মাস্ক পরলে ফুল, না পরলে জরমিানা

করোনাভাইরাসরে প্রার্দুভাব ঠকোতে সংক্রমণরে শুরু থকেইে মাঠ র্পযায়ে কাজ করে আসছে চুয়াডাঙ্গা প্রশাসন। মাঠ র্পযায়ে কাজ করতে গয়িে করোনায় আক্রান্ত হয়ছেনে প্রশাসনরে র্কমর্কতারা। তবুও থমেে থাকনে নি তারা।লকডাউন শতভাগ নশ্চিতি করতে দনিরাত কাজ করছেনে জলো প্রশাসন ও উপজলো প্রশাসনরে র্কমর্কতারা। শতভাগ লকডাউন নশ্চিতি করতে জীবনরে ঝুঁকি নয়িছেনে তারা। কোভডি-১৯ এর সংক্রমণরোধে জনসচতেনতা বৃদ্ধি করতে নয়িমতি প্রচার প্রচারণার পাশাপশি করছেনে মাস্ক বতিরণ। দয়িছেনে ত্রাণ। বসে থাকনেি পুলশিও।
এই শীত মৌসুমে কোভডি-১৯ সংক্রমণরে সম্ভাব্য দ্বতিীয় ঢউে মোকাবলিায় মাস্ক পরধিান ও স্বাস্থ্যবধিি প্রতপিালন নশ্চিতি করতে সচতেনতামূলক ক্যাম্পইেন শুরু হয়ছেে চুয়াডাঙ্গায়। স্বাস্থ্য সুরক্ষার সরঞ্জাম মাস্ক ও সচতেনতামূলক লফিলটে বতিরণ করা হয় ক্যাম্পইেন।ে
আজ বৃহস্পতবিার দুপুরে র্দশনা বাসস্ট্যান্ডে ওই র্কাযক্রম শুরু করে দামুড়হুদা উপজলো প্রশাসন। এসময় মাস্ক পরহিতি পথচারীদরে গোলাপ ফুল দয়িে শুভচ্ছো জানান দামুড়হুদা উপজলো নর্বিাহী র্কমর্কতা (ইউএনও) দলিারা রহমান। স্বাস্থ্যবধিি মানায় তাদরে উৎসাহতি করতে ওই পদক্ষপে বলে জানান তনি।ি তনিি আরও জানান, সরকারি নর্দিশেনা অনুযায়ী করোনার দ্বতিীয় ঢউে মোকাবলিায় মাঠ র্পযায়ে কাজ করে যাচ্ছে প্রশাসন। নয়িমতি ক্যাম্পইেনরে মাধ্যমে মানুষকে সচতেন করা হচ্ছ।ে বতিরণ করা হচ্ছে মাস্ক। যারা স্বাস্থ্যবধিি মানছনে না, তাদরেকে ভ্রাম্যমাণ আদালতে করা হচ্ছে জরমিানা। ওই র্কাযক্রম অব্যাহত থাকবে বলওে জানান তনি।ি
সচতেনতামূলক ক্যাম্পইেন চলাকালীন স্বাস্থ্যবধিি অমান্য, মোটরসাইকলেরে ড্রাইভংি লাইসন্সে না থাকা ও হলেমটে পরধিান না করার অপরাধে ২৪ জনকে ২ হাজার ৯০০ টাকা জরমিানা করা হয় ভ্রাম্যমাণ আদালত।ে সর্তকতার পাশাপাশি বতিরণ করা হয় স্বাস্থ্য সুরক্ষা সরঞ্জাম মাস্ক ও লফিলটে। যানবাহন ও দোকানে লাগানো হয় ‘নো মাস্ক, নো র্সাভসি’ ‘নো মাস্ক, নো শপংি’ লখো সংবলতি স্টকিার।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More