মানুষের ন্যায় বিচার পাওয়ার জন্য সরকার কাজ করছে

চুয়াডাঙ্গা-মেহেরপুরে জাতীয় আইনগত সহায়তা দিবসের আলোচনাসভায় বক্তারা

স্টাফ রিপোর্টার: ‘বিনা খরচে নিন আইনি সহায়তা, শেখ হাসিনার সরকার দিচ্ছে এই নিশ্চয়তা’ এ শ্লোগানে জাতীয় আইনগত সহায়তা দিবস-২০২২ উপলক্ষে নানা কর্মসূচি পালিত হয়েছে। দিবসটি উপলক্ষে গতকাল বৃহস্পতিবার চুয়াডাঙ্গা ও মেহেরপুরে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা, আলোচনাসভা ও সম্মাননা ক্রেস্ট প্রদান করা হয়। আলোচনাসভায় বক্তারা বলেন, সারাদেশে জাতীয় আইনগত সহায়তা দিবস উৎসব হিসেবে পালিত হচ্ছে। সংবিধানে ন্যায় বিচার পাওয়ার অধিকারের কথা বলা হয়েছে। মানুষের ন্যায় বিচার পাওয়ার জন্য সরকার কাজ করছে। কাউকে পেছনে ফেলে উন্নয়ন সম্ভব নয়। জেলার সবচেয়ে গরীব দুস্থ মানুষকে সেবার আওতায় আনা হচ্ছে। লিগ্যাল এইডের কাজগুলো ভালোভাবে চলছে। শ্রেষ্ঠ আইনজীবীদের অভিনন্দন ও ধন্যবাদ জানাচ্ছি। কেউ যেনো লিগ্যাল এইডের বাইরে না থাকে। বিনামূল্যে সাধারণ মানুষ সেবা পায়। সরকার সেই লক্ষ্যে কাজ করছে। ভূমিহীনদের ঘর দিচ্ছে। বন্দিদের শাড়ি-লুঙ্গি দিচ্ছে। অসহায় ও গরীব মানুষদের প্রতি যেনো আমরা সহৃদয় দৃষ্টি দিই। তাদের জন্য কাজ করি। সকল নাগরিক যেনো ন্যায় বিচার পায়। বক্তারা আরও বলেন, প্রচারে প্রসার। সকল মানুষের দ্বারে দ্বারে সেবা পৌঁছিয়ে দিতে চাই। কেউ যদি বলে সেবা পায়নি, তাহলে সেবা ভূলন্ঠিত হবে। আস্থার সংকট দূর করতে হবে।

