শিশুদের সুন্দর ভবিষ্যত গড়ার অঙ্গীকার

চুয়াডাঙ্গা-মেহেরপুরে বঙ্গবন্ধুর জন্মবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস উদযাপন

স্টাফ রিপোর্টার:

গভীর শ্রদ্ধা ও যথাযোগ্য মর্যাদায় নানা আয়োজনের মধ্যদিয়ে স্বাধীনতার মহানায়ক সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ১০২তম বার্ষিকী পালিত হয়েছে। দিবসটি উপলক্ষে চুয়াডাঙ্গা ও মেহেরপুরসহ সারাদেশে নানা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছিলো। এদিন একই সঙ্গে পালিত হয়েছে জাতীয় শিশু দিবস-২০২২। দিবসটি উপলক্ষে দেশের সব সরকারি, আধা-সরকারি, স্বায়ত্তশাসিত ও বেসরকারি প্রতিষ্ঠান এবং শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানসহ বিভিন্ন ভবন এবং বিদেশে বাংলাদেশ মিশনগুলোতে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করা হয়। মসজিদ, মন্দির, প্যাগোডা, গির্জাসহ সব ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানে অনুষ্ঠিত হয় বিশেষ প্রার্থনা কর্মস‚চি।

এদিকে, দেশের শিশুদের জন্য একটি সুন্দর ভবিষ্যৎ নিশ্চিত করার অঙ্গীকার ব্যক্ত করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, আমরা শিশুদের জন্য একটি সুন্দর ভবিষ্যৎ গড়তে চাই। আমি এ লক্ষ্যে দীর্ঘমেয়াদী পরিকল্পনাও প্রণয়ন করেছি। গতকাল বৃহস্পতিবার জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ১০২তম জন্মবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস-২০২২ উপলক্ষে গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় বঙ্গবন্ধু সমাধিসৌধ কমপ্লেক্সে ‘টুঙ্গিপাড়া: হৃদয়ে পিতৃভ‚মি’ শীর্ষক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী। শেখ হাসিনা বলেন, বাংলাদেশ আজ উন্নয়নশীল দেশের মর্যাদা পেয়েছে। আমরা অবশ্যই বাংলাদেশকে উন্নত ও সমৃদ্ধ সোনার বাংলায় পরিণত করবো। এটা আমাদের অঙ্গীকার। এ পরিপ্রেক্ষিতে তিনি তার সরকারের রূপকল্প-২০৪১ এবং ডেল্টা প্ল্যান-২১০০ তুলে ধরে বলেন, ২১০০ সাল নাগাদ এই বাংলাদেশ কীভাবে গড়ে উঠবে আমি সে বিষয়ে একটি পরিকল্পনা তৈরি করেছি। শিশুদের ভবিষ্যৎ উজ্জ্বল ও সুন্দর করার লক্ষ্যে তার সরকারের পরিকল্পনা উল্লেখ করে সরকার প্রধান বলেন, ‘আমাদের লক্ষ্য হলো আমাদের শিশুরা নিরাপদে থাকবে এবং সুন্দর জীবন পাবে।’ এ বছর ‘বঙ্গবন্ধুর জন্মদিনের অঙ্গীকার, সকল শিশুর সমান অধিকার’- প্রতিপাদ্য নিয়ে পালিত হচ্ছে জাতীয় শিশু দিবস। এর আগে জাতীয় সংগীতের মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠান শুরু হয় এবং এরপর ‘মুজিব বর্ষ’ থিম সং ‘টুঙ্গিপাড়া: হৃদয়ে পিতৃভ‚মি’ শীর্ষক একটি অডিও-ভিজ্যুয়াল উপস্থাপনা প্রদর্শিত হয়।

চুয়াডাঙ্গায় গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ৬টায় দলীয় কার্যালয়ে জেলা আওয়ামী আওয়ামী লীগের সভাপতি সোলায়মান হক জোয়ার্দ্দার ছেলুন এমপি শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন করেন। এরপর সকাল ৯টায় জেলা প্রশাসক কার্যালয় চত্বরে জেলা প্রশাসক আমিনুল ইসলাম খান, পুলিশ সুপার জাহিদুল ইসলাম ও বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদসহ বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠান এবং স্কুল ও কলেজের পক্ষ থেকে শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়। এ সময় কোর্ট জামে মসজিদের ইমাম মুফতি রুহুল আমিন দোয়া পরিচালন করেন। সকাল সাড়ে ৯টায় জেলা প্রশাসকের কার্যালয় চত্বর থেকে একটি বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা বের করা হয়। শোভাযাত্রাটি শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদিক্ষণ শেষে স্থানীয় ভি.জে স্কুল (চাঁদমারী) মাঠে এসে শেষ হয়। পরে চাঁদামারী মাঠে সপ্তাহব্যাপী ‘মুক্তির উৎসব ও সুবর্ণজয়ন্তী মেলা-২০২২ উদ্বোধন করেন চুয়াডাঙ্গা-১ আসনের সংসদ সদস্য সোলায়মান হক জোয়ার্দ্দার ছেলুন এমপি। ‘বঙ্গবন্ধুর জন্মদিনের অঙ্গীকার সকল শিশুর সমান অধিকার’ স্লোগানে বঙ্গবন্ধুর জন্মবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস উপলক্ষে কেককাটা ও আলোচনাসভা অনুষ্ঠিত হয়। জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আমিনুল ইসলাম খানের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন চুয়াডাঙ্গা-১ আসনের সংসদ সদস্য জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা সোলায়মান হক জোয়ার্দ্দার ছেলুন এমপি। বিশেষ অতিথি ছিলেন পুলিশ সুপার জাহিদুল ইসলাম, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান শেখ সামসুল আবেদীন খোকন, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আজাদুল ইসলাম আজাদ, আনসারের জেলা কমান্ড্যান্ট তরফদার আলমগীর হোসেন, সাবেক জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক রিয়াজুল ইসলাম জোয়ার্দ্দার টোটন, চুয়াডাঙ্গা সরকারি  কলেজের বাংলা বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক মুন্সি আবু সাইফের উপস্থাপনায় উপস্থিত ছিলেন চুয়াডাঙ্গা সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর ড. একেএম সাইফুর রশিদ, চুয়াডাঙ্গা সরকারি আদর্শ মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর আজিজুর রহমান প্রমুখ। মেলায় ১৫৭টি স্টলে সরকারি-বেসরকারি বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান অংশগ্রহণ করেছে। সন্ধ্যায় মেলা প্রাঙ্গণেই অনুষ্ঠিত হয় মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।

