ধর্মীয় উৎসব শান্তিপূর্ণ পরিবেশে উদযাপনে সকলকে আন্তরিক হওয়া কর্তব্যেরই অংশ   

পবিত্র ঈদুল আজহা উদযাপন উপলক্ষে প্রস্তুতিমূলক সভায় চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আমিনুল ইসলাম খান

স্টাফ রিপোর্টার: ঈদ উদযাপনে উঠতি বয়সীদের কোনোপ্রকার উশৃৃঙ্খলা মেনে নেয়া হবে না। লাইসেন্স ছাড়া মোটরসাইকেল চালালে অবৈধ চালকের বিরুদ্ধেই শুধু নয়, মোটরসাইকেল আটকে রেখে অভিভাবকদের ডেকে ব্যবস্থা নেয়া হবে। ইসলাম ধর্মাবলম্বীদের দ্বিতীয় বৃহত্তম ধর্মীয় উৎসব পবিত্র ঈদুল আজহা উদযাপন যাতে শান্তিপূর্ণ হয় তা নিশ্চিত করতে হবে। এ লক্ষ্যে সকলকে আন্তরিক হওয়া প্রয়োজন। এটা কর্তব্যেরই অংশ। অভিভাবকদের সন্তানের প্রতি কর্তব্যপরায়নতা কাম্য।

                    আসন্ন ঈদুল আজহা উদযাপনের প্রস্তুতিমূলক সভার সভাপতি চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আমিনুল ইসলাম খান উপরোক্ত আহ্বান জানিয়ে বলেছেন, কোরবানির পশু জবাইয়ের পর যাবতীয় বর্জ্য দ্রুত অপসারণ করতে হবে। চুয়াডাঙ্গা পৌরসভার ওয়ার্ড ও মহল্লা ভিত্তিক নির্ধারিত স্থানে কোরবানির পশু জবাই করতে হবে। নিজ নিজ দায়িত্বে পরিবেশ পরিষ্কার করতে হবে। হাসপাতাল, জেলখানা, শিশু পরিবারে উন্নতমানের খাবার পরিবেশন করা হবে। ঈদগা ও মসজিদ কমিটি স্থানীয়ভাবে নামাজের সময় নির্ধারণ করে আগেই নিজ নিজ এলাকায় প্রচার করতে হবে। যাতে মসুল্লিরা নির্ধারিত সময়ের আগেই নামাজের স্থানে উপস্থিত হয়ে নামাজ আদায় করতে পারেন। সকাল ৭টায় অথবা সাড়ে ৭টায় প্রথম জামাত করতে পারলে কোরবানি দেয়ার পর যাবতীয় কার্যক্রম সকাল সকাল সম্পন্ন করা যাবে।

                    গতকাল বুধবার সকাল ১০টায় চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত সভায় অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) সাজিয়া আফরিন উপস্থাপনার দায়িত্ব পালন করেন। তিনি গত সভার কার্যবিবরনীর অংশ বিশেষ তুলে ধরেন। তারই আলোকে এবারও পবিত্র ঈদুল আজহা উদযাপনে প্রস্তুতি নেয়া হয়। পশুহাটগুলোতে আইন শৃঙ্খলা স্বাভাবিক রাখা ও জাল টাকাকারবারীসহ অজ্ঞানপাটির অপতৎপরতা রোধে পুলিশি তৎপরতা বৃদ্ধির অনুরোধ জানানো হয়। সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন চুয়াডাঙ্গা পুলিশ সুপারের প্রতিনিধি অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) আবু তারেক, জেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা, আরডিসি, ৪ উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তাগণ, আলমডাঙ্গা পৌর মেয়রসহ জেলার বিভিন্ন পেশাজীবী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ, ইসলামি ফাউন্ডেশনের উপ-পরিচালক, মার্কেটিং অফিসারসহ বিভিন্œ দফতরের প্রধানগণ উপস্থিত থেকে প্রস্তুতিমূলক সভায় অভিমত ব্যক্ত করেন। চুয়াডাঙ্গা প্রেসক্লাব সভাপতি সরদার আল আমিন পুলিশ প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষণ করে বলেন, শিশু কিশোরসহ যারা বেপরোয়া মোটরসাইকেল চালায় তাদের কারণে দুর্ঘটনা বহুলাংশে বৃদ্ধি পায়। এদিকে বিশেষ নজর দেয়া দরকার। সভায় উপস্থিত অনেকেই এ অভিমতের সাথে একমত পোষণ করেন। চুয়াডাঙ্গা জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি হাজি অ্যাড. সেলিম উদ্দীন খান বলেন, অনেকেই কোরবানির বর্জ্য পৌরসড়কের ঢাকনাবিহীন ড্রেনে ফেলে পরিবেশ আরও ভয়াবহ করে তোলে। এ বিষয়েও প্রচার প্রচারণা প্রয়োজন।

                    উল্লেখ্য, আজ ৩০ জুন বৃহস্পতিবার চাঁদ দেখা কমিটি বৈঠকে বসছে। আজ চাঁদ দেখা গেলে আগামী ১০ জুলাই পবিত্র ঈদুল আজহা উদযাপন হবে।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More