মোহাম্মদ শাহজাহানের অবদান জাতি দীর্ঘদিন ধরে মনে রাখবে

চুয়াডাঙ্গায় মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক মোহাম্মদ শাহজাহানের ৩০তম স্মরণসভায় বক্তারা

স্টাফ রিপোর্টার: চুয়াডাঙ্গায় মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক মোহাম্মদ শাহজাহানের ৩০তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে স্মরণসভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। মোহাম্মদ শাহজাহান স্মৃতি সংসদের উদ্যোগে গতকাল শনিবার বিকেলে চুয়াডাঙ্গা প্রেসক্লাব মিলনায়তনে এ স্মরণসভার আয়োজন করা হয়। এ সময় রাজিব আহমেদ সম্পাদিত ‘মোহাম্মদ শাহজাহান, জীবন ও কর্ম’ স্মারক গ্রন্থের মোড়ক উম্মোচন করা হয়। মোহাম্মদ শাহজাহান স্মৃতি সংসদের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল মাবুদ জোয়ার্দ্দারের সভাপতিত্বে স্মরণসভায় কৃতিজনকে বক্তারা বিশেষভাবে স্মরণ করেন। স্মৃতি সংসদের সম্পাদক অধ্যাপক শেখ সেলিমের সঞ্চালনায় স্মরণসভায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন মরহুমের সহোদর জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের (জেএসডি) কেন্দ্রীয় নেতা তৌহিদ হোসেন। তৌহিদ হোসেন এ সময় বলেন, বাংলাদেশের শ্রমিক রাজনীতির দিকপাল হিসেবে জাতীয় ও আন্তর্জাতিকভাবে মোহাম্মদ শাহজাহান খ্যাতি অর্জন করেছেন। বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের প্রয়োজনীয়তা ও সহযোগিতার জন্য বিশ্বে নতুন নতুন বন্ধু তৈরি করেছেন। স্মরণসভায় চুয়াডাঙ্গা প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি মাহতাব উদ্দিন বলেন, মোহাম্মদ শাহজাহান ৫২ভাষা আন্দোলনে চুয়ডাঙ্গায় নেতৃত্ব দিয়েছেন। চুয়াডাঙ্গা সরকারি কলেজের বাংলা বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক মুন্সি আবু সাইফ বলেন, জাতীয়ভাবে নেতৃত্ব দেয়ার ক্ষেত্রে মোহাম্মদ শাহজাহান অনেক বড় মাপের নেতা ছিলেন। বাংলাদেশ সাংবাদিক সমিতি চুয়াডাঙ্গা ইউনিটের সভাপতি নাজমুল হক স্বপন বলেন, প্রশাসন বিকেন্দ্রীকরণ বিষয়ে তিনি অগ্রণী ভূমিকা পালন করেন। চুয়াডাঙ্গা প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক রাজীব হাসান কচি বলেন, স্বাধীনতা সংগ্রামে বিশ্বে জনমত গঠনে মোহাম্মদ শাহজাহান অগ্রণী ভূমিকা পালন করেন। রাজনীতিক ও সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব সরদার আলী হোসেন বলেন, মোহাম্মদ শাহজাহান একজন ভালো মানের সাহিত্যিক ছিলেন। দেশের বরেণ্য কবি সাহিত্যিকদের সাথে তার ওঠা-বসা ছিলো। চুয়াডাঙ্গা সাহিত্য পরিষদের সাবেক সভাপতি ইকবাল আতাহার তাজ বলেন, জাতীয় নেতা হিসেবে মোহাম্মদ শাহজাহান মুক্তিযুদ্ধের পক্ষে কাজ করেছেন। অ্যাডভোকেট বজলুর রহমান বলেন, মোহাম্মদ শাহজাহান ছিলেন মাটি ও মানুষের নেতা। শ্রমিক রাজ যিনি কায়েম করতে পারেন, তিনি অবশ্যই নিবেদিত নেতা। বীর মুক্তিযোদ্ধা তোফাজ্জেল হক বলেন, মোহাম্মদ শাহজাহান ছিলেন অস্থিমজ্জায় বাঙ্গালী নেতা। এ সময় অন্যান্যের মধ্যে বীর মুক্তিযোদ্ধা হাফিজ উদ্দিন বাবু, বিশিষ্ঠ সমাজসেবক ও ব্যবসায়ী আব্দুল্লা শেখ বক্তব্য রাখেন। আলোচনা শেষে মরহুমের আত্মার শান্তি কামনায় পুরাতন বাজার জামে মসজিদের পেশ ইমাম জসিম উদ্দিন দোয়া পরিচালনা করেন। সবশেষে রাজিব আহমেদ সম্পাদিত ‘মোহাম্মদ শাহজাহান, জীবন ও কর্ম’ শীর্ষক স্মারকগ্রন্থের মোড়ক উম্মোচন করা হয়। ১০জন বীর মুক্তিযোদ্ধা বইটির মোড়ক উম্মোচন করেন।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More