চুয়াডাঙ্গা জেলা আওয়ামী লীগের আয়োজনে বঙ্গবন্ধুর জন্মবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস উপলক্ষে দিনব্যাপী নানা কর্মসূচি মধ্যদিয়ে উদযাপন করা হয়েছে। কর্মসূচির মধ্যে সকালে দলীয় কার্যালেয় জাতীয় পতাকা ও দলীয় পতাকা উত্তোলন এবং জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে পুস্পমাল্য অর্পণ করা হয়। বিকেলে দলীয় কার্যালয়ে আলোচনাসভা, দোয়া ও সন্ধ্যায় জন্মদিনের কেক কাটা হয়। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন চুয়াডাঙ্গা-১ আসনের সংসদ সদস্য জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা সোলায়মান হক জোয়ার্দ্দার ছেলুন। অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি নাসির উদ্দিন আহমেদ, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক রিয়াজুল ইসলাম জোয়ার্দ্দার টোটন, অ্যাড. শামসুজ্জোহা ও হাবিবুর রহমান লাভলু, সাংগঠনিক সম্পাদক মুন্সি আলমগীর হান্নান ও মুফতি মাসুদুজ্জামান লিটু বিশ্বাস, দপ্তর সম্পাদক অ্যাড. আবু তালেব বিশ্বাস, কোষাধ্যক্ষ আলী রেজা সজল, যুব ও ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক আরশাদ উদ্দীন আহমেদ চন্দন, মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সম্পাদক নুরুল ইসলাম মালিক, বিজ্ঞান প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক অ্যাড. তালিম হোসেন, শিল্প বিষয়ক সম্পাদক হাবিল হোসেন জোয়ার্দ্দার, কার্যনির্বাহী সদস্য ও জেলা জজ আদালতের বিজ্ঞ পিপি অ্যাড. বেলাল হোসেন, চুয়াডাঙ্গা পৌর মেয়র মো. জাহাঙ্গীর আলম মালিক খোকন, পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা এবিএম জহুরুল ইসলাম জোয়ার্দ্দার, ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আলাউদ্দিন হেলা, জেলা শ্রমিক লীগ সভাপতি মো. আফজালুল হক বিশ্বাস ও সাধারণ সম্পাদক রিপন মণ্ডল, জেলা কৃষক লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি তহিদুর রহমান চন্দন ও সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান কবির, মহিলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদিকা নুরুন্নাহার কাকলী, জাতীয় মহিলা সংস্থার সভাপতি নাবিলা রুকসানা ছন্দা, সদর উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান শাহাজাদী মিলি, পৌর মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সাফিয়া শাহাব, যুব মহিলা লীগের সাধারণ সম্পাদক গিণি ইসলাম, আলমডাঙ্গা উপজেলা আওয়ামী লীগের মহিলা সম্পাদিকা ও জেলা পরিষদের সংরক্ষিত মহিলা সদস্য কাজল রেখা, মহিলা নেত্রী শেফালী, শম্পা, সাথী, সাবেক যুবলীগের আহ্বায়ক আরেফিন আলম রঞ্জু, যুবলীগ নেতা আব্দুল কাদের, সিরাজুল ইসলাম আসমান, আব্দুর রশিদ, রেজাউল করিম, শাকিল আহমেদ টিপু, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি মোহাইমেন হাসান জোয়ার্দ্দার অনিক, সাবেক সহ-সভাপতি সাহাবুল হোসেন, সদর উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি হাফিজুর ইসলাম লাল্টু, ছাত্রলীগ নেতা রাজু আহমেদ, সোয়েব রিগান, সোহেল আহমেদ, রকি, রানা, রিয়ন প্রমুখ।

চুয়াডাঙ্গা বিচার বিভাগের আয়োজনে বঙ্গবন্ধুর জন্মবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস উদযাপন করা হয়েছে। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন জেলা ও দায়রা জজ মো. জিয়া হায়দার। উপস্থিত ছিলেন জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিজ্ঞ বিচারক মুসরাত জেরিন, চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মো. মিজানুর রহমান, অতিরিক্ত মো. লুৎফর রহমান শিশির, যুগ্ম জেলা ও দায়রা জজ মোহাম্মদ কামাল হোসেন শিকদার, মোহাম্মদ সিরাজুল ইসলাম গাজী, সিনিয়র সহকারী জজ মো. ছানাউল্ল্যাহ, জেলা লিগ্যাল এইড অফিসার মো. সাইফুদ্দীন হোসাইন, জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট জোহরা খাতুন, রোকেয়া বিনতে খালেক, মো. সাইদুল ইসলাম সহকারী জজ মো, ইব্রাহিম খলিল প্রমুখ।

চুয়াডাঙ্গা জেলা যুবলীগের কার্যালয়ের সামনে সকালে জাতীয় সংগীতের তালে তালে জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলন করা হয়। পতাকা উত্তোলন করে কর্মসূচির সূচনা করেন চুয়াডাঙ্গা জেলা যুবলীগের আহ্বায়ক ও জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক নঈম হাসান জোয়ার্দ্দার ও জেলা যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক জিল্লুর রহমান জিল্লু। পতাকা উত্তোলন শেষে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে পুষ্পমাল্য অর্পণ করা হয়। বিকেলে দলীয় কার্যালয়ে আলোচনা সভা ও দোয়া অনুষ্ঠিত হয়। জেলা যুবলীগের আহ্বায়ক নঈম হাসান জোয়ার্দ্দারের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক জিল্লুর রহমান জিল্লু। আলোচনা সভা ও দোয়া অনুষ্ঠানের পর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ১০২তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষ্যে কেক কাটা হয়। উপস্থিত ছিলেন জেলা যুবলীগের সদস্য সাজেদুল ইসলাম লাভলু, আজাদ আলী, হাফিজুর রহমান হাপু, আবু বক্কর সিদ্দীক আরিফ, আলমগীর আজম খোকা ও চুয়াডাঙ্গা পৌরসভার ৯নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর কামরুজ্জামান চাঁদ। দোয়া অনুষ্ঠানের পরিচালনা করেন চুয়াডাঙ্গা স্টেডিয়াম জামে মসজিদের পেশ ইমাম মোহাম্মদ ওমর ফারুক।