চুয়াডাঙ্গায় সকাল ৯টায় জেলা জজ আদালত চত্বরে বেলুন উড়িয়ে দিবসের কর্মসূচি শুরু হয়। এরপর বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা বের হয়ে শহীদ হাসান চত্বর ঘুরে জেলা জজ আদালতে এসে শোভাযাত্রা শেষ হয়। শোভাযাত্রায় জেলা ও দায়রা জজ মো. জিয়া হায়দার, জেলা প্রশাসক আমিনুল ইসলাম খান এবং আদালতের বিচারকবৃন্দ ও জেলা আইনজীবী সমিতির নেতৃবৃন্দরা উপস্থিত ছিলেন। বিকেল ৪টায় জেলা আইনজীবী সমিতি মিলনায়তনে জাতীয় আইনগত সহায়তা দিবস উপলক্ষে আলোচনাসভা অনুষ্ঠিত হয়। জেলা ও দায়রা জজ মো. জিয়া হায়দারের সভাপতিত্বে আলোচনাসভায় জেলা প্রশাসক ও জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আমিনুল ইসলাম খান, পুলিশ সুপার জাহিদুল ইসলাম, ভারপ্রাপ্ত চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট লস্কার সোহেল রানা, জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি সেলিম উদ্দিন খান, আশরাফুল ইসলাম খোকন (সরকারি কৌশুলী), বেলাল হোসেন (পিপি), জেলা বারের সেক্রেটারি তালিম হোসেন, কামরুল আরেফিন, আব্দুল্লাহ আল মামুন এরশাদ ও সুফলভোগী কামরুন নাহার মুক্তা বক্তব্য রাখেন। আলোচনাসভায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন জেলা ও দায়রা জজ মো. জিয়া হায়দার। জেলা লিগ্যাল এইড অফিসার সিনিয়র সহকারী জজ মো. সাইফুদ্দীন হোসাইন আলোচনাসভা সঞ্চালনা করেন। এসময় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্র্যাইব্যুনালের বিচারক (জেলা জজ) মুসরাত জেরিন, জেলা জজ আদালত ও চিফ জুডিসিয়াল ম্যােিজস্ট্রেট আদালতের বিচারকবৃন্দ, জেলা আইনজীবী সমিতির সদস্যবৃন্দ এবং জজশীপের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা উপস্থিত ছিলেন। আলোচনা সভায় লিগ্যাল এইডের প্যানেল আইনজীবী কামরুল আরেফিন, আব্দুল্লাহ আল মামুন এবং আফরোজা আকতারকে শ্রেষ্ঠ প্যানেল আইনজীবী হিসেবে ক্রেস্ট প্রদান করা হয়। চুয়াডাঙ্গায় ৪২ জন আইনজীবী ২ হাজার ১৯০টি মামলা পরিচালনা করছেন। ২৫ হাজার মামলা রয়েছে চুয়াডাঙ্গায়। প্যানেল আইনজীবীরা আস্থা আনতে পারে তাহলে আমাদের অনুষ্ঠানের সফলতা আসবে।

মেহেরপুর অফিস জানিয়েছে, জাতীয় আইনগত সহায়তা দিবস উপলক্ষে মেহেরপুরে আলোচনা সভা ও র‌্যালির আয়োজন করা হয়। জাতীয় আইনগত সহায়তা প্রদান সংস্থা ও জেলা লিগ্যাল এইড কমিটির উদ্যোগে বৃহস্পতিবার সকালের দিকে মেহেরপুর জেলা জজ কোর্ট প্রাঙ্গণে এ আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। মেহেরপুর জেলা ও দায়রা জজ মো. ওয়ালিউল ইসলামের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন জেলা প্রশাসক ড. মুহাম্মদ মুনসুর আলম খান, পুলিশ সুপার মো. রাফিউল আলম, চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট শিরিন নাহার, পিপি পল্লব ভট্টাচার্য প্রমুখ।

অপরদিকে, মেহেরপুর সদর উপজেলা লিগ্যাল এইড কমিটি এবং লাইট হাউসের উদ্যোগে জাতীয় আইনগত সহায়তা দিবস উপলক্ষে আলোচনাসভা ও র‌্যালির আয়োজন করা হয়। বৃহস্পতিবার দুপুরের দিকে মেহেরপুর সদর উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে এ আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। মেহেরপুর সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অ্যাড. ইয়ারুল ইসলামের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার আসাদুজ্জামান রিপন, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার আনোয়ার হোসেন, কৃষি অফিসার নাসরিন সুলতানা প্রমুখ।

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি জানিয়েছেন, ঝিনাইদহে জাতীয় আইনগত সহায়তা দিবস পালিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকালে জেলা জজ আদালতের সামনে থেকে দিবসটি উপলক্ষে জেলা লিগ্যাল এইড কমিটির উদ্যোগে একটি র‌্যালি বের করা হয়। বিভিন্ন সড়ক ঘুরে বার ভবনের সামনে এসে র‌্যালিটি শেষ হয়। পরে সেখানে অনুষ্ঠিত হয় আলোচনাসভা। আলোচনাসভায় অংশ নেন জেলা ও দায়রা জজ মো. নাজিমুদ্দৌলা, জেলা প্রশাসক মনিরা বেগম, পুলিশ সুপার মুনতাসিরুল ইসলাম প্রমুখ।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More