কুমারখালী অগ্রণী ব্যাংক লকডাউন

কুষ্টিয়া প্রতিনিধি: কুমারখালীতে অগ্রণী ব্যাংকের পাঁচজন কর্মকর্তা-কর্মচারী করোনায় আক্রান্ত হওয়ার ঘটনায় শাখাটি লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে। শুক্রবার সকালে উপজেলা করোনা নিয়ন্ত্রণ কমিটির সভাপতি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. রাজীবুল ইসলাম খান ব্যাংকটির সংশ্লিষ্ট শাখা লকডাউন ঘোষণার বিষয়টি নিশ্চিত করেন। তবে পাঁচ জন করোনায় আক্রান্ত হওয়ার পরও মুনাফা লাভের আশায় কোরবানীর ঈদকে সামনে রেখে ব্যাংক কর্তৃপক্ষ উক্ত শাখার কার্যক্রম চালিয়ে যাওয়ার পক্ষে শক্ত অবস্থান গ্রহণ করেছিলো।

অগ্রণী ব্যাংক কুমারখালী শাখার ম্যানেজার (এসপিও) হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দী জানান, ব্যাংকের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের মধ্যে প্রথম করোনায় আক্রান্ত হন (এসও) হাসেন আলী। করোনা উপসর্গ থাকায় গত ২ জুলাই হাসেন আলীর করোনা পরীক্ষা করা হয়। পরের দিন ৩ জুলাই তার করোনা পজিটিভ ধরা পড়ে। এরপর গত ৬ জুলাই ব্যাংকের আরেক কমর্কর্তা (পিও) ইমতিয়াজ জামানের করোনা শনাক্ত হয়। পরপর দুজন কর্মকর্তার করোনা শনাক্ত হওয়ায় ব্যাংকের অন্যান্য সকল কর্মকর্তা-কর্মচারীর করোনা পরীক্ষা করা হয়। সর্বশেষ বৃহস্পতিবার (৯ জুলাই) ওই শাখার আরো তিন জন কর্মকর্তা-কর্মচারীর করোনা পজিটিভ শনাক্ত হয়। শনাক্ত অপর তিনজন হচ্ছেন- অফিসার ক্যাশ তরুন হোসেন, মাঠ সহকারী মুস্তাক আহমেদ এবং ঝাড়–দার নাসিমা খাতুন। আক্রান্তদের পাশাপাশি ব্যাংকের আরো দু’একজন কর্মকর্তা-কর্মচারীও অসুস্থ, তাদের শরীরে করোনা উপসর্গ রয়েছে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. রাজীবুল ইসলাম খান জানান, পাঁচ জন কর্মকর্তা-কর্মচারী করোনায় আক্রান্ত হওয়ায় অগ্রনী ব্যাংকের কুমারখালী শাখাটি লকডাউন করা হয়েছে। পরবর্তী নির্দেশনা না দেয়া পর্যন্ত শাখাটি বন্ধ থাকবে।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More