অপরদিকে মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের উদ্যোগে দিবসটি উপলক্ষে জেলা প্রশাসক চত্বরে অবস্থিত বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পমাল্য অর্পণ শেষে একটি র‌্যালি শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে জেলা মহিলা বিষয়ক কার্যালয়ে এসে কেক কাটার মধ্যদিয়ে দোয়া, আলোচনা সভা ও শিশুদের মাঝে পোষাক বিতরণ করা হয়। এ সময় উপস্থিত ছিলেন মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের প্রোগ্রাম অফিসার নাসিমা খাতুন, জাতীয় মহিলা সংস্থার চেয়ারম্যান নাবিলা রুকসানা, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান শাহাজাদী মিলি, জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নুরুন্নাহার কাকলী, ওসি কর্মকর্তা ইল্লিন সুলতানা। এছাড়াও বাংলাদেশ এনজিও ফাউন্ডেশন চুয়াডাঙ্গা জেলা শাখার উদ্যোগে বঙ্গবন্ধুর প্রতিতৃতিতে পুষ্পমাল্য অর্পণ শেষে একটি র‌্যালি শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে দোয়া ও আলোচনাসভা অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় উপস্থিত ছিলেন রিসোর নির্বাহী পরিচালক জাহিদুল ইসলাম, পাস’র নির্বাহী পরিচালক ইলিয়াস হোসেন, আলাপ’র নির্বাহী পরিচালক আশফাকুর রহমান, ওয়ার্প’র নির্বাহী পরিচালক আবেদ উদ দৌলা, গ্রামীণ সমাজ উন্নয়ন সংস্থার নির্বাহী পরিচালক সাইদুর রহমান লিপু।

চুয়াডাঙ্গায় বঙ্গবন্ধুর জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে পৌর ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক গাজী ইমদাদুল হক সজলের নেতৃত্বে সকালে কেদারগঞ্জস্থ দলীয় কার্যালয়ের সামনে জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলনসহ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে মাল্যদান ও পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হয়। দুপুরে চুয়াডাঙ্গা সরকারি কলেজ ছাত্রলীগের টেন্ডে বৃক্ষরোপণ করেন। বিকেলে জাফরপুর হাদিয়াতুল ইসলামিয়া হাফিজিয়া মাদরাসায় দোয়া আয়োজন করেন। সন্ধ্যা ৭ ঘটিকায় দলীয় কার্যালয়ে কেক কাটার কর্মসূচি পালন করেন নেতাকর্মীরা। কর্মসূচিসমূহে উপস্থিত ছিলেন চুয়াডাঙ্গা জেলা ছাত্রলীগ নেতা রাকিবুল হাসান নিপ্পন, আশিকুর রহমান হিমু, আকিব জাভেদ, ফারহান রাব্বি, আরাফাত প্লাবন, আরফিন সজিব, ইসতিয়াক সিথুন, সাইফুল ইসলাম, হাসান, সালেকিম আহমেদ প্রমুখ।

এনসিটিএফ চুয়াডাঙ্গায় বঙ্গবন্ধুর জন্মবার্ষিকী এবং জাতীয় শিশু দিবস উদযাপন করেছে। জেলার প্রায় অর্ধশতাধিক সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের নিয়ে শহরের রেলওয়ে স্টেশন সংলগ্ন পুরাতন স্টেডিয়াম মাঠে কেক কাটার আয়োজন করে। এছাড়া বঙ্গবন্ধুর জীবনী এবং মুক্তিযুদ্ধ সম্পর্কেও শিশুদের মাঝে আলোচনা করা হয়। কয়েকজন শিশু গজল, গান ও কবিতা আবৃত্তিতে স্বতঃস্ফ‚র্তভাবে অংশগ্রহণও করে। পরিশেষে সবার মাঝে এনসিটিএফ সদস্যরা চকলেট এবং কেক বিতরণ করে।

ডিঙ্গেদহ প্রতিনিধি জানিয়েছেন, দিবসটি উপলক্ষে শংকরচন্দ্র ইউনিয়ন পরিষদের উদ্যোগে সকাল ৯টার সময় কেক কেটে জন্ম দিবসের শুভ সূচনা করা হয়। উপস্থিত ছিলেন শংকরচন্দ্র ইউপি চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুর রহমান, সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহাদত হোসেন, শংকরচন্দ্র ইউপি প্যানেল চেয়ারম্যান শওকত মাহামুদ, ইউপি সচিব আশাবুল হক। এরপর বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পমাল্য অর্পণ করা হয়। এছাড়াও ডিঙ্গেদহ সোহরাওয়ার্দী স্মরণী বিদ্যাপীঠ, ডিঙ্গেদহ মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ের উদ্যোগে আলোচনা সভা, দোয়া, চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা ও বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পমাল্য অর্পণ করা হয়। অপরদিকে সন্ধা ৭টার সময় উদীচী ডিঙ্গেদহ শাখার উদ্যোগে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পমাল্য অর্পণ শেষে ১ মিনিট নিরবতা পালন ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

আলমডাঙ্গার গোকুলখালী ডা. আফছার উদ্দিন কলেজের হলরুমে শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের নিয়ে বঙ্গবন্ধুর জন্মশত বার্ষিকীর কেককাটা এবং দোয়া ও আলোচনাসভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সভাপতিত্ব করেন কলেজের অধ্যক্ষ মো. মাহবুল ইসলাম সেলিম। প্রধান অতিথি ছিলেন কলেজের সভাপতি মোশারফ হোসেন। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন অভিভাবক সদস্য অ্যাড. তসলিম উদ্দিন ফিরোজ।

অপরদিকে, বুজরুকগড়গড়ি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে বিভিন্ন প্রতিযোগিতা শেষে বঙ্গবন্ধুর জীবন ও কর্মের ওপর বিস্তারিত আলোচনাসভা অনুষ্ঠিত হয়। সহকারী শিক্ষক শাহিদা খাতুনের উপস্থাপনায় প্রধান অতিথি ছিলেন বুজরুক গড়গড়ী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি সুমন ইকবাল।

বেগমপুর প্রতিনিধি জানিয়েছেন, চুয়াডাঙ্গার হিজলগাড়ী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে দিবসটি উপলক্ষে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পমাল্য অর্পণ, আলোচনা, কেককাটা ও দোয়া অনুষ্ঠিত হয়। প্রধান শিক্ষক আনোয়ার হোসেন স্বপনের সভাপতিত্ব অনুষ্ঠনে প্রধান অতিথি ছিলেন বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি হাজি সুন্নত আলী। বিশেষ অতিথি ছিলেন সহপ্রধান শিক্ষক আলী হোসেন। অনুষ্ঠানটি উপস্থাপনা করেন সহকারী শিক্ষক নজরুল ইসলাম।

