মারা গেলেন চুয়াডাঙ্গা সমবায় ব্যাংকের চেয়ারম্যান দামুড়হুদা ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান শেখ নাজিম উদ্দিন

স্টাফ রিপোর্টার: চুয়াডাঙ্গা সমবায় ব্যাংকের চেয়ারম্যান দামুড়হুদা ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান শেখ নাজিম উদ্দীন ইন্তেকাল করেছেন। (ইন্না ,,, রাজেউন)। শ্বাস কষ্ট দেখা দিলে বুধবার সন্ধ্যায় তাকে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে নেয়া হয়। অবস্থা গুরুতর ছিলো। পরে মৃতদেহ নেয়া হয় সমবয় ব্যাংক কার্যালয়ে।
শেখ নাজিম উদ্দীনের মৃত্যুকালে বয়স হয়েছিলো ৭৮ বছর। পরিবারের সদস্যরা বলেছেন, তিনি অ্যাজমার রোগী ছিলেন। মাঝে মাঝে শ্বাসকষ্ট হতো। গত কয়েকদিন ধরে তিনি শ্বাসকষ্টে ভুগছিলেন। বুধবার (২২ জুলাই) শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে তাকে নেয়া হয় হাসপাতালে। এক পর্যায়ে মারা যান। বৃহস্পতিবার (২৩ জুলাই) সকাল ১০টায় জান্নাতুল মওলা কবরস্থান জামে মসজিদে নামাজে জানাজা শেষে দাফন কাজ সম্পন্ন করা হবে।
অপরদিকে জানা গেছে, চুয়াডাঙ্গা সমবয় ব্যাংকের তিনজন করোনা আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। ওই ব্যাংকেরই চেয়ারম্যানের মৃত্যুর খবর পেয়ে স্বাস্থ্য বিভাগের সদস্যরা তার নমুনা সংগ্রহ করার উদ্যোগ নেন। পরিবারের সদস্যরা জানান, অ্যাজমার কারণে শ্বাস কষ্ট হয়েছে। চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার বরেছেন, বয়সজনিত কারণে  শেখ নাজিম উদ্দীন বেশ কিছু শারীরিক সমস্যায় ভুগছিলেন। তাকে গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় সন্ধ্যায় হাসপাতালের জরুরী বিভাগে নেয়া হয়। তিনি অ্যাজমাসহ বয়সজনিত বিভিন্ন রোগেই মারা গেছেন।

শেখ নাজিম উদ্দীন একজন সৌখিন প্রসংশিত যাত্রা শিল্পী ছিলেন। তিনি চুয়াডাঙ্গা জেলা শহরের কেদারগঞ্জ এলাকার বাসিন্দা হলেও দীর্ঘদিন দামুড়হুদা ইউপি চেয়ারম্যান হিসেবে নিষ্ঠার সাথে দায়িত্ব পালন করেন। তার প্রতিষ্ঠা করা বিদ্যালয়ও রয়েছে।  শেখ নাজিম উদ্দীন ছিলেন বিশিষ্ট সমাজ সেবক। দৈনিক মাথাভাঙ্গার অকৃত্তিম বন্ধু ছিলেন তিনি। তার মৃত্যুতে দৈনিক মাথাভাঙ্গা সম্পাদক শোক প্রকাশ করে শোক সন্তুপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন। শেখ নাজিম উদ্দীন বাংলাদেশ সাংবাদিক সমিতি চুয়াডাঙ্গা জেলা ইউনিটের সাবেক সভাপতি এনটিভি চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি ও দৈনিক মাথাভাঙ্গার প্রধান প্রতিবেদক অ্যা্ড. রফিকুল ইসলামের চাচা। মৃত্যুকালে স্ত্রী সন্তানসহ বহু গুণগ্রাহী রেখে গেছেন শেখ নাজিম উদ্দীন। মরহুম  শেখ নাজিম উদ্দীনের বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনায় সকলের নিকট দোয়া চেয়েছেন তার পরিবারের সদস্যরা।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More