রোজা শেষে এল খুশির ঈদ

 

স্টাফরিপোর্টার:
দীর্ঘ এক মাস সিয়াম সাধনার পর সোমবার (২৫ মে) সারা দেশে উদ্‌যাপিত হচ্ছে পবিত্র ঈদুল ফিতর। মাস সিয়াম সাধণ বা সংযম সাধনার পর ঈদ আসে খুশির বারতা নিয়ে।। ঈদুল ফিতর মুসলমানদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব। তবে এবার উৎসবে রয়েছে নানা বিধি নিষেধ। কারণ, নোভেল করোনাভাইরাস। একই কারণে কোলাকুলিও করা থেকে বিরত থাকার অনুরোধ জানানো হয়েছে।
সৌদি আরবসহ মধ্যপ্রাচ্যে ও ইউরোপ, আমেরিকার অনেক দেশেই রোববার ঈদুল ফিতর উদ্‌যাপন করা হয়েছে।
তবে করোনাভাইরাসের কারণে এবার ঈদ অনেকটাই ভিন্নভাবে উদ্‌যাপন করা হচ্ছে। অন্যান্য বারের মতো এবার বাস, ট্রেন বা লঞ্চ টার্মিনালের ছিল না মানুষের ভিড়। গণপরিবহন বন্ধ থাকায় সাধারণ মানুষের বড় অংশ বাড়ি যেতে পারেননি। বিপণিবিতানেও বেচাকেনার কম হয়েছে। চুয়াডাঙ্গা জেলা শহরের বিপনি বিতানগুলোর মধ্যে কিছু দোকানের অংশ বিশেষ খুলে বেচা-কিনা করা হয়েছে। তবে সন্ধ্যার পর দোকান খুলে বেশ ভালোই বেচা বিক্রির দৃশ্য চোখে পড়েছে।
ঈদ উপলক্ষে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। রোববার সন্ধ্যায় ঈদ উপলক্ষে জাতির উদ্দেশে দেওয়া এক ভাষণে প্রধানমন্ত্রী দেশবাসীকে ঘরে থেকে ঈদ উদ্‌যাপনের আহ্বান জানান। এদিকে করোনাভাইরাসের কারণে জাতীয় ঈদগাহসহ বা উন্মুক্ত স্থানে ঈদুল ফিতরের নামাজের জামাত অনুষ্ঠিত হবে না। এই ক্ষেত্রে মুসল্লিরা জীবনের ঝুঁকি বিবেচনা করে ঈদের নামাজের জামাত খোলা জায়গার পরিবর্তে কাছের মসজিদে পড়তে পারবেন। শারীরিক দূরত্ব বজায় রাখতে প্রয়োজনে একই মসজিদে একাধিক জামাতের ব্যবস্থা করা যেতে পারে। মসজিদে নয়, ঈদ গা ময়দানেই নামাজ পড়াতে হবে বলে দাবি তুলে চুয়াডাঙ্গা জেলা সদরের ফুলবাড়িয়ায় উত্তেজনা দানা বেধেছে। পুলিশি হস্তক্ষেপে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ হলেও একজনকে থানায় আটকে রাখার কারণে গ্রামে চাপা উত্তেজনা বিরাজ করছে।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More