সরোজগঞ্জ প্রতিনিধি জানিয়েছেন, চুয়াডাঙ্গার কুতুবপুর ইউনিয়ন আ.লীগের উদ্যোগে বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে দোয়া ও আলোচনাসভা অনুষ্ঠিত হয়। ইউপি পরিষদ হলরুমে আয়োজিত অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন কুতুবপুর ইউনিয়ন আ.লীগের সাধারণ সম্পাদক ও ইউপি চেয়ারম্যান আলি আহম্মেদ হাসানুজ্জামান মানিক। উপস্থিত ছিলেন কুতুবপুর ইউনিয়ন আ.লীগের সহসভাপতি আব্দুল মোমিন, যুগ্মসম্পাদক রাকিবুল ইসলাম, আশিকুর রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক জহুরুল আলম, ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক জাকির হোসেন প্রমুখ।

অপরদিকে, চুয়াডাঙ্গা সরোজগঞ্জ তেতুল শেখ কলেজে দোয়া ও আলোচনাসভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সভাপতিত্ব করেন কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ গোলাম কিবরিয়া। প্রধান অতিথি ছিলেন কলেজের প্রতিষ্ঠাতা ও পরিচালনা কমিটির সভাপতি হাজি আব্দুল্লা শেখ। দোয়া পরিচালনা করেন হারুন অর রশিদ। এছাড়া সরোজগঞ্জ উচ্চ বিদ্যালয়ে আলোচনাসভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। উপস্থিত ছিলেন কুতুবপুর ইউনিয়ন আ.লীগের সভাপতি হাজি মজিবর রহমান। ছাদেমান নেছা মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ে সভাপতিত্ব করেন বিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা প্রধান শিক্ষক আবু সালেহ। প্রধান অতিথি ছিলেন প্রতিষ্ঠাতা ও সভাপতি হাজি আব্দুল্লা শেখ। অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন শিক্ষক সাইফুল আওয়াল, দোয়া পরিচালনা করেন মনতাজুল ইসলাম স্বাধিন।

ভালাইপুর প্রতিনিধি জানিয়েছেন, আলমডাঙ্গার চিৎলা ইউনিয়ন যুবলীগের উদ্যোগের বঙ্গবন্ধুর জন্মদিন ও জাতীয় শিশু দিবস উপলক্ষে কেক কাটা শেষে আলোচনাসভা ও দোয়া অনুষ্ঠিত হয়েছে। ইউনিয়ন যুবলীগের আহবায়ক ইনতাদুলের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা যুবলীগের যুগ্মআহবায়ক সাবেক চেয়ারম্যান জিল্লুর রহমান। বিশেষ অতিথি ছিলেন ইউনিয়ন যুবলীগের যুগ্মআহবায়ক রবিউল ইসলাম মল্লিক, সাইদুর রহমান, ইকরামুল হক, আব্দুল হাই, রাজু আহম্মেদ, কালু মিয়া প্রমুখ।

আলমডাঙ্গা ব্যুরো জানিয়েছে, আলমডাঙ্গায় দিবসটি উপলক্ষে সকাল ৯টায় উপজেলা প্রশাসন, উপজেলা পরিষদ, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ, আলমডাঙ্গা থানা প্রশাসন, সরকারি কলেজসহ বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠান মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্সের সামনে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে পুষ্পমাল্য অর্পণ করেন। এরপর উপজেলা চত্বর থেকে বণার্ঢ্য র‌্যালি শেষে বেলুন উড়িয়ে এবং ফিতা কেটে মুক্তি উৎসব ও সুবর্ণজয়ন্তী মেলা ২০২২ উদ্বোধন করেন। পরে উপজেলা মঞ্চে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মবার্ষিকী ও শিশু দিবস ২০২২ উপলক্ষে কেক কাটা, আলোচনাসভা ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। কেক কাটা, আলোচনাসভা ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে উপজেলা নির্বাহী অফিসার রনি আলম নূরের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন উপজেলা চেয়ারম্যান আইয়ুব হোসেন। বিশেষ অতিথি ছিলেন আলমডাঙ্গা পৌর মেয়র ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি হাসান কাদির গনু, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান অ্যাড. সালমুন আহমেদ ডন, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান কাজী মারজাহান নিতু, উপজেলা সহকারী কমিশনার রেজওয়ানা নাহিদ, আলমডাঙ্গা থানার অফিসার ইনচার্জ সাইফুল ইসলাস, বীর মুক্তিযোদ্ধা নুর মোহাম্মদ জকু, বীর মুক্তিযোদ্ধা অগ্নিসেনা মুক্তিযোদ্ধা মইনদ্দিন, বীর মুক্তিযোদ্ধা নোয়াব আলী, জেলা আওয়ামী লীগের নির্বাহী সদস্য শাহ আলম, আলমডাঙ্গা থানার পুলিশ পরিদর্শক তদন্ত আব্দুল আলীম, পুলিশ পরিদর্শক অপারেশন একরামুল হোসাইন, উপজেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক ইয়াকুব আলী মাস্টার প্রমুখ।

অপরদিকে আলমডাঙ্গা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে সকাল সাড়ে ৮টায় জাতায় সংগীতের তালে তালে জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলন, বঙ্গবন্ধুর প্রকৃতিতে মাল্যদান এবং সন্ধ্যায় আলোচনা সভা, দোয়া মাহফিল ও কেক কাটা হয়। দিবসটি উপলক্ষে নানা কর্মসূচিতে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও পৌর মেয়র হাসান কাদির গনু, জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা অ্যাড. আব্দুল রশীদ মোল্লা জেলা আওয়ামী লীগের বন ও পরিবেশ সম্পাদক শহিদুল ইসলাম খান, উপজেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক ইয়াকুব মাস্টার, উপজেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি আলহাজ লিয়াকত আলী লিপু মোল্লা, জেলা আওয়ামী লীগের নির্বাহী সদস্য শাহ আলম আলম, আবু মুসা, সিরাজুল ইসলাম, পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি দেলোয়ার হোসেন, সম্পাদক মতিয়ার রহমান ফারুক, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আলম হোসেন, আতিয়ার রহমান, আলম হোসেন, প্রচার সম্পাদক মাসুদ রানা তুহিন, পৌর আওয়ামী লীগের যুগ্মসম্পাদক সাইফুর রহমান পিন্টু, অ্যাড. মোখলেছুর রহমান, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান ও উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি সালমুন আহমেদ ডন, দপ্তর সম্পাদক মাসুদ সালেহীন উৎপল, প্রচার সম্পাদক মিজানুর রহমান রিপন, উপজেলা শ্রমিকলীগের সভাপতি আব্দুল কুদ্দুস, সম্পাদক আমিরুল ইসলাম প্রমুখ।

