পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষায় গাছের কোনো বিকল্প নেই

চুয়াডাঙ্গায় সপ্তাহব্যাপী বৃক্ষমেলা উদ্বোধনকালে ছেলুন জোয়ার্দ্দার এমপি

স্টাফ রিপোর্টার: ভবিষ্যৎ প্রজন্মকে সুন্দরভাবে বাঁচতে হলে বৃক্ষ নিধন না করে আরও বেশি করে বৃক্ষরোপণ করার আহবান জানিয়ে এমপি ছেলুন জোয়ার্দ্দার বলেছেন, আমাদের সন্তানদের উজ্জ্বল ভবিষ্যতের জন্য গ্রিন বাংলাদেশ উপহার দিতে পারবো। প্রধান অতিথি ছিলেন চুয়াডাঙ্গা-১ আসনের সংসদ সদস্য জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা সোলায়মান হক জোয়ার্দ্দার ছেলুন। প্রাকৃতিক বিপর্যয় প্রতিরোধে বৃক্ষের প্রয়োজনীয়তা অনস্বীকার্য। মানব সৃষ্ট কর্মকা-ের বিরূপ প্রভাবে বৈশ্বিক উষ্ণতা বৃদ্ধি পাচ্ছে। তাই জলবায়ুর পরিবর্তনের প্রভাবে দেশে ঘূর্ণিঝড়, জলোচ্ছ্বাস, বন্যা ও খরার মতো প্রাকৃতিক দুর্যোগ প্রতিনিয়ত বেড়ে চলেছে। তিনি গতকাল শুক্রবার চুয়াডাঙ্গায় সপ্তাহব্যাপী বৃক্ষরোপণ অভিযান ও বৃক্ষমেলা-২০২২ এর উদ্বোধনকালে এ কথা বলেন। তিনি আরও বলেন, পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষায় গাছের কোনো বিকল্প নেই। জলবায়ুর বিরুপ প্রভাব থেকে রক্ষা পেতে হলে সবাইকে গাছ লাগাতে হবে। এমপি ছেলুন জোয়ার্দ্দার বলেন, আমি একজন মুক্তিযোদ্ধা আমি এ দেশকে ভালোবাসি। এছাড়াও আমরা এমন একজন প্রধানমন্ত্রী পেয়েছি যিনি সব সময় জনকল্যাণের কাজ করে থাকেন। বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়ার যে স্বপ্ন দেখেছিলেন সেই স্বপ্নকে বাস্তবায়িত করছেন প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা। তিনি সবার উদ্দেশ্যে বলেন, আপনারা বেশি বেশি করে বৃক্ষরোপণ করেন। তাহলে আমাদের দেশ বাঁচবে আমরা অক্সিজেন বেশি বেশি পাবো। দেশে বৃষ্টিপাত বেশি হবে। আপনারা দেখছেন একটা দেশের বনভূমির পরিমাণ যদি কমে যায় তাহলে সেই রাষ্ট্রে বিভিন্ন অনাকাক্সিক্ষত ঘটনা ঘটে।

আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, চুয়াডাঙ্গার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) আবু তারেক, চুয়াডাঙ্গার অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) সাজিয়া আফরীন, জেলা পরিষদের ভারপ্রাপ্ত প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মিজানুর রহমান, জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক বিভাস চন্দ্র সাহা, আরডিসি শেখ মো. রাসেল, চুয়াডাঙ্গা সরকারি কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ সিদ্দিকুর রহমান, চুয়াডাঙ্গা আর্দশ সরকারি মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ ইসরাফিল আহমেদ, চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান গরিব রুহানি মাসুম প্রমুখ। অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট হাবিবুর রহমান। চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলা পরিষদ চত্বরে অনুষ্ঠিতব্য এ মেলা আগামী ৩ আগস্ট পর্যন্ত চলবে। তারপর প্রধান অতিথি শিক্ষার্থীদের মাঝে গাছের চারা বিতরণ করেন এবং নিজ হাতে চারা রোপণ করেন। মেলায় দেশি-বিদেশি বিভিন্ন প্রজাতির ফলজ, বনজ ও ওষধি গাছের ১৪টি স্টল রয়েছে। প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত মেলা সবার জন্য উন্মুক্ত থাকবে।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More