দর্শনা স্থলবন্দর পরিদর্শনকালে ভারতে নিযুক্ত বাংলাদেশি হাই কশিমনার এইচ-ই-ইমরান

পূর্ণাঙ্গ স্থল বন্দরে রূপ দেয়ার ক্ষেত্রে আমার আন্তরিকতার কমতি থাকবে না
দর্শনা অফিস: চুয়াডাঙ্গার দর্শনা স্থল বন্দরের কার্যক্রম পরিদর্শন করলেন ভারতে নিযুক্ত বাংলাদেশি হাই কমিশনার এইচ ই মুহাম্মদ ইমরান। ভারতের পশ্চিমবঙ্গের নদীয়া জেলা গেঁদে ল্যান্ড পোর্ট এলাকা পরিদর্শন শেষে গতকাল বুধবার দুপুরে সীমান্তের শূণ্য রেখায় পৌঁছুলে চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রশাসক নজরুল ইসলাম সরকার, পুলিশ সুপার জাহিদুল ইসলাম তাকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানান। এরপর দর্শনা কাস্টমস কর্তৃপক্ষ, বন্দর বাস্তবায়ন কমিটি, চুয়াডাঙ্গা চেম্বার অব কমার্স এবং দর্শনা প্রেসক্লাবের পক্ষ থেকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানানো হয়। দর্শনা জয়নগর চেকপোস্টের সামনে পুলিশের একটি চৌকস দল রাষ্ট্রীয় মর্যাদা প্রদান করেন এইচই মুহাম্মদ ইমরানকে। এরপর তিনি দর্শনা বন্দরের সকল কর্যক্রম ঘুরে দেখেন। তারপর বিকেলে দর্শনা বন্দরে বিজিবি আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে জেলা প্রশাসন, বন্দর বাস্তবায়ন কমিটি, চেম্বার অব কমার্স ও সুধীবৃন্দের সাথে মতবিনিময় সভা করেন।
ভারতে নিযুক্ত বাংলাদেশি হাই কমিশনার মুহাম্মদ ইমরান বলেন, স্থলবন্দরগুলো কি অবস্থায় আছে সেগুলো পর্যবেক্ষণ করে দেখছি। দুই দেশের সর্বোচ্চ নেতৃত্ব পর্যায়ে ভালো সম্পর্ক রয়েছে। এখানকার ব্যবসায়ী যারা স্থল বন্দর বাস্তবায়ন করতে চায় তাদের কথা আমি শুনেছি। সমন্বিত ভাবে প্রতিবেদন তৈরি করে উভয় দেশের সরকারের সাথে বসবো। তিনি আরও বলেন, আপনাদের আন্তরিকতা মুগ্ধ করেছে আমাকে। দর্শনা স্থল বন্দর এলাকা পরিদর্শন করে যা উপলদ্ধি করলাম তা বাংলাদেশ-ভারত উচ্চ পর্যায়ের বৈঠকে উত্থাপন করবো। সেই সাথে সংশ্লিষ্ট দফতরে প্রতিবেদন জমা দেবো। আপনারা স্থল বন্দর স্থাপনের লক্ষ্যে যে চেষ্টা চালাচ্ছেন তা পূরণে আমার চেষ্টার কমতি থাকবে না।
বৃহস্পতিবার ভোমরা ও শুক্রবার বেনাপোল বন্দর পরিদর্শন করবেন হাই কমিশনার। দর্শনা স্থল বন্দর কার্যক্রমের মতবিনিময়সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন ভারতের কোলকাতায় নিযুক্ত হাইকমিশনার তৌফিক হাসান, কোলকাতার মিনিস্টার বিএম জামাল হোসেন, কোলকাতার প্রথম সচিব শামছুল আরিফ, নয়াদিল্লির কাউন্সিলর শাহেদ আজিম, চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রশাসক নজরুল ইসলাম সরকার, বিজিবি-৬ ব্যাটালিয়নের পরিচালক লেঃ কর্ণেল মোহাম্মদ খালেকুজ্জামান, পুলিশ সুপার জাহিদুল ইসলাম, চুয়াডাঙ্গা-৬ বিজিবির উপ-পরিচালক মেজর নিস্তার আহম্মেদ, দামুড়হুদা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা দিলারা রহমান, দর্শনা শুল্ক স্টেশনের ডেপুটি কমিশনার মো. শাফায়াত হোসেন, চুয়াডাঙ্গা চেম্বার অফ কমার্সের সভাপতি ইয়াকুব হোসেন মালিক, দর্শনা স্থল বন্দর বাস্তবায়ন কমিটির যুগ্মআহ্বায়ক সাংবাদিক রেজাউল করিম লিটন, আশরাফুল আলম উলুম, হাজি হারুন অর রশিদ, দর্শনা প্রেসক্লাবের সভাপতি মনিরুজ্জামান ধীরু, সাবেক সভাপতি হানিফ ম-ল, ইকরামুল হক পিপুল প্রমুখ। বিকেল ৪টার দিকে এইচ ই মুহাম্মদ ইমরানের নেতৃত্বে প্রতিনিধি দল ভারতের কোলকাতার উদ্দোশে জয়নগর চেকপোষ্ট ত্যাগ করেন। চুয়াডাঙ্গার দর্শনা ও ভারতের গেঁদে দিয়ে স্থলবন্দরের কর্যক্রম চলমান রয়েছে। এ বন্দর দিয়ে রেলপথে মালামাল আমদানি-রফতানি হয়। সড়ক পথে পাসপোর্টধারী যাত্রীরা ভ্রমন করেন। এখন এ স্থলবন্দর দিয়ে সড়ক পথে আমদানি-রফতানি চালুর ব্যাপারে দুই দেশের উচ্চ পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ কাজ করছেন।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More