মুন্সিগঞ্জ প্রতিনিধি জানিয়েছেন, আলমডাঙ্গার জেহালা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের  উদ্যোগে মুন্সিগঞ্জ পশুহাটস্থ দলীয় কার্যালয়ে সকালে জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলন ও বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুস্পমাল্য অর্পণ করা হয়। বিকেলে আলোচনাসভা, দোয়া ও কেক কেটে দিবসটি উদযাপন করা হয়। ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি হাসান উজ্জামান হান্নানের সভাপতিত্ব উপস্থিত ছিলেন সহসভাপতি হেলাল উদ্দিন, আনছার আলী মাস্টার, মতিয়ার রহমান, ফজলুল হক, ইসলাম উদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক আব্দুল হান্নান মাস্টার, যুগ্মসাধারণ সম্পাদক ডা. জাহান আলী, লাবলু চৌধুরী, সাংগঠনিক সম্পাদক মঈন উদ্দিন। এছাড়া মুন্সিগঞ্জ বালিকা বিদ্যালয়, মুন্সিগঞ্জ পশুহাট সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও সৃজনী মডেল মাধ্যমিক বিদ্যাপীঠ নানা কর্মসূচি পালন করে। সৃজনী মডেল মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সভাপতি হাসান উজ্জামান হান্নান ও প্রধান শিক্ষক আহাদ আলী মোল্লা কেক কেটে ছাত্র-ছাত্রীদের খাইয়ে দেন।

আসমানখালী প্রতিনিধি জানিয়েছেন, আসমানখালী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে আয়োজিত অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আমিনুল ইসলাম। প্রধান অতিথি ছিলেন বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি জেলা পরিষদ সদস্য রকিবুল হাসান, গাংনী ইউপি চেয়ারম্যান মুন্সী মো. এমদাদুল হক প্রমুখ।

অপরদিকে, মুন্সিগঞ্জ একাডেমী বঙ্গবন্ধুর জন্মবার্ষিকী ও শিশু দিবসটি যথাযথ মর্যাদায় পালন করেছে। উপস্থিত ছিলেন স্কুলের সভাপতি আব্দুল হান্নান, সদস্য সিদ্দিক আলী, হেলাল উদ্দিন, প্রধান শিক্ষক আতিয়ার রহমান প্রমুখ। সার্বিক ব্যবস্থাপনায় ছিলেন সহকারী প্রধান শিক্ষক আনরুল ইসলাম।

কার্পাসডাঙ্গা প্রতিনিধি জানিয়েছেন, দামুড়হুদার কার্পাসডাঙ্গা ইউনিয়ন পরিষদে জাতীয় পতাকা উত্তোলন, কেক কাটা ও পরে দোয়া অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় উপস্থিত ছিলেন ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল করিম বিশ্বাস, বীর মুক্তিযোদ্ধা নূর ইসলাম, প্যানেল চেয়ারম্যান মনিরুজ্জামান মন্টুসহ ইউপি সদস্যগণ।

বাড়াদী প্রতিনিধি জানিয়েছেন, আলমডাঙ্গার বাড়াদী ইউনিয়নের এনায়েতপুরে চারাবাড়াদী আওয়ামী লীগের দলীয় অফিসে আয়োজিত অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগ নেতা হাসিবুল হক মেম্বার, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মোস্তাক আহম্মেদ স্বপন, আব্দুল খালেক, আব্দুল হালিম মুন্সি, খলিলুর রহমান, হাবিবুর রহমান প্রমুখ। সার্বিক তত্ত¡াবধানে ছিলেন এনায়েতপুর শেখ ট্রের্ডাসের স্বত্বাধিকারী সরকারি ঠিকাদার রজব আলী।

অপরদিকে, কার্পাসডাঙ্গা ইউনিয়ন আ.লীগের দলীয় কার্যালয়ে গতকাল বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় বঙ্গবন্ধুর জন্মদিন পালন করা হয়। এ সময় উপস্থিত ছিলেন ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক আহম্মদ আলী, শিক্ষক আলাউদ্দিন, ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শওকত আলী, শহিদ বিশ্বাস, ইলিয়াস হোসেন, রেজাউল করিম মিন্টু, আব্দুস সালাম, মনিরুল, আব্দুল গণি, আব্দুল হাকিম, বুলবুল হোসেন, কৃষক লীগের সাধারণ সম্পাদক সাজেদুল বিশ্বাস মিঠু, ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি কামরুজ্জামান রানা বিশ্বাস প্রমুখ।

দামুড়হুদা অফিস জানিয়েছে, দামুড়হুদায় বঙ্গবন্ধুর জন্মবার্ষিকি ও জাতীয় শিশু দিবস উদযাপন উপলক্ষে উপজেলা পরিষদ চত্বরে অবস্থিত বঙ্গবন্ধু’র ম্যুরালে পুষ্পস্তবক অর্পণ, দোয়া অনুষ্ঠিত হয়েছে। বঙ্গবন্ধু’র ম্যুরালে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলি মুনছুর বাবু ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার তাছলিমা আক্তার, উপজেলা বীর মুক্তিযোদ্ধা সংসদ, উপজেলা আওয়ামী লীগের নবনির্বাচিত সভাপতি মাহফুজুর রহমান মঞ্জু ও সাধারণ সম্পাদক হাজি সহিদুল ইসলাম, দামুড়হুদা মডেল থানার ওসি ফেরদৌস ওয়াহিদ, দামুড়হুদা সদর ইউপি চেয়ারম্যান হযরত আলিসহ উপজেলার বিভিন্ন দফতর, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ও বেসরকারি প্রতিষ্ঠান পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন। দোয়া অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। দোয়া অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন উপজেলা জামে মসজিদের ইমাম আশরাফুল আলম। এরপর উপজেলা পরিষদ চত্বরে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন উপজেলা চেয়ারম্যান আলি মুনছুর বাবু, বিশেষ অতিথি ছিলেন বীর মুক্তিযোদ্ধা রুস্তম আলি, বীর মুক্তিযোদ্ধা আছির উদ্দীন, বীর মুক্তিযোদ্ধা তমছের আলি, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মাহাফুজুর রহমান মঞ্জু, সাধারণ সম্পাদক হাজি সহিদুল ইসলাম, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান শহিদুল ইসলাম, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান সাহিদা খাতুন, উপজেলা সহকারী কমিশনার সুদীপ্ত কুমার সিংহ, দামুড়হুদা মডেল থানার ওসি ফেরদৌস ওয়াহিদ প্রমুখ। আলোচনা সভা শেষে কেক কাটা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন উপজেলা সমবায় অফিসার হারুন অর রশিদ।

