মা মারা যাওয়ার ৭ দিন পর করোনায় মেয়ের মৃত্যু

কালীগঞ্জ প্রতিনিধি: ঝিনাইদহের কালীগঞ্জে করোনায় আক্রান্ত হয়ে সালমা আক্তার মুন্নি (৩০) নামের এক যুবতীর মৃত্যু হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার সকালে রাজধানীল কুর্মিটোলা হাসপাতালের চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান তিনি। মুন্নি কালীগঞ্জ উপজেলার ঝনঝনিয়া গ্রামের আব্দুল হামিদ বিশ্বাসের মেয়ে।
মুন্নির চাচাতো ভাই সাবেক ইউপি সদস্য জাকির হোসেন জানান, ২০ দিন আগে শ্বাসকষ্ট শুরু হয় মুন্নির। গত সপ্তাহে তাকে যশোর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে ঢাকায় রেফার্ড করেন চিকিৎসক। যশোর থেকে মুন্নিকে রাজধানীর কুর্মিটোলা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে করোনা চেকআপ করলে তার করোনা পজেটিভ আসে। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় গতকাল মঙ্গলবার সকালে তার মৃত্যু হয়। জাকির হোসেন আরও জানান, গত ৩১ মার্চ মুন্নির মা ময়না বেগম ঢাকাতে মারা যান। করোনা আক্রান্ত মেয়ে মুন্নির সাথে ঢাকাতে গিয়েছিলেন তিনিও। তবে কি কারণে তার মা মারা যান তা বলতে পারেননি তিনি। বিষয়টি নিশ্চিত করে কালীগঞ্জের কাস্টভাঙ্গা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আইয়ুব হোসেন বলেন, মুন্নির লাশ ঢাকা থেকে গ্রামে আনা হচ্ছে। মুন্নি যশোর এমএম কলেজ থেকে মাস্টার্স শেষ করে চাকরির জন্য পড়াশোনা করছিলো।
বারবাজার পুলিশ ক্যাম্পের আইসি এসআই মকলেচ উজ্জামান জানান, আমরা ধারণা করছি করোনা আক্রান্ত মেয়ের সাথে মা ঢাকাতে যাওয়ার কারণে মা ময়না বেগমও করোনা আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হতে পারে। তবে আমরা সকল প্রকার স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার জন্য সকলকে অনুরোধ করে যাচ্ছি।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More