আলমডাঙ্গা ও জীবননগরসহ দেশের ৫৬ পৌরসভায় ভোট ১৪ ফেব্রুয়ারি

মনোনয়নপত্র দাখিল শুরু ১৭ জানুয়ারি প্রত্যাহারের শেষ সময় ২৬ জানুয়ারি

স্টাফ রিপোর্টার: দেশের তিন শতাধিক পৌরসভার মধ্যে চতুর্থ ধাপে ৫৬টিতে ভোট হবে আগামী ১৪ ফেব্রুয়ারি। গতকাল রোববার ইসির সিনিয়র সচিব মো. আলমগীর এ তফসিল ঘোষণা করেন। ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী, রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে মনোনয়নপত্র দাখিল শুরু হবে ১৭ জানুয়ারি। বাছাই ১৯ জানুয়ারি। প্রত্যাহারের শেষ সময় ২৬ জানুয়ারি। এর আগে প্রথম ধাপের তফসিলের ২৫টি পৌরসভায় ইভিএমে ভোট হবে ২৮ ডিসেম্বর। দ্বিতীয় ধাপের ৬১ পৌরসভায় নির্বাচন হবে ১৬ জানুয়ারি। আর তৃতীয় ধাপে ৬৪টি পৌরসভায় ৩০ জানুয়ারি নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। দেশে মোট পৌরসভা রয়েছে ৩২৯টি। আইন অনুযায়ী, মেয়াদ শেষের আগের ৯০দিনের মধ্যে স্থানীয় সরকারের এ প্রতিষ্ঠানে ভোট করতে হয়। স্থানীয় সরকার আইন সংশোধনের পর ২০১৫ সালে প্রথম দলীয় প্রতীকে ভোট হয় পৌরসভায়। সেবার ২০টি দল নির্বাচনে অংশ নেয়।
চতুর্থ ধাপের পৌর নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। এ ধাপে চুয়াডাঙ্গার আলমডাঙ্গা ও জীবননগরসহ ৫৬টি পৌরসভায় ভোট নেয়া হবে ১৪ ফেব্রুয়ারি। এর মধ্যে ৩১টিতে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) এবং ২৫টিতে ব্যালট পেপার ব্যবহার করা হবে। ভোট হবে ৮টা থেকে ৪টা পর্যন্ত। গতকাল রোববার রাজধানীর আগারগাঁওয়ে নির্বাচন কমিশনের সিনিয়র সচিব মো. আলমগীর চতুর্থ ধাপের তফসিল ঘোষণা করেন। চতুর্থ ধাপের ভোটে অংশ নিতে মনোনয়নপত্র জমা দিতে হবে ১৭ জানুয়ারির মধ্যে। বাছাই করা হবে ১৯ জানুয়ারি। এছাড়াও ২৬ জানুয়ারি পর্যন্ত প্রার্থিতা প্রত্যাহারের সুযোগ রাখা হয়েছে। ইসি সচিব জানিয়েছেন, কমিশন সভায় আলোচনার পরে এই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। ঝূঁকিপূর্ণ পৌরসভাগুলোতে ইভিএম ব্যবহার করা হচ্ছে। বাকিগুলোতে ব্যালটপেপারে ভোট নেয়া হবে। এ ধাপের পৌরসভাগুলোর মধ্যে রয়েছে-ঠাকুরগাঁওয়ের সদর (ইভিএম), রাণীশংকৈল (ব্যালট), রাজশাহীর নওহাটা (ব্যালট), গোদাগাড়ী (ইভিএম), তাহেরপুর (ব্যালট), লালমনিরহাটের সদর (ইভিএম) পাটগ্রাম (ব্যালট), নরসিংদী সদর (ব্যালট), মাধবদী (ইভিএম), রাজবাড়ীর গোয়ালন্দ (ব্যালট), রাজবাড়ী সদর (ইভিএম), বরিশালের মুলাদী (ইভিএম), বানারীপাড়া (ব্যালট), শেরপুর সদর (ইভিএম) শ্রীবরদী (ব্যালট), চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ (ইভিএম), নাটোরের বড়াইগ্রাম (ব্যালট), সদর (ব্যালট), খাগড়াছড়ির মাটিরাঙ্গা (ব্যালট), বান্দরবান সদর ( ইভিএম), বাগেরহাটের সদর (ইভিএম), সাতক্ষীরা সদর (ইভিএম), হবিগঞ্জের চুনারুঘাট (ইভিএম) কুমিল্লার হোমনা (ইভিএম), দাউদকান্দি (ইভিএম), চট্টগ্রামের সাতকানিয়া (ইভিএম), চন্দনাইশ (ব্যালট), কিশোরগঞ্জের বাজিতপুর (ইভিএম), হোসেনপুর (ব্যালট), করিমগঞ্জ (ব্যালট), টাঙ্গাইলের গোপালপুর (ইভিএম), কালিহাতী (ব্যালট), পটুয়াখালীর কলাপাড়া (ইভিএম), চুয়াডাঙ্গার জীবননগর (ব্যালট), আলমডাঙ্গা (ইভিএম), ফেনীর পরশুরাম ইভিএম, চাঁদপুরের কচুয়া (ইভিএম), ফরিদগঞ্জ (ব্যালট), মাদারীপুরের কালকিনি (ইভিএম), নেত্রকোনার সদর (ইভিএম), যশোরের চৌগাছা (ইভিএম), বাঘারপাড়া (ব্যালট), রাঙ্গামাটি সদর (ইভিএম), মুন্সিগঞ্জের মিরকাদিম (ইভিএম), শরীয়তপুর ডামুড্যা (ব্যালট), জামালপুরের মেলান্দহ (ব্যালট), ময়মনসিংহের ফুলপুর (ইভিএম) জয়পুরহাটের আক্কেলপুর (ইভিএম), কালাই (ব্যালট), নোয়াখালীর চাটখিল (ইভিএম), ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়া (ইভিএম), লক্ষ্মীপুরের রামগতি (ইভিএম), ফরিদপুরের নগরকান্দা (ব্যালট) এবং সিলেটের কানাইঘাট (ব্যালট)।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More