এদিকে, বিকেলে দামুড়হুদা সদর ইউপির আয়োজনে আলোচনা সভা, কেককাটা ও  দোয়া অনুষ্ঠিত হয়। চেয়ারম্যান হযরত আলি সভাপতিত্বে অতিথি ছিলেন জেলা পরিষদ সদস্য শফিউল কবীর ইউসুফ, দামুড়হুদা মডেল সরকারি প্রাইমারি স্কুলের প্রধান শিক্ষক কুতুব উদ্দীন, দশমী সরকারি প্রাইমারি স্কুলের প্রধান শিক্ষক নারায়ণ চন্দ্রপাল সহ ইউপির সকল মেম্বারগণ প্রমুখ। অপরদিকে, দুপুরে আব্দুল ওদুদ শাহ ডিগ্রি কলেজে আলোচনা সভা, কেককাটা ও দোয়া অনুষ্ঠিত হয়। অধ্যক্ষ কামাল উদ্দীনের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন উপজেলা চেয়ারম্যান আলি মুনছুর বাবু। এ সময় কলেজের পরিচালনা কমিটির সদস্যবৃন্দ ও শিক্ষকগণ উপস্থিত ছিলেন। এছাড়াও দামুড়হুদা উপজেলা ইসলামিক ফাউন্ডেশনের আয়োজনে বঙ্গবন্ধু ও তার পরিবারের জন্য পবিত্র কোরআন খতম ও বিশেষ দোয়া অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।

দর্শনা অফিস জানিয়েছে, দর্শনা পৌর আ.লীগের কার্যালয়ে জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলন, বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুস্পমাল্য অর্পণ করা হয়। দর্শনা সরকারি কলেজে সকালে জাতীয় পতাকা উত্তোলন, বার্ষিক ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতার উদ্বোধন করেন অধ্যক্ষ প্রফেসর মো. শহীদুল ইসলাম। এর আগে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুস্পমাল্য অর্পণ, দোয়া, আলোচনাসভা ও কেক কেটে জন্মদিন পালন করা হয় কলেজে। উপস্থিত ছিলেন উপাধ্যক্ষ ড. মফিজুর রহমান, শিক্ষক পরিষদের সম্পাদক জমশেদুর রহমান, গোলাম কাওছার, সিরাজুল ইসলাম, আনিছুর রহমান, ইকরামুল হক, জাহাঙ্গীর আলম প্রমুখ। সন্ধ্যায় পৌর আ.লীগের কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত দোয়া ও আলোচনাসভার সভাপতিত্ব করেন পৌর আ.লীগের সভাপতি, পৌর মেয়র মতিয়ার রহমান। দামুড়হুদা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলি মুনছুর বাবুর উপস্থাপনায় অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন দামুড়হুদা উপজেলা আ.লীগের নবগঠিত কমিটির সভাপতি মাহফুজুর রহমান মঞ্জু। বিশেষ অতিথি ছিলেন সাধারণ সম্পাদক হাজি সহিদুল ইসলাম, বীর মুক্তিযোদ্ধা রুস্তম আলী, হাজি এরশাদ আলী মাস্টার, গিয়াস উদ্দিন পিনা, উত্তম রঞ্জন দেবনাথ, শফিকুল আলম, মোমিনুল ইসলাম, জাহিদুল ইসলাম, জয়নাল আবেদীন নফর, নেফাউর রহমান মন্টু, সোলায়মান কবির, ফয়সাল, দাউদ আলী, কামাল উদ্দিন আহম্মেদ সান্টু, উপজেলা যুবলীগের সভাপতি আব্দুল হান্নান ছোট, দর্শনা পৌর যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক শেখ আসলাম আলী তোতা, ছাত্রলীগ নেতা আরিফ মল্লিক, রফিকুল ইসলাম ববি, নাহিদ পারভেজ, তোফাজ্জেল হোসেন তপু প্রমুখ।

এদিকে রাত সাড়ে ৮টার দিকে দর্শনা থানা ¯ে^চ্ছা সেবকলীগের আয়োজনে দর্শনা করিমপুর এতিমখানায় দোয়া মাহফিল ও সংক্ষিপ্ত আলোচনায় প্রধান অতিথি ছিলেন চুয়াডাঙ্গা জেলা আ.লীগের সাধারণ সম্পাদক, বীর মুক্তিযোদ্ধা আজাদুল ইসলাম আজাদ। অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, আ.লীগ নেতা মোশাররফ হোসেন, থানা ¯ে^চ্ছা সেবকলীগের সভাপতি ইসলামুল হক আলামিন প্রমুখ। দোয়া পরিচালনা করেন হাজি মাওলানা নুরুল ইসলাম।

ভ্রাম্যমাণ প্রতিনিধি জানিয়েছেন, দামুড়হুদার কার্পাসডাঙ্গা ইউনিয়ন আ.লীগের দলীয় কার্যালয়ে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করা হয়। সন্ধ্যা ৭টায় কার্পাসডাঙ্গা ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মোস্তাফিজ কচির নেতৃত্বে কেক কাটার আয়োজন করা হয়। এ সময় অতিথি ছিলেন কার্পাসডাঙ্গা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল করিম বিশ্বাস, আব্দুল কাদের বিশ্বাস, সাধারণ সম্পাদক নজির আহমেদ, যুগ্মসম্পাদক আব্দুস সালাম বিশ্বাস, সাংগাঠনিক সম্পাদক জাহিদুর রহমান মুকুল, মখলেসুর রহমান রিপন প্রমুখ। এদিকে কার্পাসডাঙ্গা ডিগ্রি কলেজ, মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়, ইসলামিয়া ফাযিল (বিএ) মাদরাসা ও কার্পাসডাঙ্গা ইউনিয়ন পরিষদ কেক কাটার আয়োজন করে।

