মেহেরপুরে একদিনে নতুন ৩৫ জন করোনা আক্রান্ত : মারা গেছেন ২ জন

প্রশাসনের গণসচেতনতা ও প্রচারণা অব্যাহত : সচেতন মানুষের মাঝে বাড়ছে উদ্বেগ আর উৎকন্ঠা
মেহেরপুর অফিস: মেহেরপুরে প্রতিদিন লাফিয়ে লাফিয়ে করোনা রোগীর সংখ্যা বেড়েই চলেছে। সাথে বাড়ছে মৃত্যু। একই সাথে সচেতন মানুষের মাঝে বাড়ছে উদ্বেগ আর উৎকন্ঠা। গত ২৪ ঘণ্টায় মেহেরপুর জেলায় মারা গেছেন আরো ২ জন করোনা রোগী এবং নতুন করে ৩৫ জন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। এরপরও অনেকের মাঝে নেই কোনো দুঃচিন্তা। তাই জেলা প্রশাসন ও পুলিশ প্রশাসন প্রতিনিয়ত জনসচেনতা বৃদ্ধির জন্য প্রচার-প্রচারণা চালাচ্ছেন। বিতরণ করছেন সুরক্ষা সামগ্রী।
একদিনে মেহেরপুর জেলায় দুজন করোনা রোগী মারা গেছেন। এদের একজন গাংনী ও অপরজন মুজিবনগর উপজেলার বাসিন্দা। একই সাথে নতুন করে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ৩৫ জন। এদের মধ্যে সদর উপজেলার ১৯ জন, গাংনী উপজেলার ১৫ জন ও মুজিবনগর উপজেলার বাসিন্দা একজন। এ নিয়ে বর্তমানে জেলায় মোট করোনা ভাইরাস আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ৩৩৫ জন। নতুন দুজনসহ করোনা আক্রান্ত রোগীর মৃত্যুর সংখ্যা ৩৫ জন। গতকাল মঙ্গলবার রাতে সিভিল সার্জন ডা. মো. নাসির উদ্দিন এ তথ্য নিশ্চিত করেন।
মেহেরপুর সিভিল সার্জন অফিস আরো জানায়, গতকাল মঙ্গলবার ভোরের দিকে গাংনী উপজেলার গাড়াডোব গ্রামের বাসিন্দা কুরবান আলী (৬৫) এবং মুজিবনগর উপজেলার আনন্দবাস গ্রামের বাসিন্দা আশরাফ আলী (৬৫) নামের দুই ব্যক্তি মৃত্যুবরণ করেন। এক সপ্তাহ পূর্বে ওই দুই ব্যক্তি করোনায় আক্রান্ত হয়ে মেহেরপুর ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি হন। এদিকে গতকাল রাতে কুষ্টিয়া থেকে ৮৫ টি নমুনা পরীক্ষা শেষে সবগুলো রিপোর্ট মেহেরপুরে এসে পৌঁছে। এর মধ্যে ৩৫ জন করোনা রোগী চিহ্নিত হয়েছেন। বর্তমানে চিকিৎসাধীন ৩৩৫ জন করোনা রোগীর মধ্যে সদর উপজেলায় ১২৮ জন, গাংনী উপজেলায় ১২৭ জন ও মুজিবনগর উপজেলায় ৮০ জন রয়েছেন। এছাড়া ট্রান্সফার্ড হয়েছেন ১০৪ জন। এদের মধ্যে সদর উপজেলার ৬৩ জন, গাংনী উপজেলার ১৭ জন ও মুজিবনগর উপজেলার ২৪ জন রয়েছেন। এ পর্যন্ত এক হাজার ১৭ জন সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন। যার মধ্যে সদর উপজেলায় ৫৬৫ জন, গাংনী উপজেলায় ৩৩১ জন ও মুজিবনগর উপজেলায় ১২১ জন রয়েছেন। এ ছাড়া নতুন দুজনসহ এ পর্যন্ত মারা গেছেন ৩৫ জন। যার মধ্যে সদর উপজেলায় ১৩ জন, গাংনী উপজেলার ১৪ জন ও মুজিবনগর উপজেলার ৮ জন রয়েছেন।
এদিকে করোনা ভাইরাসের দ্বিতীয় দফায় উদ্বেগজনক হারে সংক্রমণের পরিপ্রেক্ষিতে মেহেরপুর জেলা প্রশাসন ও পুলিশ প্রশাসনের গণসচেতনতা ও প্রচারণা অব্যাহত রয়েছে। ‘মাস্ক পরার অভ্যাস, করোনামুক্ত বাংলাদেশ’ সেøাগানকে সামনে রেখে মেহেরপুর পুলিশের উদ্যোগে সাধারণ মানুষের মধ্যে শতভাগ মাস্ক ব্যবহার নিশ্চিতকরণে সচেতনতামূলক কার্যক্রমসহ জনসাধারণের মাঝে মাস্ক বিতরণ করা হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার দুপুরের দিকে মেহেরপুর পুলিশের একটি দল মেহেরপুর শহরের হোটেল বাজার মোড় এবং পুরাতন বাসস্ট্যান্ড এলাকায় জনসচেতনতামূলক প্রচারণা চালান। অযাথা ঘরের বাইরে বের না হওয়ার জন্য পুলিশের পক্ষ থেকে আহ্বান জানানো হয়। একইসাথে সকলকে মাস্ক ব্যবহার করার জন্য আহ্বান জানানো হয়।
এদিকে মেহেরপুর জেলা পরিষদের উদ্যোগে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে মেহেরপুরের জনসাধারণের মাঝে সুরক্ষা সামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে। সুরক্ষা সামগ্রীর মধ্যে রয়েছে মাস্ক, হ্যান্ডওয়াস, হ্যান্ড স্যানিটাইজার ও সাবান।
গতকাল মঙ্গলবার বিকালে দিকে মেহেরপুর জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান হাজি মো. গোলাম রসুল উপস্থিত থেকে মাস্ক, হ্যান্ডওয়াস, হ্যান্ড স্যানিটাইজার ও সাবান বিতরণ করেন। জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান হাজি গোলাম রসুল এ সময় বলেন, জনসাধারণকে করোরাভাইরাস সম্পর্কে সচেতনতা সৃষ্টি এবং মাস্ক ব্যবহারে উদ্বুদ্ধ করা ও অনুপ্রেরণা যোগাতেই মেহেরপুর জেলা পরিষদের এই কর্মসূচি।

 

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More