দেশে জ্বালানি-খাদ্য-সার নিয়ে কোনো সঙ্কট হবে না

মেহেরপুরে বৃক্ষমেলা উদ্বোধনকালে জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন

মেহেরপুর অফিস: জ্বালানি, খাদ্য ও সার নিয়ে দেশে কোনো সঙ্কট তৈরি হবে না বলে জানিয়েছেন জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন। গতকাল বৃহস্পতিবার মেহেরপুরে বৃক্ষরোপণ অভিযান ও বৃক্ষমেলা ২০২২ এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে বক্তব্য প্রদানকালে তিনি এ কথা বলেন। প্রতিমন্ত্রী বলেন, যে কোনো জিনিসের আমদানির ক্ষেত্রে ছয় মাসের পরিকল্পনা নিয়ে এগোতে হয়। এর অধিক সময়ের মালামাল মজুতের কোনো জায়গা দেশে নেই। সার ও জ্বালানি প্রতিনিয়তই শিপে দেশে ঢুকছে। মজুতের পরিমাণও বাড়ছে। তাই মজুতেরও কোনো সঙ্কট হবে না। যেহেতু ছয় মাসের ধারণ ক্ষমতার বেশি জায়গা নেই তাই এর বেশি স্টোরও করা যাবে না। এতে দুশ্চিন্তার কোনো কারণ নেই। তবে বাড়তি দামে তেল বিদেশ থেকে কিনতে হচ্ছে। তাই অপচয় আমাদের কম করতে হবে। তিনি আরও বলেন, বৈশিষ্ণক সমস্যার কারণে প্রতিটি দেশ আজ আক্রান্ত। প্রতিটি দেশে লোডশেডিং শুরু হয়েছে। আমেরিকা, ইংল্যান্ড জাপানের নিজস্ব ব্যবস্থাপনায় তেল উৎপাদন করলেও তাদের দেশেও লোডশেডিং চলছে। আমারা যেহেতু তেল উৎপাদন করতে পারি না। তাই আমাদের বাড়তি সতর্ক থাকতে হবে।

জেলা প্রশাসক ড. মুহাম্মদ মুনসুর আলম খানের সভাপতিত্বে বৃক্ষরোপণ ও বৃক্ষমেলা উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন পুলিশ সুপার মো. রাফিউল আলম, সামাজিক বন বিভাগ কুষ্টিয়ার বিভাগীয় বন কর্মকর্তা জিএম মোহাম্মদ কবির, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এমএ খালেক। মন্ত্রী মেলার বিভিন্ন স্টল ঘুরে ঘুরে দেখেন। এসময় অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক লিংকন বিশ্বাস, গাংনী পৌরসভার মেয়র আহমেদ আলী, পিপি পল্লব ভট্টাচার্য, মেহেরপুর বঙ্গবন্ধু শিক্ষা ও গবেষণা পরিষদের সভাপতি প্রফেসর হাসানুজ্জামান মালেক, বন কর্মকর্তা জাফরুল্লাহ, মেহেরপুর ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স অফিসের স্টেশন মাস্টার আব্দুর রাজ্জাক প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। পরে মেহেরপুর জেলা প্রশাসন ও বন অধিদপ্তরের সামাজিক বনায়নের উপকার ভোগীদের মাঝে লভ্যাংশের চেক বিতরণ করা হয়। পরে একইস্থানে সামাজিক বনায়নের উপকার ভোগীদের মাঝে লভ্যাংশের চেক বিতরণ করা হয়। জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন প্রধান অতিথি থেকে ৬ জন উপকারভোগী প্রত্যেককে ৩৬ হাজার ৭৩২ টাকার করে চেক বিতরণ করেন। জেলা প্রশাসক ড. মুহাম্মদ মুনসুর আলম খানের সভাপতিত্বে চেক বিতরণ অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন পুলিশ সুপার মো. রাফিউল আলম, সামাজিক বন বিভাগ কুষ্টিয়ার বিভাগীয় বন কর্মকর্তা জিএম মোহাম্মদ কবীর।

এর আগে সকালে বৃক্ষরোপণ অভিযান ও বৃক্ষমেলা উপলক্ষে মেহেরপুরে র‌্যালি অনুষ্ঠিত হয়। মেহেরপুর জেলা প্রশাসন ও বন অধিদপ্তরের যৌথ উদ্যোগে অনুষ্ঠিত র‌্যালিতে স্থানীয় সরকার বিভাগের উপ-পরিচালক মৃধা মোহাম্মদ মোজাহিদুল ইসলামের নেতৃত্বে র‌্যালিটি মেহেরপুর জেলা প্রশাসকের কার্যালয় চত্বর থেকে শুরু করে প্রধান সড়ক ঘুরে একইস্থানে গিয়ে শেষ হয়। র‌্যালিতে অন্যান্যের মধ্যে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক লিংকন বিশ্বাস, সামাজিক বন বিভাগ কুষ্টিয়ার বিভাগীয় বন কর্মকর্তা জিএম মোহাম্মদ কবীর, মেহেরপুর বঙ্গবন্ধু শিক্ষা ও গবেষণা পরিষদের সভাপতি প্রফেসর হাসানুজ্জামান মালেক, বন কর্মকর্তা জাফরুল্লাহ মেহেরপুর ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স অফিসের স্টেশন মাস্টার আব্দুর রাজ্জাকসহ বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ অংশগ্রহণ করেন।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More