জীবননগর ব্যুরো জানিয়েছে, জীবননগরে এ উপলেক্ষে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে মাল্যদান, জন্মদিনের কেক কাটা, চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতাসহ শোভাযাত্রাসহ নানা অনুষ্ঠানমালার আয়োজন করা হয়। উপজেলা নির্বাহী অফিসার আরিফুল ইসলাম রাসেলের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন উপজেলা চেয়ারম্যান হাজি হাফিজুর রহমান। দিবসের আলোচনাসভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুস সালাম ঈশা, উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান আয়েশা সুলতানা লাকি ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) হুমায়ুন কবির। এছাড়াও উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা সেলিমা আখতার, উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা শারমিন আক্তার, উপজেলা প্রকৌশলী বোরহান উদ্দিন খান, উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা জাকির উদ্দিন মোড়ল, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা দীনেশ চন্দ্র পাল, উপজেলা সমবায় কর্মকর্তা নূর আলম, একটি বাড়ি একটি খামার প্রকল্পের ম্যানেজার আব্দুস সাত্তার, বন বিভাগের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শরিফুল ইসলাম কাজল প্রমূখ। এ দিবস উপলক্ষে সরকারি, আধা সরকারি ও গুরুত্বপূর্ণ ভবনসমূহে আলোকসজ্জা এবং ড্রপ ডাউন ব্যানার স্থাপন, জাতীয় পলাকা উত্তোলন, শিশুদের উপস্থিতিতে কেক কাটা ও মিষ্টি বিতরণ, আলোচনাসভা, রচনা প্রতিযোগিতা, চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা ও সকাল সাড়ে ১০টায় বিজয়ীদেও মাঝে পুরস্কার বিতরণ করা হয়। এছাড়াও বঙ্গবন্ধুর রুহের মাগফেরাত কামনা করে বিশেষ দোয়া অনুষ্ঠান এবং হাসপাতাল ও এতিমখানায় উন্নত মানের খাবার পরিবেশন করা হয়। এ দিবস উপলক্ষে জীবননগর ডিগ্রি কলেজ, সরকারি আদর্শ মহিলা কলেজ, সরকারি বালিকা বিদ্যালয়, পাইলট মাধ্যমিক বিদ্যালয়, শাপলাকলি আদর্শ মাধ্যমিক বিদ্যালয়, আলিম মাদরাসা দৌলৎগঞ্জ মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়সহ শহরের কিন্ডারগার্টেন স্কুলের শিক্ষার্থী শোভাযাত্রা বের করে এবং উপজেলা পরিষদ কর্তৃক আয়োজিত অনুষ্ঠানমালায় অংশগ্রহণ করে বলে জানা যায়।

আন্দুলবাড়িয়া প্রতিনিধি জানিয়েছেন, আন্দুলবাড়িয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ. যুবলীগ, ছাত্রলীগ, কলেজ বিভিন্ন মাধ্যমিক ও প্রাথমিক বিদ্যালয়, ইউনিয়ন পরিষদ ও বিভিন্ন বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের আয়োজনে নানা কর্মসূচি পালিত হয়েছে। সকাল সাড়ে ৮টায় আনুষ্ঠানিকভাবে স্ব স্ব প্রতিষ্ঠানে জাতীয় পতাকা উত্তোলন, বঙ্গবন্ধু প্রতিকৃতিতে পুস্পমাল্য অর্পণ, ক্রীড়া প্রতিযোগিতা, সাংস্কৃতি অনুষ্ঠান, আলোচনা সভা, পুরস্কার বিতারণ ও দোয়া অনুষ্ঠিত হয়। ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের অস্থায়ী কার্যালয় স্থানীয় আজাদ পাবলিক লাইব্রেরি চত্বরে জাতীয় ও দলীয় পতকা উত্তোলন করেন, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ শফিকুল ইসলাম মোক্তার ও সাধারণ সম্পাদক শেখ মহিদুল ইসলাম মধু। এছাড়াও আরআর এফ এনজিও সংস্থার উদ্যোগে নানা কর্মসূচি পালিত হয়।

মেহেরপুর অফিস জানিয়েছে, মেহেরপুর জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল ৯টায় জেলা প্রশাসকের কার্যালয় চত্বরে বিশেষভাবে নির্মিত জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা জানিয়ে পুষ্পমাল্য অর্পণ করা হয়। জেলা প্রশাসক ড. মোহাম্মদ মুনসুর আলম খান সর্বপ্রথম জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন এমপি এবং মেহেরপুর জেলাবাসীর পক্ষ পুষ্পমাল্য অর্পণ করেন। এরপর পরই পুলিশ বিভাগের পক্ষে পুলিশ সুপার রাফিউল আলম, মুক্তিযোদ্ধাদের পক্ষে ক্যাপ্টেন (অব.) আব্দুল মালেক ও জেলা শিল্পকলা একাডেমির পক্ষে সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক সাইদুর রহমান, জেলা পরিষদের পক্ষে জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ গোলাম রসূল, মেহেরপুর পৌরসভা মেয়র ও জেলা যুবলীগের পক্ষে আহ্বায়ক মাহফুজুর রহমান রিটন, জেলা আওয়ামী লীগের পক্ষে সহসভাপতি আবদুস সামাদ বাবলু বিশ্বাস, পৌর আওয়ামী লীগের পক্ষে সদর উপজেলা চেয়ারম্যান অ্যাড. ইয়ারুল ইসলাম, সরকারি কলেজের পক্ষে অধ্যক্ষ প্রফেসর শফিউল আলম সরদার, সরকারি মহিলা কলেজের পক্ষে অধ্যক্ষ প্রফেসর রফিকুল ইসলাম, ছহিউদ্দীন ডিগ্রি কলেজের পক্ষ অধ্যক্ষ একরামুল আজিম, টিটিসির পক্ষে অধ্যক্ষ আরিফ আহমেদ, জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের পক্ষে সাধারণ সম্পাদিকা লাভলী ইয়াসমিন, সামাজিক বন বিভাগের পক্ষে জাফরুল্লাহ, জেলা মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের পক্ষে পরিদর্শক আব্দুল মান্নান, ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের পক্ষে উপ-সহকারী পরিচালক নজমুজ্জামানসহ বিভিন্ন স্কুল-কলেজ এবং সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের পক্ষ থেকে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পমাল্য অর্পণ করেন।

এদিকে মেহেরপুর জেলা ও দায়রা জজ আদালতের উদ্যোগে পুষ্পমাল্য অর্পণ ও আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। এদিন দুপুরে জেলা ও দায়রা জজ আদালত মিলনায়তনে এ আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। জেলা ও দায়রা জজ মোহাম্মদ ওয়ালিউল ইসলামের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আদালতের বিচারক মোহাম্মদ তৌহিদুল ইসলাম, ভারপ্রাপ্ত সিজিএম মোহাম্মদ শরিয়ত উল্লাহ, যুগ্ম জেলা জজ মো. হেলাল উদ্দিন, লিগাল এইড কর্মকর্তা সেলিম রেজা, জেলা জজ আদালতের প্রশাসনিক কর্মকর্তা মতিউল আশরাফ, চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের ভারপ্রাপ্ত প্রশাসনিক কর্মকর্তা শেখ আহসানুল হক প্রমূখ। এর আগে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস উপলক্ষে মেহেরপুরের বিচারকদের পক্ষ থেকে জাতির জনকের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে তার প্রতিকৃতিতে পুষ্পমাল্য অর্পণ করা হয়।

মেহেরপুর জেলা প্রশাসনের আলোচনা সভা ও বিভিন্ন প্রতিযোগিতার বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠিত হয়েছে। এদিন দুপুরের দিকে মেহেরপুর জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে আলোচনা সভা ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠিত হয়। জেলা প্রশাসক ড. মোহাম্মদ মুনসুর আলম খানের সভাপতিত্বে আলোচনাসভা ও পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন পুলিশ সুপার মো. রাফিউল আলম, মেহেরপুর জেলা বঙ্গবন্ধু শিক্ষা ও গবেষণা পরিষদের সভাপতি প্রফেসর হাসানুজ্জামান মালেক, পিপি পল্লব ভট্টাচার্য প্রমুখ। পরে জেলা প্রশাসন আয়োজিত শিশু দিবস উপলক্ষে বিভিন্ন প্রতিযোগিতার বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করা হয়।

এদিকে মেহেরপুর জেলা যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক শহীদ সরফরাজ হোসেন মৃদুলের উদ্যোগে আলোচনা সভা, কেক কাটা ও দোয়া অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার রাত ১২টা ১ মিনেটে জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন এমপি’র বাসভবনে এ আলোচনা সভা, কেক কাটা ও দোয়া অনুষ্ঠিত হয়। জেলা যুবলীগের যুগ্মআহবায়ক সরফরাজ হোসেন মৃদুলের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন মেহেরপুর জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক অ্যাড. ইব্রাহীম শাহীন। মেহেরপুর শহর যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক তৌহিদুল ইসলাম তৌহিদের সঞ্চালনায় এ সময় অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক মোখলেসুর রহমান খোকন, শহর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আক্কাস আলী, মেহেরপুর সদর উপজেলা যুবলীগের সভাপতি আনোয়ার হোসেন আনু, গাংনী উপজেলা যুবলীগের সভাপতি মোশারফ হোসেন, সাধারণ সম্পাদক শফি কামাল পলাশ প্রমুখ। পরে সেখানে এক আলোচনা সভায় বঙ্গবন্ধুর মাগফেরাত কামনায় দোয়া করা হয়। দিনটি পালন উপলক্ষে এদিন বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। এছাড়া এদিন জেলা শিশু একাডেমি ও সরকারি গণগ্রন্থাগারের উদ্যোগে বিভিন্ন স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীরা জাতির জনকের ওপর রচনা, কবিতা আবৃতি ও চিত্রাংকন প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করে। এছাড়াও জেলা শিল্পকলা একাডেমি ও বিভিন্ন সাংস্কৃতিক সংগঠনের উদ্যোগে সন্ধ্যায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান এবং বিভিন্ন সরকারি প্রতিষ্ঠানে আলোক সজ্জা করা হয়।

মুজিবনগর প্রতিনিধি জানিয়েছেন, দিবসটি উপলক্ষে বর্ণাঢ্য র‌্যালি ও মুজিবনগর সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয় চত্বরে ৭দিনব্যাপী মুক্তির উৎসব ও সুবর্ণজয়ন্তী মেলা উদ্বোধন করেছে উপজেলা প্রশাসন। গতকাল সকালের দিকে উপজেলা প্রশাসন চত্বর থেকে একটি র‌্যালি বের করা হয়। র‌্যালিটি শহরের প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে মুজিবনগর মানচিত্রে এসে শেষ হয়। পরে মুজিবনগর মানচিত্রে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুস্পস্তপক অর্পণ করেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার সুজন সরকার, মুজিবনগর উপজেলা চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি জিয়াউদ্দীন বিশ্বাস, মুজিবনগর থানার ওসি মো. মেহেদী রাসেল, মুজিবনগর মুক্তিযোদ্ধা কমান্ড, মুজিবনগর ট্যুরিস্ট পুলিশ, উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স, মুজিবনগর পল্লী বিদ্যুৎ, মুজিবনগর বন বিভাগ, আনসার ভিডিপি মুজিবনগর, জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য রফিকুল ইসলাম তোতা, বাগোয়ান ইউপি চেয়ারম্যান আয়ূব হোসেন,  উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক শেখ সাকিব, উপজেল স্বেচ্ছাসেবক লীগের সহসভাপতি মতিউর রহমান মতিনসহ বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক ও সামাজিক সংগঠন। পরে উপজেলা হল রুমে আলোচনাসভা ও চিত্রা অংকন প্রতিযোগিতা শেষে পুরস্কার বিতরণ করা হয়। এছাড়া মুজিবনগর উপজেলা আ.লীগের আয়াজনে সভাপতি জিয়াউদ্দীন বিশ্বাসের সভাপতিত্বে উপজেলা আওয়ামী লীগ অফিসে আলোচনাসভা ও কেক কাটা হয়। এ সময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম মোল্লা, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান আফরোজা খাতুন, ইউপি আ.লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রশিদ বল্টু, জামাত আলী ও ইউপি আ.লীগের ক্রীড়া সম্পাদক জাহিদ প্রমুখ। অনুরূপ জেলা আ.লীগের সদস্য রফিকুল ইসলাম তোতার আয়াজনে মুজিবনগর পর্যটন মটেল চত্বরে আলোচনাসভা ও কেককাটা হয়। এ সময় উপস্থিত ছিলেন জেলা আ.লীগের সদস্য রফিকুল ইসলাম তোতা, উপজেলা আ.লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক নাসির উদ্দীন বাবলু, বাগোয়ান ইউপি চেয়ারম্যান আয়ূব হোসেন, উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক শেখ সাকিব, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সহসভাপতি মতিউর রহমান মতিন প্রমুখ। এছাড়া বাগোয়ান ইউপি পরিষদের আয়োজনে চেয়ারম্যান আয়ূব হোসেনের সভাপতিত্বে আলোচনা সভা ও শিশুদের নিয়ে কেক কাটা হয়। মহাজনপুর ইউনিয়ন পরিষদে আলোচনাসভা ও দোয়া অনুষ্ঠিত হয়। চেয়ারম্যান আমাম হোসেন মিলুর সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন মহাজনপুর ইউনিয়ন আ.লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক গোলাম মোস্তফা। সভা শেষে কেক কাটা ও বঙ্গবন্ধুর আত্মার মাগফেরাত কামনায় দোয়া করা হয়।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More